মঙ্গলবার ১১ মে ২০২১ ২৮ বৈশাখ ১৪২৮

শিরোনাম: চাঁদ দেখা যায়নি সৌদিতে, ঈদ বৃহস্পতিবার    মিতু হত্যা মামলায় স্বামী বাবুল আক্তার গ্রেপ্তার    মালয়েশিয়ায় ঈদ বৃহস্পতিবার    মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল স্থগিত চেয়ে আইনি নোটিশ    ৪৩তম বিসিএসের প্রিলি পরীক্ষার তারিখ পেছাল    মন্ত্রীদের বক্তব্য শুধু অশালীন নয়, অমার্জিত ও অগ্রহণযোগ্য: ফখরুল    কমেছে বেসরকারি পর্যায়ে করোনা টেস্ট ফি    
ফেসবুকে শিক্ষক-ছাত্রীর ‘অনৈতিক কর্মকাণ্ডের’ ভিডিও ভাইরাল
নওগাঁ প্রতিনিধি
প্রকাশ: রোববার, ২ মে, ২০২১, ১১:১৯ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

নওগাঁর রাণীনগর উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সাদেকুল ইসলাম পিটুর সঙ্গে স্কুলের এক ছাত্রীর ‘অনৈতিক কর্মকাণ্ডের’ ভিডিও সামাজিক যোগযোগমাধ্যমে ছড়িয়েছে। ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় ব্যাপক সমালোচনা তৈরি হয়েছে। ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন স্কুলছাত্রীদের অবিভাবক ও স্থানীয়রা।

জানা গেছে, উপজেলার বেলোবাড়ি গ্রামের সাদেকুল ইসলাম পিটু প্রায় ১০-১২ বছর আগে রাণীনগর উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে সহকারী গ্রন্থাগারিক হিসেবে যোগ দেন। এরপর থেকে তিনি বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের পাইভেট পড়াতেন। চলতি বছরে তিনি সহকারী শিক্ষক (লাইব্রেরিয়ান ও তথ্য বিজ্ঞান) হয়েছেন। এরই মাঝে স্কুলের এক ছাত্রীর সঙ্গে তার ‘অনৈতিক সম্পর্ক’ গড়ে ওঠে।



ওই ঘটনার ভিডিও ধারণ করা হয়েছে বলে গত বছর স্থানীয়দের মধ্যে জানাজানি হয়। সেই সময় স্থানীয় এক প্রভাবশালী নেতার হস্তক্ষেপে বিষয়টি ধামচাপা দেওয়া হয়। গতকাল শনিবার একটি ফেসবুক আইডি থেকে ওই শিক্ষক ও ছাত্রীর অনৈতিক কর্মকাণ্ডের ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। সেই ভিডিও থেকে নেওয়া ছবি ফেসবুকের বিভিন্ন আইডি থেকে ভাইরাল হয়। বিষয়টি দেখে স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভ ও সমালোচনা তৈরি হয়েছে।
 
ছাত্রীদের অবিভাবকরা জানান, শিক্ষক যদি ছাত্রীর সঙ্গে এমন অনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়ায় সেই বিদ্যালয়ে মেয়েরা কিভাবে নিরাপদ। দ্রুত ওই শিক্ষকদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি করেছেন তারা।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক সাদেকুল ইসলাম পিটুর সঙ্গে মোবাইলে কল দিলে ফোন বন্ধ থাকায় তার মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

রাণীনগর উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ বলেন, এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে বিধি মোতাবেক ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি গোলাম হোসেন গোল্লা বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। প্রধান শিক্ষককের সঙ্গে কথা বলে পরে জানাব।

রাণীনগর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রুহুল আমিন বলেন, ‘আমার বিষয়টি জানা নেই। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।’ রাণীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুশান্ত কুমার মাহাতো বলেন, ‘বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে নির্দেশ দেওয়া হবে।’

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  

সারাদেশ

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]