বিএসএফের গুলিতে এক মাসে ৪ বাংলাদেশি নিহত

  • ৯-Jul-২০১৯ ০৯:১১ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

বাংলাদেশ-ভারত দুই দেশের সরকারের দাবি সাম্প্রতিক সময়ে সীমান্তে বাংলাদেশের নাগরিক হত্যার ঘটনা কমে গেছে। তবে গত ৩০ দিনে সীমান্তে ৩ বাংলাদেশিকে হত্যা করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী-বিএসএফ।

এদিকে সর্বশেষ সোমবার (০৮ জুলাই) ভোরে মালদহের বৈষ্ণবনগর থানা এলাকার বাখরাবাদের সুখদেবপুর সীমান্তে এক বাংলাদেশি যুবককে গুলি করে হত্যা করেছে প্রতিবেশি দেশির সীমান্তরক্ষীরা।

এর আগে একদিন আগে রবিবার (০৭ জুলাই) ভোরে লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার শ্রীরামপুর সীমান্তে রশাদুল হক (৩৫) নামের এক বাংলাদেশিকে হত্যা করে তারা। 

গত ৪ জুন কুমারপুরে গরু পাচারের সময় এক বিএসএফের গুলিতে প্রাণ হারান আরো এক বাংলাদেশী। তার নাম জহিরুল শেখ। তিনি বাংলাদেশের ভোলাঘাটের বাসিন্দা ছিলেন। একই মাসের ২১ তারিখ কাঁটাতার পেরোনোর সময় বিএসএফের গুলিতে নিহত হন চাপাইনবাবগঞ্জের বাসিন্দা মনিরুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তি। 

এছাড়াও গত ৩০ জুন লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার ধবলগুড়ি সীমান্ত থেকে মঈনুল ইসলাম (৩২) নামের এক বাংলাদেশিকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় টেনেহিঁচড়ে নিয়ে গেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)।

বার বার সীমান্তে বাংলাদেশিদের হত্যা বন্ধে প্রতিশ্রুতি দিলেও তা বাস্তবায়ন করেনি ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সদস্যরা। পাকিস্তান, চীন, মিয়ানমার, নেপাল ও ভুটানের সঙ্গে রয়েছে ভারতের সীমান্ত। সেখানেও চোরাচালনের কারবার থাকলেও বাংলাদেশিদের মতো হত্যাযজ্ঞ চালায় না সামরিক শক্তিধর দেশটির সীমান্তরক্ষীরা।

 

/কে 

Ads
Ads