‘দেশে নির্বাচন বলতে কিছু নেই, নির্বাচন ব্যবস্থাটাই ধ্বংস করে ফেলা হয়েছে’

  • ৩-Sep-২০১৯ ০৭:০৯ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দেশে নির্বাচন বলতে কিছু নেই। নির্বাচন ব্যবস্থাটাই ধ্বংস করে ফেলা হয়েছে। 

মঙ্গলবার (৩ সেপ্টেম্বর) বিকালে রংপুর মহানগর বিএনপির সদ্য প্রয়াত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাফফর হোসেনের বাড়িতে সমবেদনা জানাতে এসে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এই কথা বলেন তিনি।

রংপুর-৩ আসনের উপনির্বাচনে বিএনপির অংশ নেওয়া প্রসঙ্গে ফখরুল বলেন, আমরা হয়তো নির্বাচনে অংশ নেবো। তবে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়নি। আগামী ৭ সেপ্টেম্বর দলের পার্লামেন্টারি বোর্ডের সভায় চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

প্রয়াত নেতার অবদানের কথা স্মরণ করে ফখরুল বলেন, প্রয়াত মোজাফফর হোসেন একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা, ক্রীড়াবিদ, সমাজসেবকসহ বহু গুণের অধিকারী ছিলেন। ১ সেপ্টেম্বর বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় বক্তব্য রেখে বাসায় যাওয়ার পরই তিনি মারা যান। তিনি গণতন্ত্রের একজন সৈনিক ছিলেন। তিনি গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করতে করতে চলে গেলেন। তার বিদেহী আত্মার প্রতি আমরা গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি। তাকে দল সব সময় স্মরণ করবে।

তিনি আরও বলেন, মোজাফফর হোসেন রংপুরের মানুষের হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছিলেন। এখানকার মানুষ তাকে চিরদিন স্মরণ করবে। রাজনীতি করতে গিয়ে তিনি গুম হয়েছিলেন। তার কোনো লোভ লালসা ছিল না। তার মৃতুতে দলের ক্ষতি হয়েছে।

মামলার হাজিরার কারণে প্রয়াত এই নেতার জানাজায় শরিক হতে না পারায় আক্ষেপ প্রকাশ করেন বিএনপি মহাসচিব।

এসময় পরিবারের পক্ষ থেকে বিএনপি মহাসচিবের কাছে রংপুর-৩ আসনের উপনির্বাচনে প্রয়াত মোজাফফরের স্ত্রী সুফিয়া হোসেনকে মনোনয়ন দেওয়ার দাবি জানানো হয়। তবে ফখরুল এ ব্যাপারে কোনো কথা বলেননি।

সাংবাদিকরা বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তিসহ বিভিন্ন বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, ‘আমি এখানে রাজনীতি করতে আসিনি। আমি মোজাফফর হোসেনের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করতে এসেছি।’ এরপর তিনি মোজাফফর হোসেনের কবর জিয়ারত করেন।

এসময় তার সঙ্গে ছিলেন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুল হাবীব দুলু, রংপুর জেলা বিএনপির সভাপতি সাইফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক রইচ আহামেদ, রংপুর মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম মিজু সাবেক সাধারণ সম্পাদক সামছু জ্জামান সামুসহ বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

Ads
Ads