হামলা নিয়ে বিরূপ মন্তব্যে অষ্ট্রেলিয়ার সিনেটরের মাথায় ডিম ভাঙলো যুবক!

  • ১৭-মার্চ-২০১৯ ০৬:৩৩ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: সীমানা পেরিয়ে ডেস্ক ::

নিউজিল্যান্ড মসজিদে হামলার ঘটনায় বিরুপ মন্তব্য করেছিলেন অষ্ট্রেলিয়ান সিনেটর ফ্রেশার অ্যানিং। তার প্রতিবাদে অ্যানিং এর মাথায় ডিম ভাঙলো এক যুবক। সঙ্গে সঙ্গে বামপন্থী সমাজকর্মী যুবকের উপর চড়াও হন তিনি। চ্যানেল আই

শুক্রবার প্রকাশিত এক বিবৃতিতে অ্যানিং বলেন, ‘মুসলমানদের উপস্থিতি বৃদ্ধির’ ভীতি নিউজিল্যান্ডের সন্ত্রাসী আক্রমণের পেছনে কাজ করছে। যেখানে অন্যান্য অস্ট্রেলিয়ানরা এই সন্ত্রাসী হামলায় আক্রান্তদের পক্ষাবলম্বন করেছে সেখানে তিনি চরমপন্থার পক্ষে অবস্থান নিয়েছেন। যার ফলে ডানপন্থী এই রাজনীতিবিদ এর আগে তার সহকর্মীদেরও ক্ষোভের শিকার হয়েছেন।

শনিবার মেলবোর্নের মোরাব্বিনে কনজারভেটিভ ন্যাশনাল পার্টির মিটিংয়ে কথা বলছিলেন অ্যানিং। সেখানে তার মাথায় ডিম ভেঙে লেপ্টে দেয় সে। ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, ছেলেটি পেছনের দিক থেকে অ্যানিংকে আক্রমণ করে। তিনি ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে কথা বলছিলেন।

তারপরই সিনেটর ঘুরে ওই যুবকের দিকে তাকান এবং তাকে মারধর শুরু করেন। অন্যরা তরুনকে মাটিতে শোয়ায় এবং সিনেটরকে সরিয়ে নিয়ে যায়। পরে ১৭ বছর বয়সী ডিম ছোড়া ছেলেটিকে আটক করা হয়। তাকে আরো তদন্তের জন্য পাঠানো হয়।

এদিকে অ্যানিংকে তার অফিস থেকে সরানোর দাবিতে এক পিটিশনে ২লাখ ২২ হাজার লোক স্বাক্ষর করেছে। গণতান্ত্রিক এবং বহুসংস্কৃতির দেশে সিনেটর ফ্রেজার অ্যানিংয়ের মতো লোকের জায়গা নেই বলে ওই পিটিশনে উল্লেখ করা হয়েছে।

ক্রাইস্টচার্চ হামলায় অ্যানিংয়ের বক্তব্য শুনে এমন পিটিশন করা হয়। পিটিশনে আরো বলা হয়, অস্ট্রেলিয়ান সরকারের ওই সিনেটরকে বরখাস্ত করা উচিত।

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ এলাকায় সন্ত্রাসীর গুলিতে মসজিদে প্রার্থনারত ৪৯ জনের মৃত্যুর ঘটনার পরে অ্যানি বলেন, নিউজিল্যান্ডের রাস্তায় রক্তগঙ্গার সত্যিকারের কারণ হলো বর্তমানের অভিবাসন পরিকল্পনা। যার কারণে মুসলিমদের নিউজিল্যান্ডে অভিবাসন নেয়া খুবই সহজ হয়ে গেছে। বিশ্বব্যাপী মুসলিমরা তাদের বিশ্বাসের নামে অনেক হত্যাকান্ড চালাচ্ছে।

Ads
Ads