মঙ্গলবার ১১ মে ২০২১ ২৮ বৈশাখ ১৪২৮

শিরোনাম: চাঁদ দেখা যায়নি সৌদিতে, ঈদ বৃহস্পতিবার    মিতু হত্যা মামলায় স্বামী বাবুল আক্তার গ্রেপ্তার    মালয়েশিয়ায় ঈদ বৃহস্পতিবার    মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল স্থগিত চেয়ে আইনি নোটিশ    ৪৩তম বিসিএসের প্রিলি পরীক্ষার তারিখ পেছাল    মন্ত্রীদের বক্তব্য শুধু অশালীন নয়, অমার্জিত ও অগ্রহণযোগ্য: ফখরুল    কমেছে বেসরকারি পর্যায়ে করোনা টেস্ট ফি    
সেই রিকশাচালকের মুখে হাসি ফোটালেন তরুণ ব্যারিস্টার
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল, ২০২১, ৬:১৪ পিএম আপডেট: ২৫.০৪.২০২১ ২:১৫ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

চলমান লকডাউনে শারীরিক প্রতিবন্ধী একজনের রিকশা আটকে দেওয়া হয়। এরপর তার দেওয়া এক বক্তব্যের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়। সেই ভিডিও দেখে তার জন্য দুঃখ হয়েছিলো অনেকেরই। ঘটনাটি জানতে পেরে সেই রিকশাচালককে ১ লাখ টাকা দেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার আহসান হাবিব ভূঁইয়া।

শনিবার (২৪ এপ্রিল) ব্যারিস্টার আহসান হাবিব ভূঁইয়া গণমাধ্যমকে বলেন, 'সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওটি দেখে অনেকেই আমাকে রিকোয়েস্ট করল বিষয়টি দেখার জন্য। এছাড়াও আমার এক বন্ধু রফিকের কান্নার ভিডিও‍র লিংক আমাকে ইনবক্স করে বলল এটা দেখে তার নাকি খারাপ লাগছে। আমিও বললাম আমারও খারাপ লাগছে কি করার। এর পরের দিন বিকেলে আরও এক বন্ধু লিংক পাঠালো। রফিকের কান্নার এই দৃশ্য দেখার পর তারা রাতে ঘুমাতে পারছিল না। ভয়েসটি শুনে আমার খুব খারাপ লেগেছিল। কিন্তু একজন নাম ঠিকানাহীন মানুষকে খুঁজে বের করা কি সম্ভব? এই লোক তার গ্রামের বাড়ি বলছে টাঙ্গাইল, থাকেন ফরিদাবাদ। এছাড়া আর কোনো ইনফরমেশন ভিডিওতে নাই। ফরিদাবাদ জায়গাটা কৈ এটাও চিনি না।'

তিনি বলেন, 'এরপর ড্রাইভারকে নিয়ে গুগল করে দেখলাম ঘটনাটি যাত্রাবাড়ী থেকে প্রায় ২০ কিলোমিটার দূরে। বুড়িগঙ্গা থেকেও প্রায় ১৫ কিলোমিটার কেরানীগঞ্জের ভিতরের ফরিদাবাদ। ওই এলাকায় গিয়ে দুটি পান দোকানদারকে ছবি ও ভিডিও দেখানোর পর তারা বলে রফিককে চিনে না। এরপর দুটি রিকশার গ্যারেজ মালিককে দেখানো হয়, তারাও বলতে পারে না।'

এরপর আরেকজন পান দোকানদারকে ভিডিওটি দেখান আহসান হাবিব। সেখানে থাকা অপর এক রিকশাচালক বললেন তিনি রফিককে চিনেন। এভাবেই শেষ পর্যন্ত রফিককে খুঁজে পাওয়া যায়।

ব্যারিস্টার আহসান আরও বলেন, 'ওই রিকশাচালকের বাড়িতে তার স্ত্রী ও সন্তান রয়েছে। তিনি শারীরিক প্রতিবন্ধী। তিনি রিকশা চালাতে পারবেন না। তাই তাকে স্বাবলম্বী করার জন্য আমাদের গড়া একটি সংগঠন পরিবর্তন ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে এক লাখ টাকা দেয়ার সিদ্ধান্ত নিই। নগদ ৫০ হাজার টাকা সঙ্গে সঙ্গেই তার হাতে তুলে দিয়েছি। ওই সময় আরও ১০ হাজার টাকা এক বন্ধু বিকাশ করে রিকশাচালককে দেন। মোট ৬০ হাজার টাকা দেয়া হয়। আর বাকি ৪০ হাজার টাকা তাকে বুঝিয়ে দেয়া হবে। যাতে তিনি গ্রামে গিয়ে ছোটখাটো ব্যবসা বা পান দোকান করে সংসার চালাতে পারেন।'

এদিকে টাকা পেয়ে রিকশাচালক রফিক খুবই খুশি হন। তিনি জানান, গ্রামে গিয়ে ব্যবসা করার চিন্তা করবেন।

তিনি বলেন, 'এটা শুধু সহযোগিতা নয়, আমার ইচ্ছে হলো একজন অসহায় মানুষের যেন চলার একটা ব্যবস্থা হয়। আমরা যদি জাকাতে শাড়ি লুঙ্গি না দিয়ে কিছু টাকা দিয়ে এমন দরিদ্র লোককে একটা ছোট ব্যবসা ধরিয়ে দিতে পারি তাহলে তার উপকার বেশি হবে।'

এর আগে বুধবার (২১ এপ্রিল) ব্যারিস্টার আহসান হাবিব ভূঁইয়া তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রিকশাচালক রফিকের হাসিমাখা একটি ছবি পোস্ট করেন। সেখানে তিনি লিখেন, আলহামদুল্লিাহ। #PoribortonKori



সেই ছবিতে এখন পর্যন্ত ১৫  হাজার লাইক-রিয়েকশন, এক হাজারের বেশি কমেন্ট ও ১৮শর বেশি শেয়ার হয়েছে। ব্যারিস্টার আহসানের সহযোগিতার জন্য মানুষ তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। ব্যারিস্টার আহসান হাবিব ভূঁইয়া গত বছর দেশে করোনা মহামারির শুরু থেকেই থেকেই গরীব-অসহায় মানুষকে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করে আসছেন।

গত কয়েকদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে ওই ভিডিওতে রিকশাচালক রফিককে কান্নারত অবস্থায় বলতে শোনা যায়, আমরা প্রতিবন্ধী কাজ করে খেতে চাই। সেটাও করতে পারি না। বিধিনিষেধের মধ্যে তিনি তার ব্যাটারি চালিত রিকশায় যাত্রী নিয়ে কাকরাইল যাচ্ছিলেন। পথে ট্রাফিক পুলিশ তার রিকশা আটকে দেয়। তাকে ১২শত টাকা দিতে বলা হয়। নইলে রিক্সা ডাম্পিংয়ে দেওয়া হবে। 

তিনি কান্নারত অবস্থায় বলেন, আমি শারীরিক প্রতিবন্ধী। আমার ব্যাটারি চালিত রিকশা চালানোর অনুমতি আছে। অথচ আমার কাছ থেকে টাকা দাবি করা হচ্ছে। আমি চারদিন ধরে কাজে বের হতে পারি না। আমার কাছে আছে ১৫০ টাকা। আমি কীভাবে ১২০০ টাকা দিয়ে রিকশা ছাড়িয়ে আনব। 

ভোরের পাতা/এএম

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  

সারাদেশ

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]