জিজ্ঞাসাবাদে বিস্ফোরক তথ্য দিলেন লোকমান!

  • ১২-Nov-২০১৯ ০৭:০৮ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::  

ক্যাসিনো পরিচালনার অভিযোগে গ্রেপ্তার মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের পরিচালক মো. লোকমান হোসেন ভুঁইয়া অস্ট্রেলিয়ায় ৪১ কোটি টাকা পাচার করেছেন। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) জিজ্ঞাসাবাদে এমন তথ্য দিয়েছেন লোকমান। দুদকের ঊর্ধ্বতন সূত্র গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

ওই সূত্র জানিয়েছে, পাচার করা টাকাগুলো রাখা হয়েছে দেশটির এএনজেড ও কমনওয়েলথ ব্যাংকে।

এর আগে সোমবার বিকাল ৫টার দিকে রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য লোকমানকে কাশিমপুর কারাগার থেকে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদক প্রধান কার্যালয়ে আনা হয়। পরে রাতে তাকে রমনা থানায় রাখা হয়। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে দ্বিতীয়বারের মতো দুদক প্রধান কার্যালয়ে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় লোকমানকে।

দুদকের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত ৩ নভেম্বর লোকমানের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন ঢাকার জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ আদালত।

গত ২৭ অক্টোবর অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে লোকমানের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক। মামলায় ৪ কোটি ৩৪ লাখ ১৯ হাজার টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ আনা হয়েছে। মামলার বাদী হলেন দুদকের সহকারী পরিচালক সাইফুল ইসলাম। গত ২৫ সেপ্টেম্বর রাতে রাজধানীর মণিপুরি পাড়ার বাসা থেকে লোকমানকে গ্রেপ্তার করা হয়।

দুদক জানায়, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ৯ নম্বর ওয়ার্ডের বরখাস্ত কাউন্সিলর এ কে এম মমিনুল হক সাঈদের ঘনিষ্ঠ সহযোগী হিসেবে পরিচিত লোকমান। যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণ কমিটির যুগ্ম সম্পাদক সাঈদ বর্তমানে সিঙ্গাপুরে অবস্থান করছেন। জিজ্ঞাসাবাদে লোকমান ক্যাসিনো ব্যবসা, তার নিয়ন্ত্রণ এবং সাঈদ সম্পর্কেও বিস্তারিত তথ্য দিয়েছেন বলেও জানায় দুদক সূত্র। ক্যাসিনো থেকে দিনে ৭০ হাজার টাকা হিসেবে মাসে ২১ লাখ টাকা পাওয়ার তথ্য দিয়েছেন লোকমান।

Ads
Ads