বুধবার ১২ মে ২০২১ ২৯ বৈশাখ ১৪২৮

শিরোনাম: অপ্রতিরোধ্য করোনায়ও প্রতিরোধ গড়েছেন শেখ হাসিনা    চাঁদ দেখা যায়নি সৌদিতে, ঈদ বৃহস্পতিবার    মিতু হত্যা মামলায় স্বামী বাবুল আক্তার গ্রেপ্তার    মালয়েশিয়ায় ঈদ বৃহস্পতিবার    মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল স্থগিত চেয়ে আইনি নোটিশ    ৪৩তম বিসিএসের প্রিলি পরীক্ষার তারিখ পেছাল    মন্ত্রীদের বক্তব্য শুধু অশালীন নয়, অমার্জিত ও অগ্রহণযোগ্য: ফখরুল   
জঙ্গলে কনেকে খুঁজে জঙ্গলেই বিয়ে!
ভোরের পাতা ডেস্ক
প্রকাশ: বুধবার, ৩ মার্চ, ২০২১, ১০:০৭ পিএম আপডেট: ০৩.০৩.২০২১ ১০:৩৫ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

ভারতের কেরালার মুথুভান আদিবাসী এই সম্প্রদায়ের মধ্যে বিয়ের এক অদ্ভুত রীতি ছিল। আর তা হচ্ছে বিয়ে করতে বউ খুঁজতে হবে জঙ্গলে!

তবে এক সময় এমন রীতি থাকলেও এখন জঙ্গলের অভাবে তা ক্রমশ হারিয়ে গেছে। মুথুভান সম্প্রদায়ের ছেলেদের বিয়ের আগে এভাবেই জীবন বাজি রেখেই বউ খুঁজে আনতে হতো। মুথুভানরা সম্ভবত তামিলনাড়ুর মন্দির শহর বলে পরিচিত মাদুরাই থেকে কেরালায় এসে পৌঁছেছিলেন।

সে সময় মুথুভান সম্প্রদায়ের মধ্যে বিয়ের রীতি এক সপ্তাহ ধরে উপভোগ করতো সারা গ্রাম। কারণ বিয়ের আগে জঙ্গলে লুকিয়ে রাখা হতো হবু কনেকে। বিয়ের করবার জন্য হবু বরকে নিজের সাহসিকতার প্রমাণ দিতে হতো। জঙ্গলে তন্ন তন্ন করে খুঁজে বের করে আনতে হতো কনেকে। তারপরই বিয়ে হতো তাদের।

হবু বর যদি কনেকে খুঁজে না বের করতে পারতেন, তাহলে তাঁকে ব্যর্থ হিসেবে ধরে নিতো গ্রামবাসী। সেক্ষেত্রে হবু কনের জন্য আলাদা পাত্রের খোঁজ শুরু হতো। দুই পরিবারের মধ্যে বিয়ের কথাবার্তা চূড়ান্ত হওয়ার পর হবু কনের বন্ধু-বান্ধব তার মা-বাবার অনুমতি নিয়ে তাকে জঙ্গলে লুকিয়ে রাখতেন।

হবু কনে বিয়ের সাজেই বন্ধুদের সঙ্গে রওনা দিতেন। গভীর জঙ্গলে বন্ধুরা তাকে আগলে রাখতেন এবং তার যাতে কোনও ক্ষতি না হয় তা নিশ্চিত করতেন তারাই। হবু বরও দলবল নিয়ে জঙ্গলে কনের খোঁজ করতো।

হবু কনেকে খুঁজে পেতে অনেকেরই দিনের পর দিন জঙ্গলেই কেটে যেতো। পড়তেন নানা রকম বিপদের মুখেও। কিন্তু ভয়ে পিছিয়ে আসতে পারতেন না। কেননা তাতে তার সম্মান চলে যেতো এবং সারাজীবন অবিবাহিতই থাকতে হতো।



এভাবে যেদিন হবু কনেকে খুঁজে পেতো বর সেদিনই জঙ্গলের মধ্যে তাদের বিয়ে দেওয়া হতো। সঙ্গে থাকা বন্ধুবান্ধবরাই বিয়ের ব্যবস্থা করতো। লাল চুড়ি এবং নতুন শাড়ি পরিয়ে বিয়ে করতেন বর। তারপর সেই রাত তাদের একসঙ্গে ওই জঙ্গলে কাটাতে হতো। গাছের উপর ঘর বেঁধে একসঙ্গে রাত কাটাতেন নবদম্পতি।

পরদিন সকালে গ্রামে ফিরতো নবদম্পতি। আনন্দে আত্মহারা গ্রামবাসীরা উৎসবে মেতে উঠতো। এখনও কেরালায় এই আদিবাসী সম্প্রদায় রয়েছে। কিন্তু জঙ্গলের অভাবে বিয়ের এই আদি প্রথা প্রায় মুছে যেতে চলেছে।


ভোরের পাতা/কে 

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


আরও সংবাদ   বিষয়:  ভারতে   আদিবাসী   জঙ্গলে   বিয়ে  







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  

সারাদেশ

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]