যুদ্ধাপরাধে ২০ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আবদুল কুদ্দুসের জামিন

  • ২-Aug-২০১৮ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: ভোরের পাতা অনলাইন ::

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় ২০ বছরের সাজাপ্রাপ্ত নোয়াখালীর আবদুল কুদ্দুসকে ছয় মাসের জামিন দিয়েছেন আপিল বিভাগ। এটাই প্রথম কোনো মানবতাবিরোধী অপরাধীর জামিন সর্বোচ্চ আদালতের।

একই সঙ্গে জামিনের মেয়াদ পূর্ণ হলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) একটি বোর্ড বসিয়ে তার স্বাস্থ্যগত তথ্য দেয়ার জন্য নির্দেশ দেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (০২ আগস্ট) প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বিভাগের বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আসামির আইনজীবী অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে তিনি বলেন, ২০ বছরের দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি নোয়াখালীর সুধারামের আবদুল কুদ্দুসকে ৬ মাসের জামিন দিয়েছেন সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগ। সর্বোচ্চ আদালত থেকে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় এটিই প্রথম জামিনের আদেশ দেয়া হল।

এর আগে ১৩ মার্চ মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলায় নোয়াখালীর জামায়াত নেতাসহ তিন আসামির মৃত্যুদণ্ড এবং একজনের ২০ বছরের কারাদণ্ড দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- জামায়াত নেতা আমির আলী, মো. জয়নাল আবদিন ও আবুল কালাম ওরফে একেএম মনসুর। তাদের মধ্যে মনসুর পলাতক। অন্য আসামি মো. আব্দুল কুদ্দুসকে ২০ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল।

এ মামলায় আসামি ছিল পাঁচজন। এর মধ্যে আসামি মো. ইউসুফ আলী গ্রেফতারের পর অসুস্থ হয়ে মারা যাওয়ায় তাকে অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়। ২০১০ সালে ট্রাইব্যুনাল গঠনের মধ্য দিয়ে একাত্তরের যুদ্ধাপরাধের বিচার শুরুর পর এটি হল ৩১তম রায়।

 

অনলাইন/কে 

Ads
Ads