ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাব্বানীর গোপন অফার ফাঁস করে দিলেন ডাকসু ভিপি নুরু!

  • ৩০-মে-২০১৯ ০৯:২৭ পূর্বাহ্ণ
Ads

ভোরের পাতা ডেস্ক

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ-ডাকসুর ভিপি নুরুল হক অভিযোগ করেছেন, তাকে হত্যার জন্য পরিকল্পিতভাবে ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীদের দ্বারা হামলা করা হচ্ছে। তিনি বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে সরে গিয়ে সংগঠনটি ‘জঙ্গি কার্যক্রমের’ দিকে ধাবিত হচ্ছে। বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের ইফতার মাহফিলে বাধা ও বগুড়ার হামলার ঘটনার প্রতিক্রিয়া জানাতে তিনি এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন। ভিপি নুরুল হক বলেন, ডাকসুর ভিপি হওয়ার পর থেকে আমাকে হত্যা করার জন্য পরিকল্পিতভাবে ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীদের দিয়ে হামলা করানো হচ্ছে। বগুড়ায় হামলার পর আমি যখন অ্যাম্বুলেন্সে করে ফিরছিলাম, হঠাৎ করে অ্যাম্বুলেন্সটি নষ্ট হয়ে যায়। পরে আমি একটি মাইক্রোবাসে ফিরছিলাম। সেই মাইক্রোবাসকে একটি ট্রাক ধাক্কা দিয়েছিল। সেটি আমাকে ট্রাকচাপা দেওয়ার একটা প্রচেষ্টা ছিল। সেই ট্রাকটি ছিল সিরাজগঞ্জ পৌরসভা মেয়রের। নুর বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ঘটনার সময় ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলাম। তারা বলেছিলেন, ব্যবস্থা নেবেন। কিন্তু দুঃখজনক পরের দিন বগুড়ায় একই ধরনের ঘটনা ঘটেছে। এটি একটি সুপরিকল্পিত ঘটনা। ছাত্রলীগের কার্যক্রম সাম্প্রতিককালের জঙ্গিদের কার্যক্রমের সদৃশ্য মনে হচ্ছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, ছাত্রলীগ বঙ্গবন্ধুর হাতে-গড়া একটি ঐতিহ্যবাহী সংগঠন। কিন্তু রমজান মাসে ইফতারের প্রোগ্রামে হামলা করে ছাত্রলীগ প্রমাণ করেছে, তারা একটি সা¤প্রদায়িক শক্তিতে পরিণত হচ্ছে। কিছুদিন আগে তারা পয়লা বৈশাখের কনসার্টেও অগ্নিসংযোগ করেছে।

নূরের ওপর হামলায় ছাত্রলীগের তদন্ত কমিটি : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নূরের ওপর হামলার ঘটনায় তিন সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। কমিটির সদস্যরা হলেন- ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক ফুয়াদ হোসেন শাহাদাত, আইন বিষয়ক উপ-সম্পাদক মো. সুজন শেখ ও শাহাদুল হাসান আল মুরাদ।

কমিটিকে সরেজমিন গিয়ে তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করে আগামী তিন কার্য দিবসের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে। গতকাল ছাত্রলীগের দফতর বিষয়ক উপ-সম্পাদক মাহমুদ আব্দুল্লাহ বিন মুন্সি স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
সম্প্রতি ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও বগুড়া শহরে ডাকসু ভিপি নুরুল হক নূরের ওপর ছাত্রলীগ হামলা করে বলে তিনি অভিযোগ করেন। এ ঘটনায় ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলছে, ছাত্রলীগ কোনো ধরনের নেতিবাচক কাজকে সমর্থন করে না। ছাত্রলীগের যেকোনো স্তরের নেতা-কর্মী হামলার সঙ্গে জড়িত প্রমাণ পাওয়া গেলে, সাংগঠনিকভাবে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ডাকসু ভিপি বলেন, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর পক্ষ থেকে আমাকে এক নম্বর সহ-সভাপতি অথবা এক নম্বর যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক অফার করা হয়েছিল। বিভিন্ন মাধ্যমে তারা আমাকে বলেছিলেন যে, ছাত্রলীগের রাজনীতি করলে আমাকে সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হবে। আমি তাদের সঙ্গে যাইনি বলে তারা পরিকল্পিতভাবে আমার ওপর হামলা চালাচ্ছে। এ সময় তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে এসব ঘটনায় জড়িতদের বিচার দাবি করেন।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে ডাকসুর সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসেন, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুন, বগুড়ায় হামলার শিকার রাতুল সরকার, এপিএম সোহেল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Ads
Ads