পাকিস্তান সফর নিয়ে যা বললেন পাপন

  • ২৬-Dec-২০১৯ ০৫:৩০ অপরাহ্ন
Ads

:: স্পোর্টস ডেস্ক ::

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেছেন, দলের কিছু বিদেশি স্টাফ এবং ক্রিকেটার পাকিস্তান সফরে যেতে অনীহা প্রকাশ করেছেন। এ কারণে নির্দিষ্ট সময়ে সফর না হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। সেই সাথে তিনি জানিয়েছেন, সফরের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে এখনো তারা অনুমোদন পাননি।

বৃহস্পতিবার (২৬ ডিসেম্বর) মিরপুর স্টেডিয়ামে পাপন বলেন, কোচ, খেলোয়াড় সবাই যদি রাজি হয় এবং আমরা ভালো একটা টিম গঠন করতে পারি তাহলে দল পাঠাব। সেই গভর্নমেন্ট ক্লিয়ারেন্সও দরকার। আশা করি এটি পেয়ে যাব। যদি আমরা সেখানে শুধু টি-টোয়েন্টি খেলি এবং টেস্ট বাইরে কোথাও খেলি তাহলে সফরের তারিখ পরিবর্তন হতে পারে।

তিনি বলেন, আশা করি, পাকিস্তান আমাদের বিষয়টি বুঝবে এবং নিরপক্ষে ভেন্যুতে টেস্ট আয়োজন করবে। তারা ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে এমনটি করেছে। এমন না যে, আমাদের সাথে প্রথম হচ্ছে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে এটাই করেছে তারা। সুতরাং, আমাদের সাথে করতে অসুবিধা কোথায়?

বিসিবি সভাপতি বলেন, আমরা চাই ওদের দেশে ক্রিকেট ফেরৎ আসুক। কিন্তু এতদিন পর আমরা যাচ্ছি, সেটাও আমাদের ভাবতে হবে। আমরা ক্রিকেটারদের কাছ থেকে মতামত চেয়েছি। তাদের বেশিরভাগই বলেছে যে, শর্ট টার্মের জন্য যাওয়া যেতে পারে। তাদের ফ্যামিলি থেকে নিষেধ করছে। আমাদের স্টার প্লেয়ারদের মধ্যে এমনও বলেছে যে, টি-টোয়েন্টিও খেলতে যেতে চায় না। কোচিং স্টাফের অনেকেই জানিয়ে দিয়েছেন, তারা যাবে না। ‍সুতরাং, টি-টোয়েন্টিতেও আমরা অরিজিনাল টিম পাঠাতে পারব কিনা সেটাও নিশ্চিত না।

তিনি বলেন, আমরা এটা বলছি না যে, আমরা যাব না। যেহেতু প্রথমবারের মতো সেখানে যাচ্ছি সে কারণে খেলোয়াড়দের মধ্যে একটা শঙ্কা তো থাকতেই পারে। কাউকে জোর করার তো প্রশ্নই ওঠে না।

গত কিছুদিন ধরেই বাংলাদেশে ক্রিকেটাঙ্গনে আলোচনায় টাইগারদের পাকিস্তান সফর। এই সফরে টি-টোয়েন্টি এবং টেস্ট সিরিজ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। কিন্তু নিরাপত্তাজনিত কারণে বিসিবি পাকিস্তানে গিয়ে শুধু টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে চায়।

আর টেস্ট সিরিজ পাকিস্তানের বাইরে কোথাও আয়োজনের জন্য পিসিবিকে অনুরোধ জানিয়েছিল বিসিবি। কিন্তু পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) তাতে রাজি হয়নি। সব সিরিজই তারা পাকিস্তানের মাটিতে আয়োজন করতে চায়। এমন অবস্থায় খুব জটিল একটি পরিস্থিতিতে পড়েছে বিসিবি।

২০০৯ সালে পাকিস্তানে শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটারদের টিম বাসে সন্ত্রাসী হামলা হওয়ার পর সেখানে বেশ কয়েক বছর ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বন্ধ ছিল। তারপর বিভিন্নভাবে পাকিস্তান তাদের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরাতে মরিয়া। এজন্য তারা জিম্বাবুয়ে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও শ্রীলঙ্কাকে নিয়ে পাকিস্তানের মাটিতে সিরিজ আয়োজন করেছে। তারপরও পাকিস্তানের নিরাপত্তা পরিস্থিতি নিয়ে সব দেশ সন্তুষ্ট নয়।  

Ads
Ads