গোসাইরহাটে যুবলীগ ছাত্রলীগের হামলায় বিএনপির প্রার্থীসহ আহত ৩০

  • ২৪-Dec-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: শরীয়তপুর ব্যুরো ::

শরীয়তপুরের গোসাইরহাটে শরীয়তপুর-৩ (গোসাইরহাট-ডামুড্যা-ভেদরগঞ্জ) আসনে বিএনপির ধানের শীষের প্রার্থী মিয়া নুরউদ্দিন অপুর প্রচারনায় হামলা চালিয়েছে নৌকার সমর্থক আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ ঘটনায় নুরউদ্দিন অপু সহ বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের অন্তত ৩০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে। 

সোমবার (২৪ ডিসেম্বর) বেলা ১২ টার সময় গোসাইরহাট উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা ভবনের পাসের মাঠে এই হামলার ঘটনা ঘটে। হামলায় নুর উদ্দিন অপু গুরুতর আহত হয়েছেন।  তাকে হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।  
বিএনপি ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, মিয়া নুরউদ্দিন অপু তার উপজেলার কোদালপুরের বাড়ি থেকে দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে নির্বাচনী প্রচারনা চলাতে চালাতে একটি মিছিল নিয়ে গোসাইরহাট উপজেলা বিএনপির কার্যালয়ে যাচ্ছিলেন। মিছিলটি গোসাইরহাট উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা ভবনের পাসের মাঠে পৌছলে স্থানীয় আওয়াামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তাদের ওপর হামলা চালায়। এ ঘটনায় নুরউদ্দিন অপু সহ বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের প্রায় ৩০ জন নেতাকর্মী আহত হয়। 

জেলা মহিলা দলের সম্পাদিকা আসমা উল হুসনা বলেন, বিএনপির নির্বাচনী  প্রচারনায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে পুলিশে উপস্থিতে অতর্কিত হামলা চালিয়েছে। এতে বিএনপির প্রার্থী নুরউদ্দিন অপু সহ ৩০ জনের বেশি নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। নুর উদ্দিন অপুর অবস্থা গুরুতর। তার মাথা ফেটে গেছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা পাঠানো হয়েছে। আহতদের হাসপাতালে নেয়া সম্ভব হয়নি। 

গোসাইরহাট থানার ভারপ্রপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম রেজা বলেন, নিএনপি ও আওয়ামী লীগের মুখোমুখি মিছিলে দু'পক্ষের মধ্যে সংঘষের ঘটনা ঘটে। হামলায় বিএনপির প্রার্থী নুরউদ্দীন অপু আহত হয়। খবর পেয়ে পুলিশ পরিস্থতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এ ঘটনায় এখনো কেউ অভিযোগ দায়ের করেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Ads
Ads