শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ২ আশ্বিন ১৪২৮

শিরোনাম: ফিনল্যান্ড পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা    কমেছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা    কমেছে মৃত্যু, বেড়েছে শনাক্ত     বাংলাদেশের নতুন কোচ অস্কার    সাতক্ষীরায় ধানক্ষেতে মিললো দুই যুবকের মরদেহ    ইভ্যালির রাসেল-শামীমা ৩ দিনের রিমান্ডে    বগুড়ায় বাসের ধাক্কায় চুরমার অটোরিকশা, নিহত ২   
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রমে আরও গুরুত্ব দিতে হবে: অধ্যাপক ড. ফারুক মির্জা
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: সোমবার, ২৬ জুলাই, ২০২১, ১০:৩৭ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

বিশ্ব যে চিরাচরিত শিক্ষা ব্যবস্থার সঙ্গে পরিচিত ছিল এবং অর্থনীতিভাবে বিগত দশকগুলোতে যে অগ্রগতির ধারায় এগুচ্ছিল সেখানে করোনায় ব্যাপকভাবে তার নেতিবাচক পরিবর্তন হয়েছে। দীর্ঘকালের ধারাবাহিকতায় শিক্ষা ব্যবস্থার ক্রমশ পরিবর্তন হয়েছে এবং এটাতে আধুনিকায়ন হয়েছে। এই করোনাকালে আমাদের যেটা উপকার হয়েছে সেটা হলো আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থায় প্রযুক্তির ব্যাপক উন্মেষ ঘটেছে। করোনা যদি না আসতো তাহলে আমরা এই যে জুমে সংলাপ, মিটিং, অনলাইনে ক্লাস করার যে প্রক্রিয়া সেটা এতো তরান্বিত হতো না। 

দৈনিক ভোরের পাতার নিয়মিত আয়োজন ভোরের পাতা সংলাপের ৪১২তম পর্বে সোমবার আলোচক হিসেবে উপস্থিত হয়ে এসব কথা বলেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান এবং বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক ড. বদরুজ্জামান ভূঁইয়া কাঞ্চন, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়ার ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ বিভাগের সাবেক ডিন অধ্যাপক ড. অরবিন্দ সাহা, বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা, বেলজিয়াম বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক ড. ফারুক মির্জা। দৈনিক ভোরের পাতা সম্পাদক ও প্রকাশক ড. কাজী এরতেজা হাসানের পরিকল্পনা ও নির্দেশনায় অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সাবেক তথ্য সচিব নাসির উদ্দিন আহমেদ।

অধ্যাপক ড. ফারুক মির্জা বলেন, বাংলাদেশে সরকার সাহসিকতার সঙ্গে সংকট মোকাবিলা করে অর্থনৈতিক খাতকে অনেকটা সচল রাখতে পেরেছে। কয়েক মাস ধরেই অফিস-আদালত, ব্যবসা-বাণিজ্য, পোশাকশিল্প-সবকিছুই স্বাভাবিকভাবে চলছে। শুধু স্থবির হয়ে আছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো। এখন নানা দিক থেকে জোরেশোরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি হয়েছে। এজন্য উচ্চ আদালতেও রিট হচ্ছে। সরকারপক্ষও গভীরভাবে বিষয়টি বিবেচনা করছে। দীর্ঘদিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আসতে না পারায় স্কুল থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত সব শিক্ষার্থী সংকটে পড়বে। সরকারপক্ষ তথা শিক্ষা মন্ত্রণালয় শুরু থেকেই চেষ্টা করেছে শিক্ষার ধারা সচল রাখতে। তারা কিছু বিকল্প সিদ্ধান্ত দিয়েছে। এরই মধ্যে রয়েছে স্কুল শিক্ষার্থীদের জন্য টেলিভিশনে, রেডিওতে ক্লাস নেওয়ার ব্যবস্থা। শিক্ষার সর্বস্তরে ভার্চুয়ার ক্লাস নেওয়া।কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে, এসব সুবিধা খুব কমসংখ্যক শিক্ষার্থীই গ্রহণ করতে পেরেছে। গবেষণা প্রতিবেদন অনুযায়ী, ৭০ শতাংশ শিক্ষার্থীই ভার্চুয়াল মাধ্যমে শিক্ষা গ্রহণের সুবিধা নিতে পারেনি। একটি উল্লেখযোগ্যসংখ্যক শিক্ষার্থী ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও দুর্বল ইন্টারনেট ও বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারণে ক্লাসে আসতে পারেনি। এ বিভ্রাটের মধ্যে শিক্ষকরাও পড়েছেন। এরই মধ্যে আর্থিক সংগতি-অসংগতির প্রশ্নও রয়েছে।  করোনাকালে সবচেয়ে ক্ষতির শিকার শিক্ষাখাত। এজন্য সাধারণ জনগণের কারো কারো বক্তব্য হলো-শপিং মল খোলা, গণপরিবহন চলাচল করেছে, ট্রেন-লঞ্চ চলছে, তাহলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলতে ও পরীক্ষা নিতে সমস্যা কোথায়। কারো মতে, সকল কিছু যেভাবে সীমিত পরিসরে খোলা হচ্ছে তেমনি করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সীমিত পরিসরে খুলে দেওয়া হোক। আবার কারো মতে, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা মাঝপথে বন্ধ করে দেওয়ায় তাদের জীবন ২ বছর পিছিয়ে পড়েছে। ফলে হতাশা বাড়ছে শিক্ষার্থীদের মধ্যে। শিক্ষা ব্যবস্থাকে পুনঃসংস্করণ করার মাধ্যমে বর্তমান সমস্যাগুলো সমাধান করে সম্ভাবনাগুলো কাজে লাগাতে হবে। সে জন্য সবার সমন্বিত উদ্যোগ ও প্রচেষ্টা খুবই জরুরি। সরকারের পাশাপাশি ব্যক্তি উদ্যোগে শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষা সংশ্লিষ্ট সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার পাশাপাশি ডিজিটাল এডুকেশন গড়ার নিরন্তর প্রচেষ্টায় এগিয়ে যাচ্ছে বর্তমান সরকার। আমাদের এখনই সময় ঘুরে দাঁড়ানোর। শিক্ষা ব্যবস্থাকে ডিজিটাল করার জন্য যে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে, তা বাস্তবায়নের সময় এখনই। শিক্ষক, শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের সমন্বয়ে যে শিক্ষা ব্যবস্থা গড়ে উঠেছে, তা সম্পূর্ণ ডিজিটাল করতে পারলেই করোনা মহামারির এই বৈশ্বিক সমস্যা দ্রুত কাটিয়ে তোলা সম্ভব।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


আরও সংবাদ   বিষয়:  ভোরের পাতা সংলাপ   অধ্যাপক ড. ফারুক মির্জা  







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
https://www.dailyvorerpata.com/ad/last (2).gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/agrani.gif
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]