শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১ ৬ কার্তিক ১৪২৮

শিরোনাম: কুমিল্লার ঘটনায় অভিযুক্ত ইকবাল সন্দেহে একজন আটক    হেসে-খেলেই সুপার টুয়েলভে বাংলাদেশ    পাপুয়া নিউ গিনিকে ১৮২ রানের চ্যালেঞ্জ    করোনায় একদিনে আরও ১০ জনের মৃত্যু    বদরুন্নেসার সেই শিক্ষিকা দুই দিনের রিমান্ডে    ফেসবুক লাইভে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় স্বামীর মৃত্যুদণ্ড    টস জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ   
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
শরীয়তপুর পৌরসভার বাজেট ঘোষণা
শেরপুর প্রতিনিধি
প্রকাশ: সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯:১৯ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

২০২১-২২ অর্থবছরের জন্য শরীয়তপুর পৌরসভার বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। রাজস্ব ও উন্নয়ন খাত মিলে ৫৪ কোটি ৮০ লাখ ৩৮ হাজার ৭২৪ টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়।

সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১ টায় পৌরসভা মিলনায়তনে বাজেট উপস্থাপন করেন পৌর মেয়র এ্যাড.পারভেজ রহমান জন। 

বাজেট ঘোষণার সময় শরীয়তপুর পৌরবাসীর উদ্দেশ্য মেয়র বলেন, আপনারা সকলেই অবগত আছেন যে ২০১৯ সাল থেকে করােনার কারনে সারা বিশ্বে স্থবিরতা বিরাজ করছে। সারা বিশ্ব যখন করােনার সাথে যুদ্ধ করছে, সেই সময় আমি পৌরসভার মেয়রের দায়িত্ব ভার গ্রহন করি। আমার দায়িত্বভার গ্রহনের শুরু থেকেই করােনা পরিস্থিতির সাথে মােকাবেলা করে আসছি। ক্রমাগত লকডাউন, শাটডাউনের প্রভাবে সারা বাংলাদেশে উন্নয়ন কার্যক্রম ব্যহত হচ্ছে। 

আমরা আশাবাদী প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা যে ভাবে করােনা পরিস্থিতি মােকাবেলা করে যাচ্ছেন তাতে করে খুব শীঘ্রই বাংলাদেশ এই দূর্যোগ কাটিয়ে উঠবে এবং পূনরায় সারা বাংলাদেশসহ শরীয়তপুর পৌরসভায়ও উন্নয়ন কার্যক্রমের গতি সঞ্চার হবে। প্রিয় সুহৃদ, আমাদের সকলের প্রানের শহর শরীয়তপুর। প্রিয় শহরকে বসবাস যােগ্য শহর হিসাবে গড়ে তােলার জন্য বর্তমান পৌর পরিষদের সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা রয়েছে। তার মধ্যে প্রথম বিবেচ্য হচ্ছে খাল, জলাশয় অবৈধ দখল পুনরুদ্ধার। যার মাধ্যমে শহরবাসী জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি পাবে। 

এ ক্ষেত্রে আপনাদের সক্রিয় সহযােগিতা এ কাজে সহায়ক পৌরসভার সম্মানিত নাগরিকগনের নিকট বিনীত অনুরােধ থাকবে প্রাকৃতিক জলধার ও ড্রেনের ময়লা আবর্জনা ফেলে ভরাট না করার জন্য। ড্রেন নিমার্নের মাধ্যমে আমরা শহরের জলাবদ্ধতা দূর করার চেষ্টা করবাে। প্রিয় পৌরবাসী, উন্নয়ন একটি ধারাবাহিক চলমান প্রক্রিয়া। টেকসই উন্নয়নই আমাদের অন্যতম লক্ষ্য থাকবে। শরীয়তপুর পৌরসভায় চলমান MGSP প্রকল্পের ১ ম ফেজ সমাপ্ত হয়েছে। দ্বিতীয় ফেজে আমরা অন্তর্ভূক্ত আছি। এ পর্যায়ে আমরা আশা করি ২৫০-৩০০ কোটি টাকার কাজ করতে পারবাে এবং পৌরসভা একটি আধুনিক পৌরসভায় রুপান্তরে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবাে। পৌরসভায় চলমান গুরুত্বপূর্ন নগর অবকাঠামাে প্রকল্পের মাধ্যমে ১১ টি প্রকল্প বর্তমানে শেষ পর্যায় রয়েছে। পরবর্তীতে আমরা উক্ত প্রকল্পের মাধ্যমে আরাে উন্নয়ন কাজ সম্পাদনের জন্য বরাদ্দ পাওয়ার চেষ্টা অব্যাহত রাখছি। 

আমরা আরবান ইনফ্রাসষ্ট্রাকচার ইমপ্রুভমেন্ট ( UIIP ) প্রজেক্ট ( কুয়েত ফান্ড ) এ অন্তভূক্তির জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। এ ছাড়া ও UGIIP - ৪ প্রকল্প ও শরীয়তপুর জেলা পৌরসভা সমূহের উন্নয়ন প্রকল্প। অন্তর্ভূক্তির জন্য যােগাযােগ অব্যাহত রেখেছি। উক্ত প্রকল্প সমূহে অন্তর্ভূক্ত হতে পারলে অনগ্রসর শরীয়তপুর পৌরসভাকে দৃশ্যমান অগ্রগতি অর্জন সম্ভব হবে। আমরা ইতােমধ্যে আরবান প্রাইমারী হেলথ কেয়ার প্রজেক্ট এ অর্ন্তভূক্ত হয়েছি। উক্ত প্রকল্পের মাধ্যমে একটি নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র এবং একটি নগর মাতৃসদন কেন্দ্র স্থাপনের জন্য দুইটি দানশীল পরিবার বিনামূল্যে পৌরসভাকে জমি দান করেছেন। দাতাগন হলেন আনিসউদ্দিন মিঞা উত্তর বালুচড়া এবং আব্দুল হাতেম ঢালী, পিতাঃ মৃত আঃ করিম ঢালী, দক্ষিন বালুচড়া। আমি উভয় পরিবারের এই মহতী কাজে সহযােগিতা করার জন্য পৌর পরিষদের পক্ষ থেকে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। শীঘ্রই উক্ত ভবন দুইটি নির্মানের কাজ শুরু হবে এবং স্বাস্থ্য সেবা প্রদান শুরু হবে। আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে এ শহরকে সুন্দর নান্দনিক শহর হিসাবে গড়ে তােলার জন্য অগ্রাধিকার ভিত্তিক নিম্নোক্ত কাজ সমূহ বাস্তবায়নের পদক্ষেপ গ্রহন করবাে। 

পৌর শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনের জন্য পরিকল্পিত ড্রেন নির্মান ও বিভিন্ন স্থানে পানি অপসারনের পাইপ বসানাের ব্যবস্থা অব্যাহত রাখা। পালং বাজারে পৌরসভার নিজস্ব জায়গায় একটি অত্যাধুনিক সুপার মার্কেট নির্মানের পরিকল্পনা গ্রহন করা হয়েছে। শহরে রাস্তার বাতির বিষয়টি নিশ্চিত করনের জন্য ৮.০০ ( আট ) কোটি টাকার সােলার ট্রীট লাইটের ডিপিপি তৈরী করে মন্ত্রনালয়ে প্রেরন করা হয়েছে। আশা করি এ অর্থ বৎসরে শহরে সোলার লাইট স্থাপন করা সম্ভব হবে। শরীয়তপুর শহরে বিনােদনের জন্য একটি শিশু পার্ক উন্নয়নের পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে। বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ নিরবিচ্ছিন্ন রাখার জন্য ৪ টি পানি সরবরাহ পাম্প রি-জেনারেটিং করা হয়েছে যে কারনে পানি সরবরাহের গতি আরাে সচল হয়েছে। মনােহর বাজারে নতুন পাম্প চালু করা হয়েছে। ও দরিদ্র মহিলাদের আত্ম কর্মসংস্থানের জন্য সেলাই মেশিন প্রদানের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। আর্বজনা অপসারনের জন্য একটি স্থায়ী ডাম্পিং গ্রাউন্ড স্থাপনের জন্য পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে। শরীয়তপুর শহরে একটি সুন্দর কবরস্থান ও শ্মশানঘাট নির্মানের পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে। 

পৌরবাসীর প্রতি বিশেষ অনুরােধ পানির অপচয় করবেন না, ব্যবহারের পর পানির ট্যাপ বন্ধ রাখুন। বাড়ী ঘর নির্মানে পৌরসভার নিয়মাবলী অনুসরন করুন। পানি নিষ্কাশনের উৎস সমূহ ডােবা, নালা, পুকুর ভরাট করবেন না। ড্রেনে ময়লা আর্বজনা ফেলবেন না। ময়লা আর্বজনা নির্দিষ্ট স্থানে ফেলুন। সময়মতো পৌর কর পরিশোধ করুন। 



এসময় উপস্থিত ছিলেন শরীয়তপুর পৌরসভার সচিব এনামুল হক, প্যানেল মেয়র বাচ্চু বেপারী, সিনিয়র ইন্জিনিয়ার শফিকুর রহমান সহ বিভিন্ন মিডিয়ার সাংবাদিক ও ওয়ার্ডের কাউন্সিলরবৃন্দ।



ভোরের পাতা/কে 

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
http://www.dailyvorerpata.com/ad/Comp 1_3.gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/last (2).gif
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]