বুধবার ১২ মে ২০২১ ২৯ বৈশাখ ১৪২৮

শিরোনাম: অপ্রতিরোধ্য করোনায়ও প্রতিরোধ গড়েছেন শেখ হাসিনা    চাঁদ দেখা যায়নি সৌদিতে, ঈদ বৃহস্পতিবার    মিতু হত্যা মামলায় স্বামী বাবুল আক্তার গ্রেপ্তার    মালয়েশিয়ায় ঈদ বৃহস্পতিবার    মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল স্থগিত চেয়ে আইনি নোটিশ    ৪৩তম বিসিএসের প্রিলি পরীক্ষার তারিখ পেছাল    মন্ত্রীদের বক্তব্য শুধু অশালীন নয়, অমার্জিত ও অগ্রহণযোগ্য: ফখরুল   
ছাত্রদল নেতা এবার টেকনাফ উপজেলা ছাত্রলীগের সা. সম্পাদক!
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: বুধবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২১, ৪:২৪ পিএম আপডেট: ১৪.০৪.২০২১ ৪:৪৪ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

ছাত্রলীগে কোনোভাবেই অনুপ্রবেশ ঠেকানো যাচ্ছে না। কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে তৃণমূলেও একই অবস্থা। সর্বশেষ কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলা ছাত্রলীগের দুই সদস্যের কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। 

যেখানে সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন ইয়াবা ব্যবসায়ী পরিবারের সদস্য, উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও টেকনাফের বিএনপি মনোনীত সাবেক এমপি শাহাজান চৌধুরীর কর্মী এবং হ্নীলা জুমুরিয়া মাদ্রাসা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক এবং উপজেলা ছাত্রদলের সদস্য নুরুল মোস্তফা। 

কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন এবং সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনান ১৩ এপ্রিল সাইফুল ইসলাম মুন্নাকে সভাপতি এবং বিতর্কিদত নুরুল মোস্তাফাকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে।  ইতিমধ্যেই  বিএনপির সাবেক এমপির সঙ্গে থাকা তার ছবি ইতিমধ্যেই ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

এদিকে, উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি গিয়াস উদ্দিন এবং সাধারণ সম্পাদক নুরুল হুদাসহ আরো কয়েকজন নুরুল মোস্তফা যে ছাত্রদলের নেতা ছিলেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এদিকে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কেউ কেউ ইয়াবা বাণিজ্যের মূল ঘাঁটি হিসাবে খ্যাত টেকনাফ ছাত্রলীগের এই কমিটিতে বিপুল পরিমাণ অর্থ লেনদেনের অভিযোগও করেছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। 

স্থানীয় নেতা-কর্মীরা বলছেন, নুরুল মোস্তফা আগে কখনো ছাত্রলীগের সঙ্গে জড়িত ছিলেন না। তিনি সাম্প্রতিককালে উপজেলা ছাত্রলীগের পদ পাওয়ার জন্য ছাত্রলীগের বিভিন্ন অঙ্গনে দৌড়াদৌড়ি করে এবং বিভিন্ন মাধ্যমে তদবির করে পদ বাগিয়ে নিয়েছেন। এর আগে তিনি ছাত্রলীগের কোন পদে ছিলেন না। ছাত্রদল থেকে পদ দিয়ে ছাত্রলীগে যোগদান করিয়ে রেকর্ড করলো কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগ।

মঙ্গলবার দিবাগত রাতে কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনান সাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ কমিটি গঠন করা হয়। এতে সভাপতি করা হয়েছে সাইফুল ইসলাম মুন্নাকে।

তবে এই কমিটি দেওয়া নিয়ে ঘটেছে এক ব্যতিক্রমী ঘটনা। সরাসরি ছাত্রদল নেতা নুরুল মোস্তফাকে সাধারণ সম্পাদক পদ দেয়া হয়েছে। যিনি জেলা বিএনপির সভাপতি ও টেকনাফের বিএনপি মনোনীত সাবেক এমপি শাহাজান চৌধুরীর কর্মী।

আর এই ঘটনার ফলে টেকনাফ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ফেইসবুক এ বিষয়টি নিয়ে তীব্র আলোচনা-সমালোচনা করছেন। তারা বলছেন, এ ধরনের ঘটনা ছাত্রলীগে মেনে নেয়া যায়না। ছাত্রলীগের ত্যাগী নেতাকর্মীরাও এর ফলে মারাত্মকভাবে বঞ্চিত হলেন। যা পরবর্তীতে ছাত্রলীগে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে।

ছাত্রদল সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে কেন সাধারণ সম্পাদক পদ দেয়া হল এরকম প্রশ্ন তুলে স্থানীয় নেতাকর্মীরা বলছেন, বিরাট অংকের অর্থের বিনিময়ে তাকে এ পদ দেয়া হয়েছে।

এ নিয়ে টেকনাফ উপজেলার একাধিক পদপ্রার্থীদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা জানান যে, এই কমিটির বেশকিছু তথ্যপ্রমাণ তাদের কাছে আছে। যা তারা যথাযথ স্থানে পৌঁছানোর ব্যবস্থা করছেন।

এদিকে ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া ছাত্রদলের একটি প্যাডে নুরুল মোস্তফার নাম সদস্যপদে দেখা যাচ্ছে অর্থাৎ তিনি একসময় টেকনাফ ছাত্রদলের সদস্য ছিলেন। মোস্তাফার আপন ভাই নাছির হ্নীলা ইউনিয়ন যুবদলের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক। তার পরিবারের সবাই বিএনপির কর্মী ও সমর্থক।



এদিকে এ বিষয়ে জানার জন্য কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনানকে বার বার ফোন করা হলেও তিনি তা রিসিভ করেননি। এমনকি জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেনও কমিটি ঘোষণার পর থেকে গণমাধ্যমকে এড়িয়ে চলছেন। 

এদিকে, ছা্ত্রলীগের দায়িত্বপ্রাপ্ত আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ভোরের পাতাকে বলেন, ছা্ত্রলীগের যেকোনো পর্যায়ে অনুপ্রবেশ বন্ধ করতে হবে। এক্ষেত্রে অর্থ লেনদেনের অভিযোগ পাওয়া গেলে জেলা কমিটির শীর্ষ দুই নেতার বিরুদ্ধেই ব্যবস্থা নেয়ায় জন্য কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় এবং সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টচার্যকে বিষয়টি খতিয়ে দেখার নির্দেশ দেয়া হবে।


ভোরের পাতা/কে 

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  

সারাদেশ

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]