ফলাফল যাই হোক মেনে নেবো: আতিকুল

  • ১-ফেব্রুয়ারী-২০২০ ০৯:২১ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

সিটি নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী হলেও ফলাফল যাই হোক তা মেনে নেবেন বলে জানিয়েছে ঢাকা উত্তরে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম।

শনিবার (১ ফেব্রুয়ারি) সকাল আটটার কিছু পর উত্তরা মডেল টাউনের নওয়াব হাবিবুল্লাহ স্কুল অ্যান্ড কলেজের ভোট দেওয়ার পর সাংবাদিকদের সামনে তিনি এই কথা বলেন।

আতিকুল ইসলাম বলেন, নির্বাচনে হার জিত থাকবে। ফল যাই হোক মেনে নেব। যদি আমার প্রতিপক্ষ দল জয়লাভ করে তাহলে আমি তাদের সঙ্গে আমার নয় মাসের অভিজ্ঞতা শেয়ার করব।

জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদ ব্যক্ত করে নৌকা প্রতীকের মেয়রপ্রার্থী বলেন, এখন ফেব্রুয়ারি মাস। শুরুতেই আমি স্মরণ করছি ভাষাসৈনিকদের। আলহামদুলিল্লাহ। আমার ইচ্ছা ছিল প্রথম ভোটটা দেয়ার। সেটা দিতে পেরেছি। বাসা থেকে হেঁটে কেন্দ্রে এসেছি। পরিবেশ সুন্দর আছে। ইভিএমে ভোট দিয়েছি। পদ্ধতিটা ভালো লেগেছে। কোনো কালি লাগেনি।

ঢাকা উত্তরে আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী আরও বলেন, আমি বিজিএমইএ’র প্রেসিডেন্ট ছিলাম। সেখানে অনেকবার নির্বাচনে অংশ নিয়েছি। নির্বাচনে হারজিত আছে। জয়ের ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী। জয় আমাদের হবে ইনশাল্লাহ। নৌকা দিয়েছে উন্নয়ন, ভবিষ্যতেও দেবে।

আতিকুল বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মার্কা হলো নৌকা। যে নৌকা আমাদের দিয়েছে স্বাধীনতা। লাল-সবুজের পতাকা। এই নৌকা প্রতীক নিয়ে আমি ইলেকশন করছি। জনগণ ইনশাল্লাহ নৌকায় ভোট দেবে। বিজয়ী হলে চেষ্টা করব সুন্দর, আধুনিক ঢাকা উপহার দেয়ার জন্য।

এ সময় বিএনপি মনোনীত কাউন্সিলর প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান সেগুনের পোলিং এজেন্ট বের করে দেওয়ার অভিযোগ নিয়েও কথা বলেন আতিকুল ইসলাম।

ভোটের পরিবেশ সুষ্ঠু রাখার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আমি এসে কোনো সমস্যা দেখিনি। তবে, আমি আসার সঙ্গে সঙ্গেই তিনি আমাকে বলেছেন। আমি তাকে বুকে জড়িয়ে ধরেছি। আমাদের উচিত এভাবেই সবার প্রতি আচরণ করা। আমি তাকে বলেছি যে, তার অভিযোগ নিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলবো।

এদিকে সকাল আটটায় ঢাকার দুই সিটিতে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। চলবে বিকাল চারটা পর্যন্ত। এবারের ভোটে ঢাকা উত্তরে ৩০ লাখ ১০ হাজার ২৭৩ জন ভোটার ভোট দেবেন।

ঢাকা উত্তরে মেয়র পদে ছয়জন, সাধারণ কাউন্সিলরের ৫৪টি পদে ২৫১ জন এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর ১৮টি পদে ৭৭ জন লড়াই করছেন।  

Ads
Ads