২১২ রানের লিড নিয়ে ৪৪৫ রানে অলআউট পাকিস্তান

  • ৯-ফেব্রুয়ারী-২০২০ ০৩:২৬ অপরাহ্ন
Ads

:: স্পোর্টস ডেস্ক ::

রাওয়ালপিন্ডিতে দুই টেস্ট ম্যাচের সিরিজের ১ম ম্যাচে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ২৩৩ রানের জবাবে বাবরের শতকে সবকটি উইকেট হারিয়ে পাকিস্তানের সংগ্রহ ৪৪৫ রান। স্বাগতিকদের লিড ২১২ রান। হাতে সময় আরও আড়াই দিনের বেশি।

তৃতীয় দিনের শুরুতেই বাংলাদেশ দলকে সাফল্য এনে দিয়েছেন পেসার আবু জায়েদ রাহি। তার তৃতীয় শিকারে পরিণত হয়েছেন সেঞ্চুরিয়ান বাবর আজম। রাহির বলে মোহাম্মদ মিঠুনের তালুবন্দি হয়ে শেষ হয় বাবরের ১৯৩ বলে ১৪৩ রানের ইনিংস। শেষ হলো চতুর্থ উইকেটে আসাদ শফিকের সঙ্গে ১৩৭ রানের চমৎকার এক জুটি। এরপর ১২৯ বলে ৬৫ রান করা আসাদ শফিককে লিটন দাসের গ্লাভসবন্দি করেন এবাদত হোসেন। উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ রিজওয়ান (‌১০) শিকার হন রুবেল হোসেনের।

এই অভিজ্ঞ পেসারের দ্বিতীয় শিকার ইয়াসির শাহ (৫)। ৭ উইকেটে ৪২০ রান তুলে মধ্যাহ্ণ বিরতিতে যায় পাকিস্তান। লাঞ্চ থেকে ফিরে শাহিন আফ্রদিকে এলবিডাব্লিউ করে নিজের তৃতীয় শিকার ধরেন রুবেল। সেঞ্চুরির কাছে গিয়ে ৭৫ রানে তাইজুলের বলে তামিম ইকবালের তালুবন্দি হয়ে ফিরেন হারিস সোহেল। শেষে দারুণ থ্রেতে নাসিম শাহকে(০) রান-আউট করে পাকিস্তানের ইনিংসের সমাপ্তি টানেন সাঈফ হাসান । ৪৪৫ রানে শেষ হয় পাকিস্তানের প্রথম ইনিংস। বাংলাদেশের সামনে লিড ২১২ রানের।

এর আগে ম্যাচের দ্বিতীয় দিন গতকাল শনিবার ৩ উইকেট ৩৪২ রান তোলে পাকিস্তান। বাবর আজম অপরজিত ছিলেন ১৪৩* রানে এবং আসাদ শফিক ৬০* রানে। দলীয় ২ রানেই বাংলাদেশকে সাফল্য এনে দেন আবু জায়েদ রাহি। তার বলে উইকেটকিপার লিটন দাসের গ্লাভসবন্দি হন আবিদ আলী (০)। এরপর ৯১ রানের জুটি গড়েন শান মাসুদ আর আজহার আলী। ১৫৭ বলে ১১ বাউন্ডারিতে টেস্ট ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেন ৩০ বছর বয়সী শান মাসুদ। এর পরেই ১৩৫ বলে ১৫ বাউন্ডারিতে ক্যারিয়ারের পঞ্চম সেঞ্চুরি হাঁকান বাবর আজম।

নিজেদের প্রথম বাংলাদেশ অল-আউট হয় মাত্র ২৩৩ রানে। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে দলীয় ৩ রানেই প্যাভিলিয়নে ফিরে যান দুই ওপেনার তামিম ইকবাল (৩) আর অভিষিক্ত সাইফ হাসান (০)। অধিনায়ক মুমিনুল করেন ৩০ রান। টিকে থাকার লড়াই করতে করতে নাজমুল হোসেন শান্ত করেন ১১০ বলে ৪৪ রান।

বাংলাদেশের ইনিংসের একমাত্র হাফ সেঞ্চুরিয়ান মোহাম্মদ মিঠুন। নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হওয়ার আগে তিনি করেন ১৪০ বলে ৬৩ রান। ৫৩ রানে ৪ উইকেট নেন শাহিন শাহ আফ্রিদি। ২টি করে নিয়েছেন মোহাম্মদ আব্বাস আর হারিস সোহেল।

প্রথম ইনিংসের পারফর্মেন্স যদি উন্নত করা সম্ভব না হয়, তবে বড় হারের মুখেই পড়ে যাবে বাংলাদেশ। এখন দেখার ব্যাটসম্যানরা নিজেদের ভুলগুলো সংশোধন করতে পারেন কিনা।

Ads
Ads