শনিবার ১৭ এপ্রিল ২০২১ ৩ বৈশাখ ১৪২৮

শিরোনাম: কবরীর মৃত্যু দেশের চলচ্চিত্র অঙ্গনের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি: রাষ্ট্রপতি    দেশের চলচ্চিত্রে কবরী এক উজ্জ্বল নক্ষত্র: প্রধানমন্ত্রী    ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস আজ    সারাহ বেগম কবরী আর নেই    আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশ ঠেকাতেই হবে    স্বেচ্ছাসেবক লীগের উদ্যোগে মানবতার ভ্যান চালু    মামুনুল-বাবুনগরীসহ হেফাজতের শীর্ষ নেতাদের গ্রেফতার দাবি   
করোনার টিকা নিলেন কাজী এরতেজা হাসান
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৬:১৫ পিএম আপডেট: ২৩.০২.২০২১ ৬:৫২ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশে প্রথম পর্যায়ে ৩৫ লাখ মানুষকে করোনা ভাইরাসের টিকা দেওয়ার কার্যক্রম এগিয়ে চলছে। সারাদেশে এক হাজার পাঁচটি কেন্দ্রে বন্ধুপ্রতীম রাষ্ট্র ভারত থেকে আনা অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার এই টিকা দেয়া হচ্ছে। ইতিমধ্যেই ২৩ লাখেরও বেশি মানুষ টিকা গ্রহণ করেছেন।  ইতিমধ্যেই ২৩ লাখেরও বেশি মানুষ টিকা গ্রহণ করেছেন।  

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) নিজেকে এই করোনা টিকা উৎসবে সম্পৃক্ত করেছেন ভোরের পাতা সম্পাদক ও প্রকাশক, এফবিসিসিআই পরিচালক, সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় শিল্প বাণিজ্য উপ কমিটির সদস্য ড. কাজী এরতেজা হাসান, সিআইপি। এফবিসিসিআই’র সভাপতি পরামর্শক্রমে এই টিকাদান কর্মসূচীর সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিল বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। 

করোনার টিকা নেওয়ার পর নিজের অনুভূতি প্রকাশ করে নিজের ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে ড. কাজী এরতেজা হাসান লিখেন, করোনা মহামারীর শুরুতেই গত বছরের ১৯ মার্চ আমাদের এতিম করে শোকের সাগরে ভাসিয়ে মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কাছে চলে গেছেন আব্বা কাজী আব্দুল মান্নান। পিতা হারানোর শোকের সঙ্গে শুরু হয়েছিল জীবনের নানা ক্রান্তিকাল। তবুও সাহস হারাইনি। পিতার আদর্শ ধরে রেখে বৈশ্বিক এই মহামারীর মাঝেও ঘরে থেকে কাজ গেছি আমার সর্বোচ্চ অভিভাবক, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার কর্মী হয়ে। এই করোনাকালীন সময়ে নানা গুজব যারা ছড়িয়েছিল, তাদের সমুচীন জবাব দিতেই ভোরের পাতা সংলাপের আয়োজন করেছিলাম, যা আজো অব্যাহত রয়েছে। এই করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন, কিভাবে দেশের মানুষের জীবন ও জীবিকা ঠিক রেখে মহামারী মোকাবিলা করে সফল হতে হয়। বিশ্বের ১৩০ টি রাষ্ট্র যেখানে করোনার টিকা এখনো পায়নি, সেখানে এই বাংলাদেশে করোনার টিকা উৎসব শুরু হয়েছে। 

তিনি আরও  লিখেন, জনগণের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়ানোর চেষ্টাও করেছিল ষড়যন্ত্রকারীরা এই টিকা নিয়েও। তাদের দাঁতভাঙা জবাব দিতে আজ (মঙ্গলবার) সকালেই দেশপ্রেমিক বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তত্বাবধানে করোনা ভ্যাকসিন গ্রহণ করলাম। সাতক্ষীরা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হিসাবে নিজ এলাকায়  তিন সপ্তাহ থাকার কারণে এতদিন নিতে পারিনি। তাই ঢাকায় ফিরে ২ দিনের মধ্যে করোনার টিকা নিয়ে প্রথমেই আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কাছে শুকরিয়া আদায় করছি। পাশাপাশি দোয়া করছি আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য। তার ঐকান্তিক প্রচেষ্টার কারণেই আমরা এখন গর্ব করে বলতে পারি, করোনার ভ্যাকসিন নিয়েছি। 

 সংবাদ সম্মেলনে এফবিসিসিআইয়ের ‍সভাপতি ও বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রভাবশালী প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলে ফাহিমের সঙ্গে ড. কাজী এরতেজা হাসান

সংবাদ সম্মেলনে এফবিসিসিআইয়ের ‍সভাপতি ও বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রভাবশালী প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলে ফাহিমের সঙ্গে ড. কাজী এরতেজা হাসান


স্ট্যাটাসে  ড. কাজী এরতেজা হাসান আরও লিখেছেন, দেশের শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়ীদের সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের ‍সুযোগ্য সভাপতি ও বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রভাবশালী প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলে ফাহিম ভাইয়ের প্রতি বিশেষ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। তিনিই আমাদের নেতা হিসাবে করোনার টিকা গ্রহণ করার সুযোগ করে দিয়েছেন। একই সাথে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি ব্রিগেজিয়ার জেনারেল জামিল ভাইয়ের প্রতি, তিনি নিজে আন্তরিকতা নিয়েই টিকা গ্রহণের সকল কার্যক্রম সম্পন্ন করার কারণে।  আসুন আমরা সবাই এই টিকা উৎসবে যোগ দিয়ে করোনা মুক্ত বাংলাদেশ গড়ি, শেখ হাসিনার হাতকে আরো শক্তিশালী করি। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।’

উল্লেখ্য, দেশে টিকা কার্যক্রমের  গত ২৭ জানুয়ারি থেকে করোনা টিকার নিবন্ধন শুরু হয়। আর ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে সারা দেশে গণটিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়। প্রথম দিকে টিকা নেওয়ার ক্ষেত্রে মানুষের আগ্রহ কম ছিল। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে টিকা নিয়ে মানুষের আগ্রহ বেড়েছে।


ভোরের পাতা-এনই

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


আরও সংবাদ   বিষয়:  করোনার টিকা   কাজী এরতেজা হাসান  







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  

সারাদেশ

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]