ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলেই ম্যাচ বাই ম্যাচ জিততে চায় সিলেট থান্ডার

  • ১০-Dec-২০১৯ ০৮:২৭ অপরাহ্ন
Ads

:: ক্রীড়া প্রতিবেদক ::

ক্রিকেট চরম অনিশ্চয়তার খেলা হলেও ভাগ্য সাহসীদের পক্ষেই যায়। এবারের ঐতিহাসিক বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল-২০১৯) সেশনে ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলেই ম্যাচ বাই ম্যাচ জিততে চায় সিলেট থান্ডার।  ১১ ডিসেম্বর দুপুরে মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ও সিলেট থান্ডার মুখোমুখি হবে আসরের উদ্বোধনী ম্যাচে। সন্ধ্যায় লড়বে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স-রংপুর রেঞ্জার্স। ওয়ানডে ক্রিকেটের মারকুটে সাবেক দক্ষিণ আফ্রিকান ওপেনার হার্সেল গিবসকে প্রধান কোচ হিসাবে নিয়োগ দিয়েছে সিলেট থান্ডারের মালিকপক্ষ। ক্যারিয়ারে ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলেছেন হার্সেল গিবস। বিপিএল দিয়ে শুরু করছেন প্রধান কোচের দায়িত্ব পালন। নতুন দায়িত্বের শুরুতে সিলেট ঠান্ডার্সকে ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলার মন্ত্র দিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক এই ওপেনার।

গিবস রোববার সিলেটের দায়িত্ব বুঝে নিতে বাংলাদেশে এসেছেন। সোমবার তার অধীনে অনুশীলন করে দল। অনুশীলন শেষে গিবস জানান, প্রধান কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করার জন্য আলাদা কোন অনুভূতি হচ্ছে না তার। ক্রিকেট জীবনে তিনি অনেক তেজ নিয়ে খেলেছেন। কোচিং ক্যারিয়ারেও তার অনুভূতি একই।

তিনি বলেন, 'ক্যারিয়ারে ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলেছি। কোচ হিসেবেও দলের ক্রিকেটারদের মধ্যে ভয়ডরহীন ক্রিকেটের বার্তা ছড়িয়ে দিতে চাই। আমাদের দলের অনেক ক্রিকেটার এখনও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেনি। এই বিপিএলটা তাদের জন্য বড় মঞ্চ। আমি চাই তারা তাদের সামর্থ্যে বিশ্বাস রাখুক এবং নিজেদের প্রমাণ করুক।' নিজের ক্রিকেট ক্যারিয়ার নিয়ে হার্সেল গিবস বলেন, 'আমি মনে করি আরও দশ বছর ক্রিকেট খেলতে পারতাম। অবশ্যই আমি মনে করি, খেলার জন্য এখনও যথেষ্ঠ তরুণ আমি।'

বিপিএল-২০১৯ আসরের সিলেট থান্ডারের চেয়ারপারসনের দায়িত্ব নিয়েছেন জিভনি ফুটওয়্যার এন্ড ক্রাফটস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মহিউদ্দিন মিয়া মঈন। এছাড়া সিলেট থান্ডারের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও ভাইস চেয়ারম্যান হিসাবে নির্বাচিত হয়েছেন ড. কাজী এরতেজা হাসান। ক্রিকেট অন্তপ্রাণ দুইজন মানুষই সিলেট থান্ডারের দল নিয়ে আশাবাদী। বড় কোনো তারকা ক্রিকেটারকে দলে না ভিড়ালেও যাদের নেয়া হয়েছে তারা সবাই নিজেদের সামর্থের সবোচ্চটা দিতে পারলে জয় আসবেই। 
সিলেট থান্ডারের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ড. কাজী এরতেজা হাসান বলেন, বড় তারাকা থাকলেই যে ভালো দল হয় তা ঠিক নয়। সিলেট থান্ডারের যেসব ক্রিকেটার রয়েছেন তারাও সবাই পরীক্ষিত পারফারমার। নিজেদের সেরাটা দিতে পারলে যেকোন দলকেই হারানো সম্ভব বলে মনে করেন ড. কাজী এরতেজা হাসান।

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ও সিলেট থান্ডার’র ম্যাচ দিয়ে শুরু হতে হচ্ছে বিপিএলের বিশেষ আসর ‘বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ’। বুধবার বাংলাদেশ সময় দুপুর দেড়টায় (১টা ৩০মি.) মিরপুর শেরে বাংলা ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে। টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী দিন চারটি দল মাঠে নামছে। দিনের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হবে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ও সিলেট থান্ডার। দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে লড়বে কুমিল্লা ওয়ারিয়ার্স ও ইনসেপ্টা রংপুর রেঞ্জার্স। গেল ১২ নভেম্বর ড্রাফটের মাধ্যমে বিশেষ ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’-এর নিলাম অনুষ্ঠিত হয়। নিলামে স্থানীয় ও বিদেশীদের নিয়ে নিজেদের দল সাজিয়ে নিয়েছে সাতটি দল।

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের নেতৃত্বে থাকছেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। অন্য দলের চেয়ে হার্ড হিটারের মিলন মেলা চট্টগ্রামে। ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইল, শ্রীলঙ্কার আভিস্কা ফার্নান্দো, জিম্বাবুয়ের রায়ান বুর্ল, রায়াদ এমরিট ও ইমাদ ওয়াসিমদের নিয়ে গড়া দল। বোরিং আক্রমণে আছেন রুবেল হোসেন, মুক্তার আলি, কেসরিক উইলিয়ামসনরা। ব্যাটে-বলে এবং অলরাউন্ডারে গড়া ভারসামপূর্ণ একটি দল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স।

অন্য দিকে সিলেট থান্ডার’র এর নেতৃত্বে থাকছেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। জনসন চার্লস, শফিকউল্লাহ শাফাক, শেরফেইন রাদারফোর্ড ও রনি তালুকদারদের নিয়ে ব্যাটিং লাইন। বোরিংয়ে থাকছেন সোহাগ গাজী, নাজমুল ইসলাম অপু ও নাভি-উল হকরা।

সিলেট থান্ডার দল : মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মোহাম্মদ মিঠুন, নাজমুল ইসলাম অপু, সোহাগ গাজী, রনি তালুকদার, নাঈম হাসান, দেলোয়ার হোসেন, মনির হোসেন, রুবেল মিয়া, শেরফেইন রাদারফোর্ড, শফিকউল্লাহ শাফাক, নাভিন-উল-হক, জনসন চার্লস, জীবন মেন্ডিস।

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স দল : মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, ইমরুল কায়েস, নাসির হোসেন, রুবেল হোসেন, নুরুল হাসান সোহান, এনামুল হক জুনিয়র, মুক্তার আলি, পিনাক ঘোষ, নাসুম আহমেদ, জুনায়েদ সিদ্দিকি, ক্রিস গেইল, কেসরিক উইলিয়ামস, আভিস্কা ফার্নান্দো, রায়াদ এমরিট, রায়ান বার্ল, ইমাদ ওয়াসিম।

Ads
Ads