এক ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর কমলাপুরে ট্রেনের টিকিট বিক্রি স্বাভাবিক

  • ১১-Aug-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

সার্ভারে ত্রুটির কারণে প্রায় এক ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর আবারও ট্রেনের টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে রাজধানীর কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে।

ঈদ যাত্রায় চতুর্থ দিনের মতো ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি চলছে। শনিবার (১১ আগস্ট) সকাল ৮টা থেকে শুরু হয় টিকিট বিক্রি। আজ দেয়া হচ্ছে ২০ আগস্টের টিকিট।

আজ সকাল ১০টা ২৩ মিনিটে সার্ভারে ত্রুটি দেখা দিলে টিকিট বিক্রি বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় ৫৩ মিনিট পর সার্ভার সচল হলে বেলা সোয়া ১১টার দিকে আবার টিকিট বিক্রি শুরু হয়।

ঢাকা রেলওয়ে বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম জানান, সার্ভারে ত্রুটির কারণে প্রায় ৫৩ মিনিট টিকিট বিক্রি বন্ধ ছিল। সমস্যা সমাধান হয়েছে। যথানিয়মে আবার টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, প্রচণ্ড চাপের কারণে সার্ভার ত্রুটি দেখা দিয়েছিল। তবে প্রকৃত কারণ জানার চেষ্টা চলছে।

এদিকে সাময়িক টিকিট বিক্রি বন্ধ থাকার কারণে গত রাত থেকে অপেক্ষমাণ টিকিট প্রত্যাশীরা চিৎকার চেঁচামেচি করে তাদের ক্ষোভ প্রকাশ করতে থাকেন।

আরিফুল ইসলাম নামে এক যাত্রী বলেন, গত রাত থেকে টিকিটের লাইনে দাঁড়িয়ে আছি। প্রায় ১১ ঘণ্টা লাইনে দাঁড়ানো। সকাল থেকেই ধীরগতিতে ওরা টিকিট বিক্রি করছে এরমধ্যে আবার ১ ঘণটার জন্য টিকিট বিক্রি কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়। মানুষের একটা ধৈর্যের সীমা আছে। এত সময় ধরে অপেক্ষা করতে করতে মানুষ ক্লান্ত। তার মধ্যে আবার সার্ভারে সমস্যা হয়ে টিকিট বিক্রি বন্ধ। এটা কি সহ্য করা যায়।

২০ আগস্টের টিকিট পেতে কমলাপুরে গত রাত থেকেই মানুষের দীর্ঘ লাইন। কমলাপুর স্টেশনে ৪র্থ দিনের মতো ঈদের অগ্রিম টিকিট বিক্রি হচ্ছে। তবে বিগত তিন দিনের তুলনায় আজ টিকিট প্রত্যাশী মানুষের উপস্থিতি ছিল সবচেয়ে বেশি।

এদিকে সবাই স্বাচ্ছন্দে বাড়ি ফিরতে পারবেন বলে আশ্বাস দিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ। টিকিট বিক্রির সার্বিক কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে এবং কালোবাজারি ঠেকাতে তৎপরত আছে আইন শৃঙ্ক্ষলা বাহিনী। ১৮ আগস্ট থেকে চলবে ঈদ যাত্রার বিশেষ ট্রেন।

এই ঈদে তিন লাখেরও বেশি যাত্রী পরিবহনের ব্যবস্থা করেছে রেল কর্তৃপক্ষ। আর টিকিট কালোবাজারি ঠেকাতে করা হচ্ছে কঠোর নজরদারি। একইসঙ্গে কাজ করছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

রবিবার আগাম টিকিট বিক্রির শেষ দিনে দেয়া হবে ২১ আগস্টের আগাম টিকেট। ঈদুল আজহা উপলক্ষে এবার প্রতিদিন কমলাপুর থেকে সারা দেশের উদ্দেশ্যে ৬৬টি ট্রেন ছেড়ে যাবে। যার মধ্যে ৩২টি আন্তঃনগর, বাকিগুলো মেইল ও স্পেশাল সার্ভিস।

এদিকে ১৫ আগস্ট থেকে শুরু হবে ফিরতি টিকিটের বিক্রি। সেদিন দেয়া হবে ২৪ আগস্টের টিকিট। এছাড়া ১৬ আগস্ট ২৫ আগস্টের, ১৭ আগস্ট ২৬ আগস্টের, ১৮ আগস্ট ২৭ আগস্টের ও ১৯ আগস্ট ২৮ আগস্টের ফিরতি টিকিট দেয়া হবে।

/ই

Ads
Ads