সোমবার ২৬ জুলাই ২০২১ ১১ শ্রাবণ ১৪২৮

শিরোনাম: ঘুরেফিরে ঋণ পাচ্ছেন বড় ব্যবসায়ীরা    সমৃদ্ধ আগামীর প্রতিচ্ছবি    ঈদযাত্রায় সড়কে প্রাণ গেলো ২০৭ জনের    এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা হবে যে ৩ বিষয়ে!    রাজধানীতে আরও ৫৬৬ জন গ্রেফতার     জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের গফুর টাওয়ারে আগুন    করোনা রোধে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক বসছে   
https://www.dailyvorerpata.com/ad/Inner Body.gif
নিউজপ্রিন্ট ও কালি আমদানিতে শুল্ক প্রত্যাহারের দাবি নোয়াবের
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২৫ মার্চ, ২০২১, ৩:৩০ এএম | অনলাইন সংস্করণ

সংবাদপত্রশিল্পে কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহৃত নিউজপ্রিন্ট ও কালি আমদানিতে শুল্ক প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে সংবাদপত্র মালিকদের সংগঠন নিউজপেপার ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (নোয়াব)। এ ছাড়া নোয়াবের পক্ষ থেকে বর্তমান সংবাদপত্র প্রতিষ্ঠানের ওপরে আরোপিত সাড়ে ৩২ শতাংশ করপোরেট কর কমিয়ে ১২ থেকে ১৫ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়।

বুধবার আগামী অর্থবছরের (২০২১-২২) জন্য জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চলমান বাজেট আলোচনায় অংশ নিয়ে নোয়াব নেতারা এ দাবি জানান। নোয়াবের পক্ষে দাবিগুলো উপস্থাপন করেন সংগঠনের সভাপতি ও সমকাল–এর প্রকাশক এ কে আজাদ। নোয়াবের দাবি, করোনার কারণে এক বছর ধরে সংবাদপত্রশিল্প ধুঁকছে। প্রচারসংখ্যা কমে গেছে।


নোয়াব সভাপতি এ কে আজাদ বলেন, সংবাদপত্রের মূল কাঁচামাল হলো কাগজ। কিছু শিল্পের মূল কাঁচামালের ওপর শূন্য শুল্ক আছে। কিন্তু সংবাদপত্রের কাঁচামাল কাগজের ওপর ৫ শতাংশ শুল্ক দিতে হয়। এর পাশাপাশি ১৫ শতাংশ ভ্যাট, ৫ শতাংশ অগ্রিম করসহ সব মিলিয়ে ৩০ শতাংশ কর দিতে হয়। করোনার কারণে এখন সংবাদপত্র প্রকাশের খরচ মেটানো অসাধ্য হয়ে পড়েছে।

 নোয়াবের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও ইংরেজি দৈনিক দ্য ডেইলি স্টার সম্পাদক ও প্রকাশক মাহ্‌ফুজ আনাম বলেন, ‘করোনা সংবাদপত্রশিল্পে ব্যাপক প্রভাব ফেলেছে। এমন পরিস্থিতিতে আমরা এনবিআরের সহায়তা চাই।’ তিনি কাগজের আমদানি শুল্ক ও করপোরেট কর কমানোর দাবি জানান।

 এ ছাড়া উপস্থিত ছিলেন নোয়াব সদস্য ও সংবাদ–এর সম্পাদক আলতামাশ কবির, বণিক বার্তার সম্পাদক ও প্রকাশক দেওয়ান হানিফ মাহমুদ।

সংবাদপত্রের কাঁচামাল কাগজের ওপর ৫ শতাংশ শুল্ক দিতে হয়। এর পাশাপাশি ১৫ শতাংশ ভ্যাট, ৫ শতাংশ অগ্রিম করসহ সব মিলিয়ে ৩০ শতাংশ কর দিতে হয়।



নোয়াবের দাবিদাওয়া সম্পর্কে এনবিআর চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম বলেন, ‘নোয়াবের প্রস্তাবগুলো পর্যালোচনা করে যৌক্তিক হলে বিবেচনার চেষ্টা করা হবে। কাগজের ওপর আমদানি শুল্ক কমানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। যখন শুল্ক বসানো হয়, তখন স্থানীয় শিল্পকে রক্ষার বিষয়টিও মাথায় রাখতে হয়। এ দেশে কয়েকটি কাগজ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান আছে। আমার জানা নেই, তারা মানসম্পন্ন কাগজ উৎপাদন করতে পারে কি না।’

একই অনুষ্ঠানে অ্যাসোসিয়েশন অব টেলিভিশন চ্যানেল ওনার্স (অ্যাটকো) বাজেট প্রস্তাব দেয়। অ্যাসোসিয়েশনের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি মোজাম্মেল বাবু সংবাদপত্রের মতো টিভি চ্যানেলকেও শিল্প হিসেবে ঘোষণার দাবি জানান। তিনি বলেন, বর্তমানে টেলিভিশন প্রতিষ্ঠানকে বিভিন্ন পর্যায়ে ১০ শতাংশ উৎসে কর দিতে হয়। কিন্তু পরে তা করপোরেট করের সঙ্গে সমন্বয় করা যায় না।

অনলাইনে ভার্চ্যুয়াল এ সভায় সভাপতিত্ব করেন এনবিআর চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম। অনুষ্ঠানে এনবিআর সদস্য মাসুদ সাদিক, আলমগীর হোসেনসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অংশ নেন।

ভোরের পাতা-এনই

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
https://www.dailyvorerpata.com/ad/last (2).gif
https://www.dailyvorerpata.com/ad/agrani.gif
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]