কি হবে বিএনপির রাজনীতির ভবিষ্যৎ?

  • ৩০-Dec-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

কাল জাতীয় সংসদ নির্বাচন। এই নির্বাচন কেবল আগামী ৫ বছর কারা দেশ পরিচালনা করবে সেটাই নির্ধারিত হবে না, এই নির্বাচনে বিএনপির রাজনীতির ভবিষ্যতও চূড়ান্ত হবে। এই নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করছে বিভক্ত, ক্ষত-বিক্ষত এক রাজনৈতিক সংগঠন হিসেবে। নির্বাচনের ফলাফলের উপর নির্ভর করছে বিএনপির রাজনীতির ভবিষ্যৎ। কেমন হতে পারে বিএনপির রাজনীতির ভবিষ্যৎ পথরেখা?

যেটা বিএনপির নেতারাও এখন শুধু মুখে বলেন, কিন্তু বাস্তবে তারা বিশ্বাস করেন না। যেটা হলো ‘ভোট বিপ্লব’। বিএনপি এবং জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট বলছে এই নির্বাচনে জনগণের নীরব ভোট বিপ্লব হবে। ভোটের মাধ্যমে বর্তমান সরকারকে অপসারণ করবে। সেরকম কিছু ঘটলে তা বিএনপির রাজনৈতিক ইতিহাসের সবচেয়ে বড় ‘বিপ্লব’। এটা হবে বিএনপির জন্য এক ঐতিহাসিক পুনঃজন্ম।

নির্বাচন থেকে শেষ পর্যন্ত সরেও যেতে পারে বিএনপি। যেমন ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন থেকে তিন বছর আগে সরে গিয়েছিল বিএনপি। এভাবে যদি বিএনপি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ায়। তাহলে দলটি সম্ভবত তার রাজনৈতিক ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বিপর্যয়ের মধ্যে পরবে। ২০১৪’র নির্বাচন বর্জন করে বিএনপি যে সংকটে পরেছিল, এবার যদি দলটি শেষ মুহূর্তে বা ভোটের দিন নির্বাচন থেকে সরে যায়, তাহলে তার চেয়েও বড় সংকটে পরবে। এরকম সিদ্ধান্ত তাদের জন্য আত্মঘাতি হবে। এর ফলে দলটি ভাঙ্গনের মুখেও পরতে পারে।

শেষ পর্যন্ত ভোটে থাকলে ভোট বিপ্লব না হলেও, নির্বাচনে বিএনপি সম্মানজনক আসন পাবে। বিএনপি দেশের অন্যতম বৃহৎএকটি রাজনৈতিক দল। তার নিজস্ব ভোট ব্যাংক আছে, আছে জনসমর্থনও। এই নির্বাচনে হেরে বিরোধী দলে বসলেও বিএনপি তার সাংগঠনিক পুন:বিন্যাসের সুযোগ পাবে। নতুন রাজনীতি , নতুন নেতৃত্বের মাধ্যমে আগামী ৫ বছর দলটি গণতান্ত্রিক রীতি নীতিতে গুছিয়ে ওটার সুযোগ পাবে। আবার এরকম পরাজয়ের ফলে বিএনপিতে ঘটতে পারে নতুন মেরুকরণ। সেই মেরুকরণে বিএনপির ভাঙ্গনও অস্বাভাবিক নয়।

তবে যেটাই হোক না কেন, এই নির্বাচন বিএনপিকে নতুন রূপ দেবে। নতুন বাস্তবতার মুখোমুখি দাড় করাবে। সবচেয়ে বড় কথা, এই নির্বাচনের যে ফলাফল হোক না কেন? এই নির্বাচনের মাধ্যমে বিএনপিকে পরিবর্তিত হতেই হবে। তাকে জামাতসহ যুদ্ধাপরাধীদের সঙ্গ ত্যাগের সিদ্ধান্ত নিতেই হবে। তাকে বাস্তবতা এবং আত্মউপলব্ধি করতে হবে। বিএনপি দেশের প্রধান রাজনৈতিক দলগুলোর একটি। তাই এই নির্বাচনে দলটি নিজেকে সুষ্ঠভাবে গড়ে তোলার সুযোগ তৈরি করবে বলেই রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকেরা মনে করেন।

Ads
Ads