রোববার ১৮ এপ্রিল ২০২১ ৫ বৈশাখ ১৪২৮

শিরোনাম: চিত্রনায়ক ওয়াসিম আর নেই    মুজিবনগর সরকার দেশ ও জাতির সৃষ্টির সরকার    আ.লীগ সরকার ইলিয়াস আলীকে গুম করেনি : মির্জা আব্বাস    কাদের মির্জাকে প্রতিহতের ঘোষণা আ.লীগের    হেফাজতের ঢাকা মহানগর সভাপতি হাবীব গ্রেফতার    নিষিদ্ধ হতে পারেন ধোনি!    সৌদির ফ্লাইট রোববার থেকে শুরু   
উন্নয়নের রোল মডেলে রূপান্তরিত হয়েছে বাংলাদেশ: মেজর জেনারেল (অব.) আব্দুর রশিদ
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: সোমবার, ১ মার্চ, ২০২১, ১০:৩৯ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

উন্নয়নের রোল মডেলে রূপান্তরিত হয়েছে বাংলাদেশ: মেজর জেনারেল (অব.) আব্দুর রশিদ

উন্নয়নের রোল মডেলে রূপান্তরিত হয়েছে বাংলাদেশ: মেজর জেনারেল (অব.) আব্দুর রশিদ

স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে আমাদের জন্য একটি সুবর্ণ সংবাদ রয়েছে। সেটি আমাদের গর্বিত করেছে। সেটি হচ্ছে দেশরত্ন শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে পৌঁছে গেল বাংলাদেশ। এটি আমাদের বাঙালিদের জন্য অনেক বড় গৌরবের বিষয়। বাংলাদেশ ৫০ বছরে আর্থ-সামাজিকভাবে ভালো একটি অর্জনের জায়গায় পৌঁছাতে পেরেছে।

দৈনিক ভোরের পাতার নিয়মিত আয়োজন ভোরের পাতা সংলাপের ২৬৫তম পর্বে শনিবার (০১ মার্চ) আলোচক হিসাবে উপস্থিত হয়ে এসব কথা বলেন নিরাপত্তা বিশ্লেষক ও সামরিক গবেষক মেজর জেনারেল (অব.) আব্দুর রশিদ, বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, বেলজিয়াম এর সভাপতি অধ্যাপক ড. ফারুক মির্জা,  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের চেয়ারম্যান এবং বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক ড. বদরুজ্জামান ভূঁইয়া কাঞ্চন, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক বিপ্লব মুস্তাফিজ। দৈনিক ভোরের পাতা সম্পাদক ও প্রকাশক ড. কাজী এরতেজা হাসানের পরিকল্পনা ও নির্দেশনায় অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সাবেক তথ্য সচিব নাসির উদ্দিন আহমেদ।

মেজর জেনারেল (অব.) আব্দুর রশিদ বলেন, প্রথমেই আমি ধন্যবাদ জানাচ্ছি ভোরের পাতার সম্পাদক ও আজকের সঞ্চালককে আজকে এমন একটি বিষয় নিয়ে সংলাপ আয়োজন করার জন্য এবং আমাকে আমন্ত্রণ করার জন্য। স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে আমাদের জন্য একটি সুবর্ণ সংবাদ রয়েছে। সেটি আমাকে গর্বিত করেছে। সেটি হচ্ছে বাংলাদেশ এই ৫০ বছরে কতটুকু এগিয়েছে এবং কতটুকু সামনের দিকে অগ্রসর করেছে, যেভাবে আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এই দেশটাকে স্বাধীন করে দিয়েছেন এবং তারই যোগ্য কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে পৌঁছে গেল বাংলাদেশ। জাতিসংঘের কমিটি ফর ডেভেলপমেন্ট পলিসির (সিডিপি) চূড়ান্ত সুপারিশে বাংলাদেশ এলডিসি (স্বল্পোন্নত দেশ) থেকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে চলে এলো। এটি একটি গর্বের বিষয় এটি কিন্তু সুস্পষ্ট। আপনারা যদি লক্ষ্য করেন, এই অর্জনটি পেতে হলে কতগুলো সূচক আছে যেমন, মাথাপিছু আয়, মানবসম্পদ উন্নয়ন এবং অর্থনীতির ভঙ্গুরতা। এই তিনটি সূচকের মধ্যে অন্তত দুটি সূচকে মানদণ্ড পূরণ করতে পারলে উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা পাওয়া যায়। স্বল্পোন্নত দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ একমাত্র দেশ ২০১৮ এবং ২০২১ সালে তিনটি সূচকের সবগুলো পূরণ করেছে, যার কারণে উত্তরণের সুপারিশ প্রাপ্ত হওয়ার গৌরব এসেছে। এটি আমাদের বাঙালিদের জন্য অনেক বড় গৌরবের বিষয়। ৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণ, ২৫ মার্চ পাকিস্তানি জান্তার সার্চলাইট অপারেশন চালিয়ে নির্বিচারে বাঙালি নিধন, বঙ্গবন্ধুকে গ্রেপ্তার করে পশ্চিম পাকিস্তানে নিয়ে যাওয়া, গ্রেপ্তার হওয়ার আগে বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতা ঘোষণা—সর্বোপরি মুক্তিকামী জনতা একটি স্বাধীন-সার্বভৌম দেশের জন্য আনুষ্ঠানিক রক্তক্ষয়ী সশস্ত্র সংগ্রাম শুরু করে এই মার্চ থেকেই। ১৯৭০ সালের নির্বাচনে যে ম্যান্ডেট তিনি পেয়েছিলেন বস্তুত সেই ম্যান্ডেটই তাঁকে প্রচণ্ডরূপে আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছিল। এর পর থেকেই আমাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত করার জন্য নানা কূটকৌশল চালাতে থাকে তৎকালীন পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠী। আজকে আমরা যখন এগিয়ে যাচ্ছি সেখানে উন্নয়ন আর স্বাধীনতা এইদুটোকে আমরা যখন একসাথে মিলিয়ে দেখছি তখন বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী, এদিক দিয়ে আমাদের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী এবং আমাদের যে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে পৌঁছে যাওয়া; সব মিলিয়ে বাংলাদেশ বর্তমানে যে অবস্থানে দাড়িয়ে আছে সেখানে আমাদের ভূ-রাজনীতি ও পররাষ্ট্রনীতি আছে তার মেরুকরণে আমরা যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছি সেখানে আমরা উন্নয়নের রোল মডেলে রূপান্তরিত হচ্ছি।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


আরও সংবাদ   বিষয়:  ভোরের পাতা সংলাপ   মেজর জেনারেল (অব.) আব্দুর রশিদ  







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  

সারাদেশ

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]