পরকীয়া প্রেমের জেরে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে তরুণকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ 

  • ১০-মে-২০১৯ ১১:৫৯ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: মেহেদী হাসান সোহাগ, মাদারীপুর প্রতিনিধি ::

মাদারীপুরের রাজৈরে পূর্ব শত্রুতা ও পরকীয়া প্রেমের জের ধরে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সোহেল হাওলাদার (৩২) নামে এক তরুণকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। নিহত সোহেল হাওলাদার একই এলাকার আব্দুল খালেক হাওলাদারের ছেলে। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহষ্পতিবার রাতে উপজেলার মজুমদার বাজার ব্রীজের কাছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রাজৈর উপজেলার বাজিতপুর ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম হাওলাদারের স্ত্রীর সাথে দীর্ঘদিন ধরে সোহেলের পরকীয়া প্রেম চলে আসছিল। এই পরকীয়া প্রেমের কারনে স্থানীয়ভাবে কয়েক দফা সালিশ বৈঠকও হয়েছে। তবুও তারা বিরত থাকেনি। সেই পরকীয়া প্রেমের জের ধরেই বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম হাওলাদার তার লোকজন নিয়ে  মজুমদার বাজারের ব্রীজের কাছে সোহেল হাওলাদারকে একা পেয়ে এলোপাতারিভাবে কোপাতে থাকে। এসময় সোহেলের আর্তচিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এলে চেয়ারম্যান তার লোকজন নিয়ে পালিয়ে যায়। মূমুর্ষূ অবস্থায় সোহেলকে উদ্ধার করে রাজৈর উপজেলা হাসপাতালে এনে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরের পরামর্শ দেয় ডাক্তাররা। কিন্তু ফরিদপুর নেয়ার পথেই সে মারা যায়।

রাজৈর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহজাহান মিয়া জানান, পরকীয়া প্রেমের সুত্র ধরেই এ হত্যাকান্ডটি ঘটেছে। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মাদারীপুর মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মাদারীপুরের পুলিশ সুপার সুব্রত কুমার হালদার বলেন, প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি পরকীয়া প্রেমের কারণে স্থায়ীয়ভাবে শালিস মীমাংসাও হয়েছিল। ধারণা করা হচ্ছে এই কারণে হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করা হয়েছে ।

Ads
Ads