আন্দোলনের পক্ষে জনমত গড়বে বিএনপি

  • ১৯-Aug-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: মুহাম্মাদ শফিউল্লাহ ::

ঈদকে সামনে রেখে নিজ নিজ এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল- বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থীরা। যদিও ‘চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ছাড়া এবং নিরপেক্ষ সরকারের অধীন ছাড়া নির্বাচনে অংশগ্রহণ নয়’ বলে আসছে দলটি। তবুও সংসদীয় আসনগুলোয় সম্ভাব্য প্রার্থীদের প্রচারণা এই ঈদে জমজমাট হয়ে উঠছে। প্রিয় মানুষের সাথে ঈদ উদযাপন করতে সারা দেশ থেকে ঘরমুখো মানুষের মন জয় করার লক্ষ্যে মাঠে থেকে দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন নেতারা। চলছে জোর প্রচারণা ও গণসংযোগ। 

আমাদের বিভাগীয় বুর‍্যো অফিসসহ বিভিন্ন জেলার প্রতিনিধিরা জানান, জণগণের সমর্থন পাওয়ার আশায় নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে নিজ নিজ এলাকায় ব্যস্ত সময় পার করছেন বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। অন্য সময়ের তুলনায় এ ঈদে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা ঘুরে ঘুরে মানুষের সমস্যার কথা শুনছেন, আর্থিক অনুদান দিচ্ছেন। দিচ্ছেন উপহার সামগ্রী। বাজারের সব থেকে বড় পশু কিনে  কোরবানি দিয়ে মহল্লায় মহল্লায় বিতরণ করাও হচ্ছে বলে জানা গেছে। বেশিরভাগ প্রার্থী ঈদ উপলক্ষে নেতাকর্মী ও ভোটারদের ভুঁড়িভোজ করানোর প্রস্তুতিও নিয়েছেন। 

পিরোজপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আলমগীর হোসেন। যিনি একাদশ সংসদ নির্বাচনে স্থানীয় আসন পিরোজপুর-১ এর দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী। দীর্ঘ ২৮ বছর ধরে বিএনপির রাজনীতিতে যুক্ত থাকা এই নেতা আসন্ন ঈদুল আজহাকে ঘিরে এরই মধ্যে নিজ নির্বাচনী এলাকায় গণসংযোগ করছেন। মাঠে নেতা-কর্মীদের মধ্যে দলটির প্রধান বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলনের বার্তা পৌঁছে দেওয়ার পাশাপাশি সর্বসাধারণের সঙ্গে মতবিনিময়ও করবেন বলে জানান তিনি। তিনি এ প্রতিবেদককে বলেন, ‘নির্বাচনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত এখনও হয়নি। নির্বাচনে অংশগ্রহণ হোক বা না হোক বেগম জিয়ার মুক্তির জন্য কাজ করে যাচ্ছি।’ 

এবারের ঈদে বিএনপি ও অন্যান্য দলের সম্ভাব্য প্রার্থীদের তৎপরতা অন্যবারের তুলনায় বেড়েছে। সমানতালে সক্রিয় রয়েছেন নতুন মনোনয়ন প্রত্যাশীরাও। কেউ কেউ পশু কোরবানি, দান-খয়রাত ও শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠান আয়োজনের মাধ্যমেও মানুষের নজর কাড়ার চেষ্টা করছেন বা করবেন। দীর্ঘদিন যারা এলাকায় যাননি তারাও নির্বাচন সামনে রেখে ছুটে যাচ্ছেন ভোটারের দুয়ারে। খোঁজ নিচ্ছেন নেতাকর্মী-সমর্থকদের। ঈদের মতো সামাজিক উৎসবকে মানুষের কাছে যাওয়ার সুযোগ হিসেবে কাজে লাগানোর পরিকল্পনা সম্ভাব্য প্রার্থীদের।

ঈদ শুভেচ্ছার পোস্টার-ব্যানার ও ফেস্টুনে তারা ছেয়ে ফেলেছেন শহর, হাট-বাজার ও গ্রাম। হাট-বাজার, পাড়া-মহল্লায় সম্ভাব্য প্রার্থীদের সমর্থকরা আরও সক্রিয় হয়ে উঠেছেন। কারাবন্দি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ছাড়া নির্বাচনে না যাওয়ার হুমকি দিয়েও বসে নেই বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থীরা। মামলার চাপে আড়ালে থাকা অনেকেই ঈদ সামনে রেখে সরব হচ্ছেন।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদ ভোরের পাতাকে বলেন, ‘ঈদকে কেন্দ্র করে স্বাভাবিকভাবেই নেতারা গণমানুষের সাথে দেখা করবেন। দলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছ বিনিময় করবেন। আর  বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং নির্দলীয় সরকার ছাড়া নির্বাচনে অংশ নেবে না বিএনপি। আমরা আশা করছি সরকার শুভবুদ্ধির পরিচয় দেবে। সে আশায় দলের সম্ভাব্য প্রার্থীরা নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়ে রাখবেন।’

বিএনপির সম্ভাব্য কয়েকজন প্রার্থী ভোরের পাতাকে জানান, আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণের নির্দেশনা না পেলেও তারা প্রস্তুতি নিয়ে রাখছেন। হাইকমান্ডের সবুজ সংকেত পেলে তারা নিজ নিজ এলাকায় আরও সক্রিয় হবেন। অনেকে এলাকায় পোস্টার-ব্যানার লাগানোর সুযোগ না পেয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কিংবা অন্যান্য উপায়ে এলাকাবাসীর সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন। সামাজিক অনুষ্ঠান-আয়োজনেও সম্ভাব্য প্রার্থীদের অংশগ্রহণ বাড়ছে।

 

অনলাইন/কে 

Ads
Ads