বিশ্বনেতাদের প্রত্যাশা যেন আবার ক্ষমতায় আসি: প্রধানমন্ত্রী

  • ৩-Oct-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জাতিসংঘ অধিবেশনে গিয়ে আন্তর্জাতিক যত নেতৃবৃন্দের সঙ্গে কথা হয়েছে বৈঠক হয়েছে তারা সবাই প্রত্যাশা করেছেন আমি যেন আবার ক্ষমতায় আসি। বিশ্ব নেতৃবৃন্দ চায় আমি যেন বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখি।

এসময় উপস্থিত সাংবাদিকরা করতালি দিলে প্রধানমন্ত্রী তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, হাততালি দেয়ার কিছু নেই। জনগণ ভোট দিলে ক্ষমতায় আসবো, না দিলে আসবো না।

বুধবার (৩ অক্টোবর) বিকেলে গণভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী এ কথা জানান। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রীর সাম্প্রতিক যুক্তরাষ্ট্র সফর নিয়ে এ সংবাদ সম্মেলন ডাকা হয়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, অধিবেশনে এবং অধিবেশনের ফাঁকে অনেক নেতার সঙ্গেই কথা হয়েছে। আসন্ন নির্বাচন নিয়ে তাদের সঙ্গে কোনো কথা হয়নি। তবে তারা আকাঙ্ক্ষা করেছেন যেন আবারও নির্বাচিত হই, পরেরবারের অধিবেশনেও দেখা হয়। নির্বাচন নিয়ে কী হবে, সেটা নিয়ে কথা হয়নি।

সম্প্রতি এশিয়া কাপে দারুণ পারফরম্যান্স করে আসা লিটন দাসকে ফেসবুকে আক্রমণের বিষয়ে এক জ্যেষ্ঠ সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটার লিটন দাসের ফেসবুক পোস্টে একটি ছবির কটূক্তি করার মতো অনলাইনে নোংরামি বন্ধ করতেই সাইবার সিকিউরিটি (ডিজিটাল নিরাপত্তা) আইন করা হয়েছে। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ছেলেটা (লিটন দাস) যেভাবে খেলেছে খুবই চমৎকার। তার আউটটি ছিল আমাদের জন্য দুর্ভাগ্যজনক। তাকেও একটি পোস্টের জন্য গালিগালাজ করা হয়েছে। এগুলো মোকাবেলায় সাইবার সিকিউরিটি আইন করা হয়েছে। সমগ্র বিশ্বে এ ধরনের সাইবার হামলা সামাজিক ও পারিবারিক সমস্যা সৃষ্টি করছে।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িক রাজনীতিতে বিশ্বাস করে। যারা এ ধরনের মন্তব্য করেছে তারা বিকৃতমনা। তাদের রুখতে সমাজের সবাইকে বিশেষ করে সাংবাদিকদেরকেও ভূমিকা রাখতে হবে।

সম্প্রতি লিটন দাস তার ভেরিফাইড পেইজে দুর্গাপূজার আগাম শুভেচ্ছা দিয়ে হিন্দুদের দেবির ছবি প্রকাশ করেন। ছবিটি আপলোড করার পর থেকে তাকে উদ্দেশ্য করে সাম্প্রদায়িক ঘৃণা ছড়ানো অসংখ্য মেসেজ এবং কমেন্ট করা হয়। এর কিছুক্ষণ পর লিটন দাস তার পোস্ট থেকে ছবিটি মুছে দেন।

 

/কে 

Ads
Ads