যার যেখানে দুর্বলতা আছে এক্ষুনি শোধরান: এলজিআরডি মন্ত্রী 

  • ২৫-জানুয়ারী-২০১৯ ০১:১৪ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: নিজস্ব প্রতিবেদক ::

সাংবাদিকদের দাওয়াত দিয়েও ওয়াসা ভবনে ঢুকতে না দেওয়ায় স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় (এলজিআরডি) মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলামের তোপের মুখে পড়তে হয়েছে ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) তাকসিম এ খানকে।

বৃহস্পতিবার (২৪ জানুয়ারি) রাজধানীর কারওয়ান বাজার এলাকায় অবস্থিত ওয়াসা ভবনে প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তাদের সঙ্গে এলজিআরডি মন্ত্রীর মতবিনিময় সভা চলাকালে এ পরিস্থিতে পড়তে হয় তাকে। এসময় এমডি তাকসিম চুপ ছিলেন।

মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকদের দাওয়াত দিয়ে ভবনে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না-এমন অভিযোগ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মন্ত্রী সাংবাদিকদের ডেকে পাঠান। সাংবাদিকরা সভায় আসার সঙ্গে সঙ্গে তিনি ওয়াসা এমডিকে প্রশ্ন করেন, কেনো গণমাধ্যম কর্মীদের এখানে আসতে দেননি। আমরা সবাইকে সঙ্গে নিয়ে চলতে চাই। আপনি এ ধরনের আচরণ করতে পারেন না।

একই সময় শূন্যপদে নিয়োগ না দিয়ে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দেওয়ায় ওয়াসা সিবিএ নেতারা ওয়াসা ভবনের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেন। তারা এমডির বিরুদ্ধে ব্যানার, প্ল্যাকার্ড নিয়ে বিভিন্ন রকম স্লোগান দিতে দেখা যায়। তারা বলেন, ‘আমরা এই ব্যবস্থাপনা পরিচালককে ‘এমডি’কে চাইনা। ‘তিনি এই ওয়াসাটাকে নিজের ঘর-বাড়ি মনে করেন’।‘তা যা কিছু ভালো মনে হয় তাই করেন’। ‘একটি সরকারি প্রতিষ্ঠানে কখনো একাকৃত্ব সিন্ধান্ত কোন কার্যক্রম আমরা মানবো না’।‘আমরা অনেক ধৈর্য ধরছি আর ধরবোনা’।‘তার কারণে আজকে ডুবতে বসেছে ‘ঢাকা ওয়াসা’।

সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় শেষে করে; পরে ‘ওয়াসা কর্তৃপক্ষ’র সাথে এ দীর্ঘ সময় আলোচনা করেন বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড নিয়ে। পরে সচিবালয়ের উদ্দেশ্যে বের হয়ে যাওয়ার সময় রাস্তা বন্ধ করে রাখেন ওয়াসার সিবিএ শ্রমিক নেতারা। তখন বিক্ষোভ করার বিষয়টি সামনে আনা হলে মন্ত্রী বলেন, ‘আমি নব্য মন্ত্রী হলাম, আমি আজ প্রথম ওয়াসা ভবনে এসেই এ অবস্থা দেখলাম’। আমি সবার কথা শুনবো, সবাইকে একসঙ্গে নিয়েই আগামী দিনগুলোতে সকল উন্নয়নমূলক কাজ করতে চাই। কারো কোনো অন্যায় থাকলে অবশ্যই বিভাগীয়ভাবে আইন-আনুক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে, এ ব্যাপারে সাংবাদিকরা এমডিকে প্রশ্ন করতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, আজ আমি উপস্থিত আছি, আজ না। তবে আমি সাংবাদিকসহ সবার কথা শুনতে চাই। আমাকে ব্যক্তিগত ভাবে যে কোন বিষয়ে সরাসরি আমাদের সচিবালয়ে এসে না হয় ফোন করে জানাবেন, আপনাদের স্বাগত জানাবো।

তাজুল ইসলাম আরো বলেন, আগামীতে আমরা অনেক দৃশ্যমান কিছু দেশকে দিতে চাই। দেশকে একটা ভিন্ন অবস্থায় নিয়ে যেতে চাই। চমকপ্রদ কিছু দিতে চাই। এজন্য আমাদের সুপেয় পানি একটা বড় চ্যালেঞ্জ। আমরা সবার মধ্যে সমান সেবা দিতে চাই। আমি জানি ঢাকা ও চট্টগ্রাম ওয়াসা চরম অবহেলা-অব্যবস্থাপনায় মধ্যে গেছে ও চলেছে। এ অবস্থা আর যেতে দেওয়া হবে না।

অতীতের ত্রুটির ব্যাপারে সতর্ক না হলে পরিণতি ভালো হবে না উল্লেখ করে এলজিআরডি মন্ত্রী বলেন, আমরা অনেক দূরে যেতে চাই,আমার দপ্তরের কোন প্রকার অন্যায় আমার কাছে আসলে সহ্য করা হবে না। আপনাদের যার যেখানে দুর্বলতা আছে তা এক্ষুনি শোধরান, তা না হলে পরিণতি খারাপ হবে। কোনো অন্যায় আর সহ্য করা হবে না।

এসময় স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় (এলজিআরডি) মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম ছাড়াও এ মন্ত্রণালয়ের সচিব এসএম গোলাম ফারুক ও ওয়াসার কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 

/কে 

Ads
Ads