মশার ওষুধ আনতে বাধা উদ্ভিদ সংরক্ষণ বিভাগ: মেয়র আতিকুল

  • ২৮-Sep-২০১৯ ০৫:৩৯ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

ডেঙ্গু মোকাবিলায় এডিশ মশা নিধনে বিদেশ থেকে ওষুধ আমদানি করতে সরকারের কৃষি বিভাগের উদ্ভিদ সংরক্ষণ শাখা বাঁধা তৈরি করছে বলে অভিযোগ করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম। তিনি দাবি করেছেন উদ্ভিদ সংরক্ষণ বিভাগের বাঁধায় ওষুধ আমদানিতে জটিলতা তৈরি হওয়ায় এবছর ডেঙ্গু প্রকট আকার ধারণ করে।

শনিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ মিলনায়তনে দৈনিক কালের কণ্ঠ আয়োজিত ‘মশা নিয়ন্ত্রণ ও ডেঙ্গু প্রতিরোধে করণীয়’ শীর্ষক এক গোলটেবিল বৈঠকে মেয়র এসব অভিযোগ তোলেন।

মেয়র আতিক বলেন, বিশ্বের সকল দেশ মশার ওষুধ কিনে ব্যবহার করছে। কিন্তু কিছু স্বার্থান্বেষী মহলের কারণে আমাদের পক্ষে এটা সম্ভব হচ্ছে না। ওই মহল পুরো বাংলাদেশকে জিম্মি করে রেখেছে। উদ্ভিদ সংরক্ষণ উইং সরকারের একটি বিজ্ঞপ্তির ভুল ব্যাখ্যা দিয়ে ওষুধ আমদানি আটকে রেখেছিল।

চলতি বছরে রাজধানীতে ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাবের পর ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের মশার ওষুধের মধ্যে অকার্যকারিতা ধরা পড়ে। পরে তড়িঘড়ি করে নতুন ওষুধ আনা হলেও ততদিনে সারা দেশে ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা ৫০ হাজার ছাড়িয়ে যায়, মৃতের সংখ্যাও বাড়তে থাকে।

আমাদের দেশে বিদেশ থেকে যে কোনো কীটনাশক আমদানী করার ক্ষেত্রে কৃষি বিভাগের ছাড়পত্র নিতে হয়। কেননা ওই কীটনাশক উদ্ভিদের উপর কোনো বিরূপ প্রভাব ফেলবে কি না, পরীক্ষা করে তারা আমদানীর অনুমতি দেয়।

ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম অভিযোগ করেন, উদ্ভিদ সংরক্ষণ শাখার ‘প্রতিবন্ধকতা’ তৈরির কারণেই বিদেশ থেকে মশার ওষুধ আমদানিতে সমস্যা দেখা দেয়। ফলে এবছর ডেঙ্গু প্রকট আকার ধারণ করে।

বৈঠকে অধ্যাপক ডা. এ বি এম আবদুল্লাহ একে অপরকে দোষারোপ না করে সম্মিলিতভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, এটা নিয়ে ব্লেইম গেইম খেলে লাভ নেই। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে সারা পৃথিবীতেই এ ধরনের রোগ ছড়িয়ে পড়ছে। প্রকৃতির ওপর কারও হাত নেই।

Ads
Ads