বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

শিরোনাম: চট্টগ্রাম টেস্টে ড্র মেনে নিল বাংলাদেশ-শ্রীলংকা    আগামী নির্বাচনে আ.লীগ বিজয়ের বন্দরে পৌঁছাবে: কাদের    আবদুল গাফফার চৌধুরীর মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক    আবদুল গাফফার চৌধুরী আর নেই    সুনামগঞ্জে বজ্রপাতে প্রাণ গেল ৩ শিশুর    মানবতাবিরোধী অপরাধ: মৌলভীবাজারের ৩ আসামির মৃত্যুদণ্ড    রাজধানীতে ভবন থেকে পড়ে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর মৃত্যু   
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
সাতক্ষীরায় কোচিং না করায় ছাত্রলীগ সাংগঠনিক সম্পাদককে অমানুষিক নির্যাতন
গাজী ফারহাদ
প্রকাশ: শনিবার, ১৪ মে, ২০২২, ১১:১০ এএম আপডেট: ১৪.০৫.২০২২ ১২:০৬ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

শিক্ষকের কাছে কোচিং না করায় সাতক্ষীরার নলতা আইএইচটি'র শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদককে তুলে নিয়ে অমানবিক নির্যাতন করা হয়েছে । এসময় ওই শিক্ষার্থীর শরীরের বিভিন্ন অংশে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে থেতলিয়ে দেওয়া হয়। এ ঘটনার নতুন করে কিশোর গ্যাংয়ের সন্ধান পাওয়া গেল। 

শুক্রবার (১৩ মে) রাত সাড়ে ১০টায় ইনস্টিটিউটের পুরুষ হোস্টেলের ৩১৩ নং রুমে এই নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। রাতে ওই শিক্ষার্থীকে দেবহাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। 

শনিবার সকাল ১১ টায় নির্যাতনের শিকার শিক্ষার্থীকে হাসপাতালে দেখতে যায় সাতক্ষীরা তিন আসেন সংসদ সদস্য সাবেক স্বাস্থ্য মন্ত্রী ও ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেকনোলজির প্রতিষ্ঠাতা ডা. আ ফ ম রুহুল হক এমপি। 

নির্যাতনের শিকার শিক্ষার্থী সোলায়মান হোসেন ম্যাটস শাখা ছাত্র লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। তিনি পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার মোহাম্মদ হানিফের ছেলে এবং আইএইচটি'র তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।  

জানা যায়, রেডিওলজি বিভাগের শিক্ষক সাইদী হাসানের কথামতো রাত ১০টার দিকে শিক্ষার্থী সোলায়মানকে রুম থেকে তুলে নিয়ে যায় কিশোর গ্যাং সদস্য নাহিদ, রশিদ ও রানা। তাদের মধ্যে নাহিদ ও রশিদ আইএইচটির ছাত্র এবং রানা ম্যাটসের ছাত্র।

মারপিটের শিকার শিক্ষার্থী সোলায়মান হোসেন বলেন, শুক্রবার রাত দশটার দিকে ডাইনিং এর বিষয়ে কথা বলার জন্য ভবনের চারতলায় মিটিং ডাকে রেডিওলজি  বিভাগের নাহিদ। মিটিং শেষে নাহিদ আমাকে বলে তোর সাথে আমার কথা আছে তুই আমার রুমে আয়। আমি নাহিদের রুমে গেলে সে প্রথমে আমাকে তালের রস খাওয়ায়। তুই কি এখানে কি এমন হয়ে গেছিস তোরে আমি দেখে নেব। আমি বলি কি হয়েছে?  বল্লে রশিদ ও নাহিদ আমাকে মারপিট শুরু করে। রানা ও তাদের সহযোগিতা করে।  



সোলায়মান বলেন, তারা জিআই পাইপ ও লোহার রড দিয়ে আমার শরীরের গিরার গিরায় মারপিট করে। একপর্যায়ে আমার মাথায় লোহার রড দিয়ে বাড়ি মারলে আমি জ্ঞান হারিয়ে ফেলি। জ্ঞান ফিরলে দেখি রশিদ, নাহিদ ও রানা আমাকে নিয়ে হাসপাতালে যাচ্ছে। পরে তারা আমাকে নলতা হাসপাতালে রেখে পালিয়ে যায়।

সোলাইমান আরও বলেন, সাইদী হাসান স্যারের কাছে কচিং না করায় তার নির্দেশে আমাকে মারপিট করা হয়েছে।  এর আগে স্যার আমার কাছে বিভিন্ন কারণে টাকা যায়, আমি না দেওয়ায় আমাকে মারা হয়েছে। 

অভিযুক্ত রেডিওলজি বিভাগের শিক্ষক সাইদী হাসানের নাম্বারে একাধিক বার কল করলেও তার নাম্বার বন্ধ পাওয়া য়ায়।
 
এ বিষয়ে ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেকনোলজির অধ্যক্ষ মো: ফারুকুজ্জামান বলেন, নির্যাতনের ঘটনাটি সত্য। কলেজে ছোট খাটো এমন ঘটনা আগেও ঘটেছে। সেটি আমরা কলেজ থেকে মিমাংসা করেছি। এটি বড় ঘটনা এজন্য দ্রুতই তদন্ত কমিটি গঠন পূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়া শিক্ষার্থীদের অভিযোগগুলোও খতিয়ে দেখা হবে।

কালিগঞ্জ থানার ওসি গোলাম মোস্তফা বলেন এঘটনায় কোন অভিযোগ পাইনি, তবে  অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
http://dailyvorerpata.com/ad/apon.jpg
https://www.dailyvorerpata.com/ad/last (2).gif
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ


সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
সাউথ ওয়েস্টার্ন মিডিয়া গ্রুপ


©ডেইলি ভোরের পাতা ডটকম


©ডেইলি ভোরের পাতা ডটকম

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৪১০১০০৮৭, ৪১০১০০৮৬, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৪১০১০০৮৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৪১০১০০৮৫
অনলাইন ইমেইল: [email protected] বার্তা ইমেইল:[email protected] বিজ্ঞাপন ইমেইল:[email protected]