'ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণে জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে'

  • ৬-জানুয়ারী-২০২০ ০৭:০০ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীর সঙ্গে দুষ্কর্ম বা অন্যায় যে-ই করে থাকুক তাকে অবশ্যই শাস্তি পেতে হবে। অপরাধীকে গ্রেপ্তারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বেশ কয়েকটি টিম কাজ করছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

সোমবার (৫ জানুয়ারি) বিকালে রাজারবাগ পুলিশ লাইনসে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এই কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বান্ধবীর বাসায় যাওয়ার পথে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে যে বা যারা নির্যাতন করেছে পুলিশ এটা নিয়ে তদন্ত করছে। বেশ কয়েকটি টিম অপরাধীকে গ্রেপ্তারে কাজ করছে। আমরা সুনিশ্চিত, তিনি (ছাত্রী) যে অভিযোগগুলো করেছেন তা তদন্তের মাধ্যমে আমরা সহজে জানতে পারব।’

রবিবার বিকাল সাড়ে পাঁচটার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে করে বান্ধবীর বাসায় যাচ্ছিলেন ঘটনার শিকার ওই ছাত্রী। কুর্মিটোলা বাস স্টেশনে নামার পর তাকে অজ্ঞাত এক ব্যক্তি অনুসরণ করতে থাকে। একপর্যায়ে মাঝপথে তাকে ধরে নির্জন স্থানে নিয়ে ধর্ষণ করে। রাত ১০টার দিকে জ্ঞান ফিরলে রিকশায় করে বান্ধবীর বাসায় যান ওই ছাত্রী। সেখান থেকে বান্ধবীসহ অন্য সহপাঠীরা রাত পৌনে একটার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করেন। ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পর থেকে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন ঢাবি শিক্ষার্থীরা। সোমবার সারাদিন বিক্ষোভ, অবরোধ করে সহপাঠীর সঙ্গে এমন আচরণের বিচার দাবি করেন তারা।

কাউকে ছাড় দেওয়া হচ্ছে না জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এই দুষ্কর্মে যারা জড়িত তারা অবশ্যই সাজা পাবে। আপনার লক্ষ্য করেছেন আমরা কাউকে ছাড় দিচ্ছি না। যে-ই এই ধরনের দুষ্পর্ম, অপরাধ বা অন্যায় কাজ করবে তার শাস্তি পেতেই হবে।’

পুলিশ আগের চেয়ে দক্ষ জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের পুলিশ অত্যন্ত দক্ষ এবং সব ধরনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সক্ষম। এই ঘটনার সঙ্গে কারা জড়িত তাদের দ্রুতই আইনের আওতায় আনা সম্ভব হবে।’

প্রধানমন্ত্রী পুলিশের দিকে সব সময় খেয়াল রাখছেন জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী পুলিশের সক্ষমতা, টেনিং, দক্ষতা বৃদ্ধিসহ সবকিছু খেয়াল রাখেন বলেই পুলিশের সবকিছু করে দিচ্ছেন। তাই মাঠ লেভেলের পুলিশের যেসব দাবি ছিল তিনি (প্রধানমন্ত্রী) সব মেনে নিয়েছেন।’

Ads
Ads