গ্যাস-ফেনী নদীর পানি নিয়ে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী

  • ৯-Oct-২০১৯ ০৫:১১ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

ভারতে যে এলপিজি গ্যাস রপ্তানি করা হবে তা বাংলাদেশে উৎপাদিত হয় না। গ্যাস আমদানি করে বোতলজাত করে আমাদের নিজেদের দেশে সরবরাহ করবো এবং ভারতের ত্রিপুরায় রপ্তানি করা হবে বলে জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

এসময় ফেনী নদী নিয়ে কথা বলার শুরুতেই তিনি প্রশ্ন করেন, বলেনতো ফেনী নদীর উৎপত্তিস্থল কোথায়, কেউ না বললে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এটা খাগড়াছড়িতে উৎপত্তি। যা ফেনীর সোনাগাজী হয়ে সাগড়ে চলে গেছে। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এটা সীমান্তবর্তী নদী। এতে দুই দেশেরই অধিকার থাকে। আমাদের প্রায় ৭টি নদী অছে সীমান্তবর্তী।

বুধবার (৯ অক্টোবর) প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে সম্প্রতি ভারত ও জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দেয়া নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন,  ভারতের সাবরোমে বিশুদ্ধ পানির অনেক অভাব। ফেনী ধেকে সামান্য পানি আমরা তাদেরকে দেবো। যে পানিটুকু দিচ্ছি সেটার পরিমান অত্যন্ত নগন্য। এটা নিয়ে এতো চিৎকার কিসের জন্য আমি জানি না। 

তিনি আরও বলেন, কেউ যদি পানি চায় আর আমরা যদি না দেই এটা কেমন কথা। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জিয়াউর রহমান ক্ষমতায় এসে যখন ভারত গিয়েছিলেন বা খালেদা জিয়া যখন ভারত যায় তখন গঙ্গা নদীর পানির কথা ভুলেই গিয়েছিলো। এখন তাদের প্রশ্ন তোলা সাজে না।   

ভারতে গ্যাস রপ্তানির বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভারতে এলপিজি গ্যাস রপ্তানি করা হবে। এলপিজি বাংলাদেশে উৎপাদিত হয় না। গ্যাস আমদানি করে বোতলজাত করে আমাদের নিজেদের দেশে সরবরাহ করবো এবং ভারতের ত্রিপুরায় রপ্তানি করা হবে। 

তিনি বলেন, বাংলাদেশের প্রাকৃতিক গ্যাস বিক্রি করা হবে না। এসময় তিনি প্রাকৃতিক গ্যাস বিক্রির মুচলেকা দিয়ে খালেদা জিয়া ক্ষমতায় এসেছিলেন বলে েস্মরণ করিয়ে দেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের কোনো স্বার্থ শেখ হাসিনা বিক্রি করবে এটা কখনো হবে না। এসময় যারা ভারতকে গ্যাস দেওয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তাদের সমালোচনা করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমরা এলপিজি গ্যাস আমদানি করে নিজেরা ব্যবহারের পর কিছুটা ত্রিপুরাকে দেওয়া হবে। আর ত্রিপুরা যদি কিছু চায় তবে তা দিতে হবে উল্লেখ করে মুক্তিযুদ্ধে রাজ্যটির অবদান স্মরণ করিয়ে দেন তিনি। 

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইর্য়কে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশনে অংশগ্রহণ এবং ভারত সফর নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসেন প্রধানমন্ত্রী। 

 

/কে 

 

Ads
Ads