কয়েল ব্যবসার আড়ালে মাদক ব্যবসা, মিলল ১ কোটি ২৫ লাখ টাকা-ইয়াবা

  • ২-Oct-২০১৯ ১১:৪৩ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে এক কোটি ২৫ লাখ টাকা ও দুই হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ সময় আটক করা হয়েছে তিনজনকে।

বুধবার (২ অক্টোবর) ভোরে উপজেলার তারাব পৌরসভার রসুলপুর এলাকায় অবস্থিত ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে এসব টাকা ও ইয়াবাসহ তাদেরকে আটক করা হয়।

আটকরা হলেন রসুলপুর এলাকার ইউনুস মৃধার ছেলে জামাল হোসেন, তার ভাই মোস্তফা কামাল এবং প্রতিবেশী মানিক মিয়া।

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশিদ বলেন, 'আটক ব্যক্তি টাকার বৈধ উৎস এবং এত টাকা কোথা থেকে এনেছে সে তথ্য দিতে পারেননি। রাতে একটি বড় ইয়াবার চালান আসছে- এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ইয়াবা ও নগদ এক কোটি ২৫ লাখ টাকাসহ তাদেরকে আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা হবে।'

হারুন অর রশিদ আরো বলেন, 'জামাল হোসেন বলেছেন তার কয়েল তৈরির কারখানা আছে। সেটি মাস্টার কয়েল নামে পরিচিত। সেটিরও কোনো বৈধ কাগজপত্র নেই। আর এ কয়েল ফ্যক্টরির মাধ্যমে তিনি পরিবেশ দূষণ করছেন। তাকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে আর তার বিরুদ্ধে আমরা মানি লন্ডারিংয়ের মামলা করতে পারব,  মাদক মামলাও হবে। এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে। ইয়াবা সম্রাট থেকে শুরু করে কোনো অপরাধীকে ছাড় দেওয়া হবে না।'

রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হাসান বলেন, 'পুলিশের কাছে সংবাদ ছিল রসুলপুর এলাকার একটি বাড়িতে বিপুল পরিমাণ টাকা ও ইয়াবা রয়েছে। ওই সংবাদের ভিত্তিতে জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশিদের নেতৃত্বে একটি দল গতরাত ৩টার দিকে ওই বাড়িতে অভিযান শুরু করে। অভিযানকালে দুই হাজার পিস ইয়াবা ও ট্যাঙ্কের ভেতর রাখা এক কোটি ২৫ লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে বাড়ির মালিক জামাল হোসেন, তার ভাই মোস্তফা কামাল এবং প্রতিবেশী মানিক মিয়াকে আটক করা হয়।'

ওসি আরো বলেন, 'জামাল হোসেন ও মোস্তফা কামালের বাড়ি বরিশাল জেলার উজিরপুর থানার ধাসুরা এলাকায়। আট বছর আগে তারা রসুলপুর এলাকায় জমি কিনে বাড়ি নির্মাণ করেন। তারা অবৈধ কয়েল কারখানা ও গরুর খামারের আড়ালে পাইকারি ইয়াবা ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিলেন। শুধু তাই নয়, চারতলা বিশিষ্ট বাড়িসহ তিনটি বাড়ি রয়েছে তাদের।' এ ব্যপারে মামলা প্রক্রিয়াধীন বলে জানান ওসি। 

Ads
Ads