সড়ক দুর্ঘটনায় একদিনে ১০ জনের প্রাণহানি

  • ১৯-Oct-২০১৯ ০৭:১০ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

রাজধানীসহ পাঁচ জেলায় আলাদা দুর্ঘটনায় শনিবার একদিনে ঝড়ে গেল ১০টি তাজা প্রাণ। সিলেট, হবিগঞ্জ, বরিশাল ও ঝিনাইদহ জেলায় এসব দুর্ঘটনা ঘটে। এসব দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন ২৩ জন।

জেলা প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্যে জানা যায়, শনিবার সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলায়, ঝিনাইদহ শহরের লাউদিয়া এলাকায়, বরিশাল নগরীর সাগরদী আলিয়া মাদ্রাসাসংলগ্ন পটুয়াখালী-বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কে ও হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের মৌচাকে আলাদা দুর্ঘটনায় এসব হতাহতের ঘটনা ঘটে। এছাড়া রাজধানীর মগবাজারে দুর্ঘটনায় প্রাণ গেছে একজনের।

শনিবার বেলা একটার দিকে বরিশাল নগরীর সাগরদী আলিয়া মাদ্রাসা সংলগ্ন পটুয়াখালী-বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কে ট্রাকের সঙ্গে থ্রি হুইলারের (মাহিন্দ্রা) মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে মা-ছেলে নিহত হয়েছেন। এছাড়া এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও চারজন। নিহতরা হলেন- মা দেলোয়ারা বেগম ও ছেলে শিপন।

পুলিশ জানায়, নিহতদের মরদেহ শেবাচিম হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আর আহতদের একই হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

অন্যদিকে ভোরে হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের মৌচাক এলাকায় দু’টি ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুজন নিহত এবং আহত হয়েছেন একজন। নিহতরা হলেন- ট্রাকচালক চাঁপাইনবাবগঞ্জের নকরাছপাড়া এলাকার বাবু মিয়া ও হেলপার একই এলাকার রহমত আলী।

শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জসিম উদ্দিন জানান, দুর্ঘটনার পর মহাসড়কে আধাঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ ছিল। মরদেহ দুটি ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

অন্যদিকে সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার চারখাইয়ের জিরোপয়েন্ট এলাকায় দুটি সিএনজিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই শিশু নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও নয়জন। নিহত দুই শিশু হলো- ইন্নি ও তাহমিনা।

বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অবনী শংকর কর জানান, একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশার সঙ্গে বিপরীতমুখী অপর একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশার সংঘর্ষ হয়। এতে দুই অটোরিকশার চালক ও যাত্রীরা গুরুতর আহত হন। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে দুই শিশুর মৃত্যু হয়। নিহত দুই শিশুর মরদেহ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

ঝিনাইদহ শহরের লাউদিয়া এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় তিন নারী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও নয় জন। তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

ঝিনাইদহ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঈন উদ্দিন জানান, সকালে একটি মাহেন্দ্র গাড়ি যাত্রী নিয়ে শহর থেকে কালীগঞ্জের দিকে যাচ্ছিল। পথে লাউদিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে একটি ট্রাক পেছন থেকে মাহেন্দ্রটিকে ধাক্কা দেয়। এতে গাড়ি থেকে ছিটকে পড়ে ঘটনাস্থলেই দুই নারী নিহত হন এবং আহত হন আরও ১০ জন। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও এক নারীর মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় সাগর হোসেন নামে ওই ট্রাকের হেলপারকে আটক করা হয়েছে।

এদিকে রাজধানীর বড় মগবাজারে যাত্রীবাহী বাসচাপায় ভোলা নাথ নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে। সে মগবাজারের এলাকার একটি ওয়ার্কশপে কাজ করতেন।

রমনা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) বিপ্লব কুমার বিশ্বাস জানান, সকালে বড় মগবাজার এলাকা হয়ে ভোলা বাইসাইকেল চালিয়ে যাওয়ার সময় গাজীপুর পরিবহন নামে একটি যাত্রীবাহী বাসচাপায় গুরুতর আহত হন। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় ভোলার।

এ ঘটনায় বাসটি জব্দ করাসহ চালককে আটক করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

Ads
Ads