প্রেমিকার সঙ্গে এ কেমন নৃশংস আচরণ!

  • ২৫-Nov-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

বরিশালের গৌরনদীতে প্রেমিকের হাতে নির্মম নির্যাতনের শিকার হয়েছে সুমা বালা (১৯) নামের এক কলেজ ছাত্রী।

শনিবার সন্ধ্যার এই ঘটনায় এলাকাবাসী ক্ষিপ্ত হয়ে ওই প্রেমিককে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

নির্যাতিতা তরুণী জানান, আগৈলঝাড়া উপজেলার বাকাল ইউনিয়নের ফেঁনাবাড়ি গ্রামের জীবন গুপ্তর ছেলে শান্ত গুপ্তর (২৪) সঙ্গে দুইমাস আগে একই ইউনিয়নের কোদাল ধোয়া গ্রামের মৃত দেবেন বালার মেয়ে ও সরকারি গৌরনদী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের শিক্ষার্থী সুমা বালার (১৯) প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। শনিবার বিকেলে তারা গৌরনদী উপজেলার টরকী বন্দর সংলগ্ন সুন্দরদী গ্রামের নীলখোলা এলাকার মিঠু কাজীর বাড়ির ভাড়াটিয়া কিন্ডারগার্টেন শিক্ষক চিন্ময় পান্ডের বাসায় আসেন। সেখানে শান্ত দৈহিক সম্পর্কের জন্য সুমাকে চাপ দেন। এ সময় সুমা বাধা দিলে তাদের মধ্যে ধস্তাধস্তি হয়। এক পর্যায়ে শান্ত সুমার মুখমণ্ডল থেঁতলে দেন। এ সময় সুমা চিৎকার করলে শান্ত গুপ্ত ওই বাসা থেকে পালানোর চেষ্টা করেন। বিষয়টি টের পেয়ে এলাকাবাসী তাকে আটকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে।

গৌরনদী মডেল থানার এসআই মো: সাচ্চু মিয়া জানান, খবর পেয়ে ফোর্সসহ তিনি ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহত প্রেমিক-প্রেমিকাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে গৌরনদী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন এবং গৌরনদী পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো: খোকন সিকদারের জিম্মায় রেখে আসেন।

পৌর কাউন্সিলর মো: খোকন সিকদার জানান, শিক্ষক চিন্ময় পান্ডে ও স্বজনরা মিলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ওই রাতেই সুমা বালা ও শান্ত গুপ্তকে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেছেন।

গৌরনদী মডেল থানার ওসি মো: গোলাম সরোয়ার জানান, বরিশাল মেডিকেল কলেজ থেকে পুলিশ শান্তকে আটক করেছে। এ ঘটনায় নির্যাতিত ওই ছাত্রীর মা নিলিমা বালা বাদী হয়ে শান্ত গুপ্তকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে রোববার সকালে গৌরনদী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

Ads
Ads