জবিতে ছাত্রফ্রন্টের হল আন্দোলন দিবস পালন ও আলোকচিত্র প্রদর্শনী

  • ২৭-জানুয়ারী-২০২০ ১০:০২ অপরাহ্ন
Ads

:: জবি প্রতিনিধি ::

সমজাতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা আজ ২৭ জানুয়ারি ‘জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় হল আন্দোলন দিবস’ ও সংগঠনের ৩৬ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বেলা ১১ টায় ভাস্কর্য চত্বরে ছাত্র সমাবেশ ও বিগত আন্দোলনের সংগৃহীত আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করে সমজাতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা। জকসু নির্বাচন ও পূর্ণাঙ্গ অবকাঠামোর পরিকল্পনার দাবি জানায় সমজাতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট।

সমজাতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট, জবি শাখার সাধারণ সম্পাদক তানজিম সাকিবের সভাপতিত্বে ও সাংগঠনিক সম্পাদক নাজমুন নাহার আঁখির পরিচালনায় ছাত্র সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও প্রগতিশীল ছাত্র জোটের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক ছাত্রনেতা আল কাদেরি জয়, জবি শাখার সাবেক সভাপতি ছাত্রনেতা এম এম মুজাহিদ অনিক, জবি শাখার সহ-সভাপতি সুমাইয়া সোমা, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি রুহুল আমিনসহ অন্যান্যরা।  সমাবেশে সংহতি জানায় বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, জবি শখা।

সমাবেশে আল কাদেরি জয় বলেন, দেশের সর্বত্র লুটপাটের মহোৎসব চলছে অথচ প্রতিষ্ঠার ১৫ বছর পরেও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন কাজে টাকার অভাব পড়ে। এই লুটেরা ব্যবস্থার মধ্যে এই সঙ্কট আরো ঘনীভূত হবে। এই ব্যবস্থাকেই ভেঙে ফেলতে হবে’।

জবি শখার সাবেক সভাপতি এম এম মুজাহিদ অনিক বলেন, ২৭ জানুয়ারিকে ধারণ করেই ২০১৬ সালের ৩৩ দিনের লড়াই শুরু হয়েছিল। ভবিষ্যত সংগ্রামেও ২৭ জানুয়ারি এবং ২০১৬ সাল অনুপ্রেরণার নাম। সেই সংগ্রামই আগামীর সংগ্রামের ভিত্তি রচনা করবে’।  

সুমাইয়া সোমা বলেন, ‘এই প্রশাসন ৯ বছরের ছাত্রী হল হস্তান্তর করতে পারে নি। এই প্রশাসনের ব্যার্থতা সীমাহীন’।

সমাবেশর সভাপতি তানজিম সাকিব, তিন দফা দাবি জানান। অবিলম্বে ছাত্রী হল হস্তান্তরের তারিখ, জকসু নির্বাচনের তারিখ এবং জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়কে ঘিরে সুস্পষ্ট মহাপরিকল্পনার দাবি জানান।

তানজিম সাকিব হুঁশিয়ার করে বলেন যে, তিনদফা দাবিই এখন মূল দাবি। এর ঘোষণা না দিলে অতীতের মতো প্রশাসন ও রাষ্ট্রন্ত্রকে ছাত্রসমাজের আন্দোলনের মুখোমুখি দাড়াতে হবে আবারো। 

সমাবেশস্থলের পাশে অতীতের বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে সমজাতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের  শিক্ষার্থীদের ভূমিকা নিয়ে আলোকচিত্র সংগ্রহ করে প্রদর্শনী করা হয়। শিক্ষার্থীরা উৎসাহ নিয়ে সেসব আলোকচিত্র দেখে।

Ads
Ads