বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিদেশ যাওয়ার সুযোগ করে দেন জিয়া: কাদের

  • ২৮-Aug-২০১৯ ০৫:২৮ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুনিদের বিদেশ যাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

বুধবার (২৮ আগস্ট) দুপুরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ওবায়দুল কাদের। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) এ আলোচনা সভার আয়োজন করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের মিলনায়তনে আলোচনা সভাটি অনুষ্ঠিত হয়।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আগস্ট এলেই বিএনপি দিশেহারা হয়ে যায়। তবে তারা যতই দায় এড়ানোর চেষ্টা করুক না কেন, জনতার আদালতে প্রমাণ হয়ে গেছে- ১৫ ও ২১ আগস্টের হোতা বিএনপি।

পলাশীর ষড়যন্ত্রের পুনরাবৃত্তি ঘটেছে পচাত্তরের ১৫ আগস্ট এমন মন্তব্য করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, পঁচাত্তরে ইয়ার লতিফ ছিল, মীর জাফর আলী খান ছিল, সেনাপতি রায়দুর্লভ ছিল। পঁচাত্তরে পলাশীর ষড়যন্ত্রের পুনরাবৃত্তি ঘটেছিল।

ষড়যন্ত্রকারীরা ভেবেছিল, বঙ্গবন্ধুকে ইতিহাস থেকে মুছে ফেলা যাবে। কিন্তু সেটি সম্ভব হয়নি।

ডেঙ্গু এখনও নিয়ন্ত্রণে আসেনি বলে মন্তব্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আমি স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে বলবো ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে এসেছে এটা মনে করার কোনো কারণ নেই। ডেঙ্গু মোকাবিলায় সারা বছরের প্রস্তুতি রাখতে হবে। মৌসুমি আয়োজনে ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণ হবে না। আগস্ট মাসে ডেঙ্গু কমেছে, সেপ্টেম্বর মাসে নিয়ন্ত্রণে আসবে, আবার শুনছি সেপ্টেম্বর মাসে ভয়াবহ হবে। এনিয়ে দিনক্ষণ ঠিক করার দরকার নেই, সারা বছরের প্রস্তুতি রাখতে হবে।এইসব রোগ বাংলাদেশে শুরু হয়েছে, চলবে। শুধু ওষুধ ছিটিয়ে এডিস মশার বিস্তার ঠেকানো যাবে না। এডিস মশা বিস্তার ঠেকানোর সবচেয়ে বড় ওষুধ সচেতনতা। সেটা হচ্ছে মূল চিকিৎসা। ডেঙ্গু মোকাবিলা করা একটা লড়াই। আমি আশা করি আমরা এই লড়াইয়ে জয়ী হবো।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক কনক কান্তি বড়ুয়া আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন। সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

 

/কে 

Ads
Ads