ঢাবির ৬৩ শিক্ষার্থীকে আজীবন বহিষ্কার

  • ১৪-জানুয়ারী-২০২০ ০২:০৯ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশ্ন ফাঁস ও জালিয়াতির দায়ে ৬৩ শিক্ষার্থীকে স্থায়ী বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা কমিটির এক বৈঠকে এ ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড এ কে এম গোলাম রব্বানী।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আগামী সিনেট অধিবেশনে এই ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

সভায় অভিযুক্ত আরও নয়জন শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিটি । আগামী সাত দিনের মধ্যে কেন তাদের স্থায়ী বহিষ্কার করা হবে না জানতে চেয়ে নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

এর আগে গত বছর বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস ও ভর্তি জালিয়াতিতে জড়িত থাকার অপরাধে ১২৫ জনকে আসামি করে চার্জশিট দেয়া হয়। অপরাধ তদন্ত বিভাগ-সিআইডি এ ঘটনায় তদন্ত করে।

আসামিদের মধ্যে ৮৭ জনই ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। এর মধ্যে জড়িত ১৫ জনকে গত ২৯ আগস্ট আজীবন বহিষ্কার করে কর্তৃপক্ষ। আর ৬৩ জনকে সাময়িক বহিষ্কার করে কারণ দর্শাতে নোটিশ দেয়া হয়।

জানা গেছে, এদের মধ্যে ৪৬ জন শিক্ষার্থী নোটিশের জবাব দেন। বাকিরা আত্মপক্ষ সমর্থন করেননি। আত্মপক্ষ সমর্থন না করা এবং জবাব সন্তোষজনক না হওয়ায় ৬৩ জনকে স্থায়ী বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

এ নিয়ে প্রশ্ন ফাঁস ও জালিয়াতির দায়ে সর্বমোট ৮৭ জন অভিযুক্তের মধ্যে আজীবন বহিষ্কৃত শিক্ষার্থীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৭৮ জন। আর বাকি নয়জনকে সাময়িক বহিষ্কার করে সাত দিনের মধ্যে নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

Ads
Ads