বৃহস্পতিবার ১৭ জুন ২০২১ ২ আষাঢ় ১৪২৮

শিরোনাম: বাংলাদেশে হালাল ফুড এক্সপোর্টে গুরুত্ব দিলে নতুন দ্বার উন্মোচন হবে: ড. নূর রহমান    বাংলাদেশে অনলাইন ব্যাংকিং ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ডে রূপান্তরিত করতে হবে: ইকবাল আহমেদ    আমাদের অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলো দ্রুত কাঠামোগত রূপ দিতে হবে: আব্দুস সালাম মুর্শেদী    করোনা মোকাবিলায় ঘাটতি বাজেট আরও বাড়ানো যেতে পারে: ড. আতিউর রহমান    মহামারিতেও অর্থনীতি সচল রাখার উন্নয়নমুখী বাজেট    এবার শাস্তির মুখে সাব্বির    মোংলায় লকডাউন বাড়লো আরও ৭ দিন   
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
পাশের বাসার তরুণকে বিয়ে করতে সন্তানকে হত্যা করেন মা
ভোরের পাতা ডেস্ক
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ৮ জুন, ২০২১, ৭:৪৩ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

পরকীয়া প্রেমিককে বিয়ে করে নতুন সংসার গড়তে নিজ সন্তানকে হত্যা করেন মা। এরপর মা জান্নাতা আক্তার শিশুটির অপমৃত্যু বলে প্রচার করেন। গতকাল সোমবার ঠাকুরগাঁও সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে নিজ সন্তান আরাফের হত্যার স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দেন জান্নাতা আক্তার। গত বুধবার (৩ জুন) সকালে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা দেওগাঁও চেড়াডাঙ্গী গ্রামে এ হত্যার ঘটনা ঘটে। জবানবন্দির পর আদালত জান্নাতাকে কারাগারে প্রেরণ করেছেন।

মঙ্গলবার বিকেলে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি তানভিরুল ইসলাম এ তথ্য জানান। ঘটনার বর্ণনায় ওসি জানান, গত বুধবার (৩ জুন) তারিখ দুপুরে আমির হামজা আরাফ (৬) ফ্যানের সঙ্গে গলায় গামছা পেঁচিয়ে মৃত্যুবরণ করে বলে পুলিশ খবর পায়। পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধারের পর ঠাকুরগাঁও সদর থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়। সেই সঙ্গে মরদেহের ময়নাতদন্তের জন্য ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।



পুলিশ নিহতের বাবা খলিলুর রহমানকে সন্তানের মৃত্যুর বিষয়ে তার মা জান্নাতা আক্তারের কাছে বিভিন্নভাবে জানতে পরামর্শ দেন। এ সময় জান্নাতার কথা খলিলুরের সন্দেহ হয়। তিনি বিষয়টি মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে জানান।

পরে জান্নাতা আক্তারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় হাজির করা হয়। তদন্তটিম মৃতের মা জান্নাতা আক্তারকে বিভিন্ন তথ্যের ভিত্তিতে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করে। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে জান্নাতা তার ছেলে শিশু আরাফের হত্যার বিষয়টি স্বীকার করেন। 

জিজ্ঞাসাবাদে জান্নাতা জানান, স্বামীর সঙ্গে ঢাকায় থাকার সময় পাশের ফ্লাটের ইমরান নামে এক তরুণের সঙ্গে প্রেমে জড়িয়ে পড়েন। এ সময় তাদের মধ্যে একাধিকার শারিরীক সম্পর্ক হয়। দুই মাস আগে খলিলুর সন্তানসহ তাকে ঠাকুরগাঁওয়ের দেওগাঁও চেড়াডাঙ্গী গ্রামের শশুরবাড়িতে রেখে যায়। অন্যদিকে, ইমরান মোবাইলে বিভিন্নভাবে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। বিষয়গুলো নিয়ে তিনি মানসিক অস্থিরতায় ভুগছিলেন। এ কারণেই গত বুধবার (৩ জুন) সকালে আরাফকে শ্বাসরোধে হত্যা করেন।

ভোরের পাতা/পি

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


আরও সংবাদ   বিষয়:  পাশের বাসা   তরুণ   বিয়ে   সন্তান   হত্যা   মা  







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
https://www.dailyvorerpata.com/ad/last (2).gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/agrani.gif
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]