শনিবার ১ অক্টোবর ২০২২ ১৬ আশ্বিন ১৪২৯

শিরোনাম: বঙ্গবন্ধুর খুনি রাশেদ চৌধুরীকে দেশে ফেরানোর চেষ্টা চলছে: প্রধানমন্ত্রী    র‍্যাব সংস্কারের কোনো প্রশ্নই ওঠে না: নতুন ডিজি    বর্ষীয়ান সাংবাদিক তোয়াব খান আর নেই    রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৬৫    থাইল্যান্ডকে উড়িয়ে এশিয়া কাপ শুরু বাংলাদেশের    দৈনিক মৃত্যুতে শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র, সংক্রমণে জার্মানি    রাজধানীর যেসব এলাকায় গ্যাস থাকবে না আজ   
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
আমাদের অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলো দ্রুত কাঠামোগত রূপ দিতে হবে: আব্দুস সালাম মুর্শেদী
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: বুধবার, ১৬ জুন, ২০২১, ১১:১২ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

এই বাজেটটি সর্টটার্ম ও লংটার্ম। এই বাজেটে যেমন সমকালীন বাস্তবতা চিন্তা করা হয়েছে ঠিক একইভাবে বাংলাদেশকে যে সম্ভাবনাময় একটি অবস্থানে নিয়ে যাওয়া যায় সে জায়গায় অনেকটা জোর দেওয়া হয়েছে। বর্তমান করোনাকালীন সময়ে এই বাজেটে ব্যাবসা-বাণিজ্যের সব খাতকে কনসিডারেশনের আওতায় আনা হয়েছে। তবে কিছু খাতকে একটু বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে এবং আরও কিছু খাতে আরও একটু গুরুত্ব দেওয়া দরকার। 



দৈনিক ভোরের পাতার নিয়মিত আয়োজন ভোরের পাতা সংলাপের ৩৭২তম পর্বে বুধবার আলোচক হিসেবে উপস্থিত হয়ে এসব কথা বলেন- বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান, বিজিএমইএ’র সাবেক সভাপতি, সংসদ সদস্য, আব্দুস সালাম মুর্শেদী, সীমার্ক গ্রুপের চেয়ারম্যান, এন আর বি ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা ইকবাল আহমেদ, ওবিই, ঘানিম ইন্টারন্যাশনাল করপোরেশন (ব্রুনাই হালাল ফুডস), ব্রুনাই’র সিইও, ব্রুনাই বঙ্গবন্ধু পরিষদের উপদেষ্টা, অস্ট্রেলিয়া বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাবেক সভাপতি এবং সাবেক ছাত্রনেতা ড. নূর রহমান। দৈনিক ভোরের পাতা সম্পাদক ও প্রকাশক ড. কাজী এরতেজা হাসানের পরিকল্পনা ও নির্দেশনায় অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সাবেক তথ্য সচিব নাসির উদ্দিন আহমেদ।

আব্দুস সালাম মুর্শেদী বলেন, বাংলাদেশের এই সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীতে ২০২১-২০২২ অর্থবছরের জন্য গত তেসরা জুন জাতীয় সংসদে ‘জীবন জীবিকায় প্রাধান্য দিয়ে সুদৃঢ় আগামীর পথে বাংলাদেশ’ শিরোনামে জনকল্যাণমুখী জাতীয় বাজেট পেশ করা হয়েছে। এই বাজেটটি ৩৫ হাজার ৬৮১ কোটি টাকার থেকেও বেশি। গতবারের মতো এবারও করোনা মোকাবিলা করে অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। আমার কাছে যেটা একজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ও ক্ষুদ্র অভিজ্ঞতা থেকে যেটা মনে হয় সেটা আমি বলতে চাচ্ছি যে, বর্তমান করোনাকালীন সময়ে এই বাজেটে ব্যবসা-বাণিজ্যের সব খাতকে কনসিডারেশনের আওতায় আনা হয়েছে। তবে কিছু খাতকে একটি বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে এবং আরও কিছু খাতে আরও একটু গুরুত্ব দেওয়া দরকার বলে আমি মনে করি। এই বাজেটটি ব্যবসাবান্ধব, জনবান্ধব ও বিনিয়োগ বান্ধব বাজেট হয়েছে। আমরা সবাই জানি যে, বর্তমান কোভিড পরিস্থিতিতে আন্তর্জাতিকভাবে বিশ্ব বাজার সংকুচিত হয়েছে। বিশ্ব বাজার অর্থনীতি একটা ভঙ্গুর অবস্থায় আছে। সেই জায়গায় একটা পণ্যের দরপতন হবে, এর চাহিদা বাড়বে কমবে। সেই জায়গায় আমাদের প্রচুর প্রতিযোগিতা সৃষ্টি হচ্ছে এবং এই ধরনের চ্যালেঞ্জে আমাদের জন্য কিছু সুযোগ তৈরি হয়। এই বাজেটে কিন্তু সেই সুযোগগুলো আছে। গত অর্থবছরের আগের অর্থবছরে শতাধিক অর্থনৈতিক অঞ্চল পাশ হয়েছিল সংসদে। আমি মনে করি এই অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলো যদি একটি অর্থনৈতিক কাঠামো দিয়ে যদি দ্রুত তৈরি করে দেওয়া হয় তাহলে অনেক বিদেশি বিনিয়োগকারী ও সাথে সাথে দেশি বিনিয়োগকারীরা এই সুযোগটাকে কাজে লাগাতে পারবে। 

ভোরের পাতা/পি

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
http://dailyvorerpata.com/ad/apon.jpg
https://www.dailyvorerpata.com/ad/last (2).gif
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ


সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
সাউথ ওয়েস্টার্ন মিডিয়া গ্রুপ


©ডেইলি ভোরের পাতা ডটকম


©ডেইলি ভোরের পাতা ডটকম

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৪১০১০০৮৭, ৪১০১০০৮৬, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৪১০১০০৮৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৪১০১০০৮৫
অনলাইন ইমেইল: [email protected] বার্তা ইমেইল:[email protected] বিজ্ঞাপন ইমেইল:[email protected]