রোববার ২৫ জুলাই ২০২১ ১০ শ্রাবণ ১৪২৮

শিরোনাম: করোনা শনাক্ত ও মৃত্যুতে শীর্ষে ঢাকা: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর    বাঁশখালীতে নিহত ৭ শ্রমিকের পরিবার পেল ৩৫ লাখ টাকা    বরিশাল বিভাগে আরও ১৫ জনের মৃত্যু    আফগানিস্তানে সেনা অভিযান, ২৬৯ তালেবান নিহত    খুলনা বিভাগে করোনায় আরও ৪৫ জনের মৃত্যু    শিক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট কার্যক্রম স্থগিত    হঠাৎ গজিয়ে উঠা সংগঠনকে আ.লীগের সাথে সম্পৃক্ত করার সুযোগ নেই: কাদের   
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
টাঙ্গাইলে ১৬ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়া জীনের বাদশা চক্রের ৩ সদস্য গ্রেফতার
আব্দুস সাত্তার, টাঙ্গাইল
প্রকাশ: শনিবার, ৫ জুন, ২০২১, ৯:০৩ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মীর এনায়েত হোসেন মন্টুর স্ত্রীর কাছ থেকে জীনের বাদশা পরিচয়ে ১৬ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়া চক্রের সদস্য তিন সহোদরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

শুক্রবার ভোলা জেলার বোরহান উদ্দিন উপজেলা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত তিন সহোদর হলো জেলার বোরহান উদ্দিন উপজেলার দেওলি শিবপুর গ্রামের আব্দুর রবের ছেলে মিন্টু মিয়া (৩৫) আলম (২৭) ও মিজান (২২)। এসময় তাদের কাছ থেকে প্রতারনার কাজে ব্যবহৃত একটি মোবাইল ফোন ও সিমকার্ড উদ্ধার করে পুলিশ। 

উপজেলা পরিষদের  চেয়ারম্যানের স্ত্রী মনোয়ারা বেগমের ভাতিজী খালেদা আক্তার মির্জাপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। শনিবার গ্রেপ্তারকৃতদের ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে টাঙ্গাইল সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আরিফুল ইসলামের আদালতে হাজির করা হলে আদালত তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন বলে জানিয়েছেন মির্জাপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ রিজাউল হক দিপু। 

লিখিত অভিযোগ ও পুলিশ সুত্রে জানাগেছে, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম (৬০)  দীর্ঘদিন ধরে পেটের ব্যাথায় ভোগছেন।গত ১৫ মার্চ রাত আনুমানিক সোয়া এগারোটার দিকে তিনি তার নিজ কক্ষে টিভি দেখছিলেন। এ সময় তিনি ডিস লাইনে “৪৩ ভিডিও চ্যানেল” নামে স্থানীয় চ্যানেলে চিকিৎসার চটকদার বিজ্ঞাপন দেখেন। যোগাযোগের জন্য বিজ্ঞাপনের নীচে একাধিক মোবাইল নম্বর প্রদর্শন করা হয়। পরে তিনি উল্লেখিত নম্বরে যোগাযোগ করেন।তাদের সঙ্গে কথা বলে তার বিশ্বাস জন্মায়।বিবাদীরা নিজেদের জীনের বাদশা পরিচয় দিয়ে জীনের মাধ্যমে চিকিৎসা করানোর কথা বলেন।পরে কৌশলে মহিষ, কাপড় চোপড় দেওয়ার অজুহাতে গত তিন মাসে বিভিন্ন সময়ে বিকাশের মাধ্যমে ১৫ লাখ ৯৯ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় ওই প্রতারক চক্রটি।।বিষয়টি পারিবারিকভাবে জানাজানি হলে চেয়ারম্যানের স্ত্রীর ভাতিজী খালেদা আক্তার গত ২৩ মে অজ্ঞাতনামাদের অভিযুক্ত করে মির্জাপুর থানায় মামলা করেন।মামলা নম্বর ১৭ তাং ২৩/০৫/২০২১।মামলার পর প্রতারকদের ধরতে মাঠে নামে মির্জাপুর থানা পুলিশ। চেয়ারম্যানের স্ত্রীর সঙ্গে বিভিন্ন সময়ে যোগাযোগ করা প্রতারকেদের একাধিক মোবাইল  নম্বর ও টাকা গ্রহণের বিকাশ নম্বরের খোঁজে নামে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) আলাউদ্দিন। তিনি তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে প্রতারকদের অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত হন। ভোলা জেলার বোরহান উদ্দিন উপজেলায় গত তিনদিন অবস্থান করে শুক্রবার প্রতারক তিন ভাইকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হন। এসময় তাদের কাছ থেকে প্রতারনার কাজে ব্যবহৃত একটি মোবাইল ফোন ও সিমকার্ড উদ্ধার করা হয়।

মির্জাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মীর এনায়েত হোসেন মন্টুর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন এ বিষয়ে এখনই কোন কথা বলতে চাননা।



মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপপরিদর্শক(এসআই) আলাউদ্দিন বলেন, তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে নিশ্চিত হয়ে তিন প্রতারককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মির্জাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ রিজাউল হক দিপু বলেন, গ্রেপ্তারদের ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে টাঙ্গাইল সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আরিফুল ইসলামের আদালতে হাজির করা হলে আদালত তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।দ্রুত হাতিয়ে নেয়া টাকা উদ্ধার করা সম্ভব হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

ভোরের পাতা/পি

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


আরও সংবাদ   বিষয়:  টাঙ্গাইল   ১৬ লাখ   টাকা   জীনের বাদশা   ৩ সদস্য   গ্রেফতার   







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
https://www.dailyvorerpata.com/ad/last (2).gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/agrani.gif
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]