বিচারের জন্য সোমবার পর্যন্ত সময় বেঁধে দিলেন ভিপি নুর

  • ৪-Apr-২০১৯ ১২:৪৩ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সলিমুল্লাহ মুসলিম (এসএম) হলে এক শিক্ষার্থীকে মারধর ও শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার ঘটনার বিচারের জন্য সোমবার পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে সময় বেঁধে দিয়েছেন ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুর।

বুধবার (০৩ এপ্রিল) সকালে উপাচার্য ড. মো. আখতারুজ্জামানের সঙ্গে আলোচনার পর নুর এই সময় বেঁধে দেন। এই সময়ের মধ্যে অপরাধীদের শাস্তি নিশ্চিত না হলে নতুন কর্মসূচি দেয়া হবে বলে জানান তিনি।

একই দাবিতে সন্ত্রাসবিরোধী রাজু স্মারক ভাস্কর্যের সামনে শিক্ষার্থীদের যে বিক্ষোভ কর্মসূচি ছিল তা স্থগিত করা হয়েছে। সেখানে দাঁড়িয়ে নূর সাংবাদিকদের বলেন, আমরা সোমবার পর্যন্ত সময় দিয়েছি, এর মধ্যে আমরা দেখতে চাই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কী ব্যবস্থা নেয়। অন্যথায় আমরা নতুন কর্মসূচি দিতে বাধ্য থাকব।

ডাকসুর ভিপি বলেন, ভিসির সঙ্গে বৈঠক করে আমরা আশাবাদী। তাই আজকের মতো কর্মসূচি স্থগিত করেছি।

এসএম হলে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের হাতে মারধরের শিকার এক আবাসিক শিক্ষার্থীকে দেখতে গিয়ে মঙ্গলবার বিকালে সলিমুল্লাহ মুসলিম হলে অবরুদ্ধ হন নুরুল হক নূর। হল সংসদের নেতৃত্বে থাকা ছাত্রলীগ নেতারা তাকে অবরুদ্ধ করে লাঞ্ছিত করেন বলে অভিযোগ ওঠে। প্রায় দুই ঘণ্টা তিনি সেখানে অবরুদ্ধ থাকেন।

সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে নুর সেখান থেকে ছাড়া পান। এ সময় তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা হয় এবং ডিম ছুড়ে মারে ছাত্রলীগের কর্মীরা। তার সঙ্গে থাকা কয়েকজন আহতও হন। পরে প্রতিবাদস্বরূপ নুর ভিসির বাসভবনের সামনে গিয়ে অবস্থান নেন। তার সঙ্গে কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতারা ছিলেন।

রাত পৌনে একটার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে বিচারের আশ্বাস দিয়ে কর্মসূচি স্থগিত করার অনুরোধ জানান প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী। কিন্তু শিক্ষার্থীরা প্রক্টরের আশ্বাসে ভরসা রাখেননি। তারা ভিসিকে ঘটনাস্থলে এসে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলার দাবি জানান।

বুধবার সকালে ভিসি ড. আখতারুজ্জামানের সঙ্গে আলোচনায় বসেন নুর। এ বৈঠকের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আমাদের আস্থার জায়গা তৈরি হয়েছে। কর্মসূচি স্থগিত করেছি। কারণ, তিনি বিশ্ববিদ্যালয়েরে সর্বোচ্চ ব্যক্তি। আমরা চাই তিনি আমাদের বেঁধে দেয়া সময়সীমার মধ্যে কী ব্যবস্থা নেন তা দেখতে।

Ads
Ads