ডিসেম্বরের মধ্যেই ঢাবি ছাত্রলীগের হল কমিটি ঘোষণা!

  • ৪-Dec-২০১৯ ০২:০৫ পূর্বাহ্ণ
Ads

উৎপল দাস

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নিজ হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এবং নিউক্লিয়াস খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) শাখা ছাত্রলীগের কমিটির মেয়াদ শেষ হয়েছে কয়েক মাস আগেই। নির্দিষ্ট মেয়াদ শেষ হওয়ার মাত্র ২ মাস আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের পূর্ণাঙ্গ কমিটি দিতে পারলেও  হল কমিটি দিতে পারেনি ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের শীর্ষ দুই নেতা। এখন পর্যন্ত হল কমিটি গঠনেও দৃশ্যমান তেমন কোনো অগ্রগতি দেখা যায়নি। বিষয়টি নিয়ে একই সঙ্গে ক্ষোভ ও হতাশা দেখা গেছে হল কমিটিতে পদ-প্রত্যাশী নেতা-কর্মীদের মধ্যে। তবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ডাকসু সহ-সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন ভোরের পাতাকে মঙ্গলবার দিবাগত রাতে নিশ্চিত করেই বলেছেন, চলতি ডিসেম্বর মাসের মধ্যেই ঢাবি ছাত্রলীগের সকল হল কমিটি ঘোষণা করা হবে। 

সংগঠনটি সূত্রে জানা যায়, গেল বছরের ২৯ এপ্রিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মেলন হয়। সম্মেলনের আড়াই মাস পর ৩১ জুলাই কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণার পাশাপাশি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের নামও ঘোষণা করা হয়। এতে সনজিত চন্দ্র দাস সভাপতি ও সাদ্দাম হোসেন সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। মেয়াদ পূর্তির আগে গত ৩০ মে ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়।

তবে, ঢাবি ছাত্রলীগের কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৮টি হলের কমিটি দিতে পারেননি বর্তমান সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক।

এদিকে কমিটি না হওয়ায় হল ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এখনও দায়িত্ব পালন করছেন। তবে তাদের অনেকেই কেন্দ্রীয় কমিটির বিভিন্ন পদে রয়েছেন। এ পরিস্থিতিতে হল পরিচালনা করতে গিয়ে দো-টানায় পড়তে হচ্ছে তাদেরকেও। এমনকি অনেক হলের শীর্ষ পদে থাকা নেতার আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়েও করেছন। মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হল ও রোকেয়া হলের সভাপতি দুজনই সম্প্রতি বিয়ে করেছেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। 
 
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ছাত্রলীগের পদ প্রত্যাশী এক নেতা জানিয়েছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের কমিটির মেয়াদ শেষ হলেও এখন পর্যন্ত হল কমিটি হয়নি। যার কারণে আমাদের মধ্যে অনেক হতাশা কাজ করছে। কবে নাগাদ কমিটি হবে তাও জানিনা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন বলেন, বঙ্গবন্ধু তনয়া দেশরত্ন শেখ হাসিনার মাধ্যমে একটি বিশেষ বাস্তবতায় এবার ছাত্রলীগের কমিটি হয়েছে। ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র ও প্রথাগত উভয় বিষয়ে তিনি জড়িত রয়েছেন। সেই প্রথাগত বিষয় থেকেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কমিটি গঠিত হয়। সে ক্ষেত্রে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কমিটিকে মেয়াদোত্তীর্ণ বলা ঠিক নয়।

হল কমিটির বিষয়ে তিনি বলেন, হল কমিটি আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে রাজনীতির যে ধারা ওই ধারার চেয়ে অনেক দ্রুত আমরা হল কমিটি দিব। ডিসেম্বর মাসের মধ্যেই হল কমিটি করে দেওয়ার আমাদের চেষ্টা থাকবে। সম্মেলনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা তাদের হল কমিটির প্রতিনিধিদের পাবে। তিনি আরো বলেন, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টচার্যের সাথেও হল কমিটি নিয়ে আলোচনা চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। তাই এ মাসের মধ্যেই ঢাবির ১৮ টি হলে নতুন নেতৃত্ব আসছে এটা নিঃসন্দেহেই বলা যায়। তবে কমিটিতে বিতর্কিত কেউ যেন ঠাঁই না পায় সেদিকে বিশেষভাবে খেয়াল রাখা হচ্ছে বলেও জানান ঢাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন। 

তবে এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাসের সাথে যোগাযোগ করার জন্য একাধিকবার ফোন করা হলেও তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

Ads
Ads