শ্রীনগরে এক গৃহবধুকে আটকিয়ে রাখার অভিযোগ

  • ২-মে-২০১৯ ১২:৪২ অপরাহ্ন
Ads

:: শ্রীনগর (মুন্সিগঞ্জ) প্রতিনিধি ::

শ্রীনগরে এক গৃহবধুকে আটকিয়ে রাখার অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার বনগাঁও গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, বনগাঁও গ্রামের খোরশেদের বখাটে ছেলে মোঃ ইমাম হোসেন (১৭) ফরিদপুরের মোকশেদপুর এলাকার আফিয়া (১৮) নামে এক গৃহবধুর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে। এরি ধারাবাহিকতায় বিয়ে করার কথা বলে ওই গৃহবধুকে ৩ দিন যাবৎ আটকিয়ে রাখে। খবর পেয়ে ওই গৃহবধু পরিবারের লোকজন নিতে আসেন।

এনিয়ে বনগাঁও গ্রামের মোঃ দিদার মোল্লার নের্তৃত্বে কুকুটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের মহিলা ইউপি সদস্য রোজী বেগম, জয়নাল শেখসহ কয়েকজন মিলে বখাটে ইমামের সাথে বিয়ে দেয়ার জন্য শালিসে বসেন। এ বিষয়ে পুলিশ খবর পেয়ে ওই রাতে শ্রীনগর থানা পুলিশ খোরশেদের গেলে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বাড়ি থেকে সবাই পালিয়ে যায় বলে স্থানীয়রা জানান।

ইউপি সদস্য মোঃ সুলতান বলেন, ওই গ্রামের দিদার মোল্লা আমাকে বলেছিল শালিসে থাকার জন্য, আমি তাদের এ বিষয়ে আইনী ব্যবস্থা নেয়ার জন্য পরামর্শ দিয়েছিলাম। শুনেছি মহিলা ইউপি সদস্য শালিসে উপস্থিত ছিলেন। তিনি বিষয়টি ভালো বলতে পারবেন বলে জানান।

এ বিষয়ে ইউপি মহিলা সদস্য রোজীর কাছে জানতে চাইলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, শালিস বৈঠকে গৃহবধুর পরিবারের লোকজন উপস্থিত থেকে নিয়ে যাওয়ার কথা জানালেও পরক্ষনেই তিনি বলেন আমার হেফাজতে ওই গৃহবধুকে দিতে চেয়েছিল কিন্তু নিজের হেফাজতে না রেখে খোরশেদের বাড়িতেই তাকে রেখে এসেছি। মোঃ দিদার মোল্লার কাছে জানতে চেয়ে তার মুঠো ফোনে কল করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেন নি। 

শ্রীনগর থানার এসআই পরিমল সাহা জানান, এলাকাবাসী সূত্রে জানতে পেরে গৃহবধু উদ্ধারে ওই বাড়িতে গিয়ে বাড়ির লোকজনদের পাওয়া যায়নি। তবে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

/কে 
 

Ads
Ads