রোববার ১৮ এপ্রিল ২০২১ ৫ বৈশাখ ১৪২৮

শিরোনাম: চিত্রনায়ক ওয়াসিম আর নেই    মুজিবনগর সরকার দেশ ও জাতির সৃষ্টির সরকার    আ.লীগ সরকার ইলিয়াস আলীকে গুম করেনি : মির্জা আব্বাস    কাদের মির্জাকে প্রতিহতের ঘোষণা আ.লীগের    হেফাজতের ঢাকা মহানগর সভাপতি হাবীব গ্রেফতার    নিষিদ্ধ হতে পারেন ধোনি!    সৌদির ফ্লাইট রোববার থেকে শুরু   
আল-জাজিরার তথ্যচিত্রে বাংলায় কণ্ঠ দিয়েছেন যারা
ভোরের পাতা ডেস্ক
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৮:০৩ পিএম আপডেট: ১৬.০২.২০২১ ৮:০৭ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

আল-জাজিরার তথ্যচিত্রে বাংলায় কণ্ঠ দিয়েছেন যারা

আল-জাজিরার তথ্যচিত্রে বাংলায় কণ্ঠ দিয়েছেন যারা

আল জাজিরার বিতর্কিত তথ্যচিত্র ‘অল দ্যা প্রাইম মিনিস্টার'স মেন’-এর বহুল প্রচারণার উদ্দেশ্যে করা হয়েছে বাংলা সংস্করণ। এটি লন্ডনে রেকর্ডিং হয়েছে বলে অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে। যারা তথ্যচিত্রের বাংলা ভার্সনে কণ্ঠ দিয়েছেন তাদের মধ্যে কয়েকজন বিষয়টি স্বীকারও করেছেন। তবে কে এই বাংলা ভার্সনের প্রধান উদ্যোক্তা? এ বিষয়ে কেউ মুখ খুলছেন না।

বিতর্কিত ডকুমেন্টারি ‘অল দ্যা প্রাইম মিনিস্টার'স মেন’ আল-জাজিরার হেডকোয়ার্টার কাতারে হলেওএর বাংলা সংস্করণের রেকর্ডিং লন্ডন থেকেই হয়েছে বলেও প্রমাণ মিলেছে। আল জাজিরার ঘণ্টাব্যাপী তথাকথিত অনুসন্ধানী তথ্যচিত্রটা দেখার পর অনেকের মতো অবাক হন তৌহিদ ফিতরাত হোসাইনও। পুরো তথ্যচিত্রে ডাবিংকৃত কণ্ঠস্বর তার দীর্ঘদিনের বন্ধু মুরাদ খান, মিতা চৌধুরী এবং পি দাশ বাবু’র বলেও নিশ্চিত করেন তিনি।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, ‘অল দ্যা প্রাইম মিনিস্টার'স বাংলা ভার্সন তৈরির মূল সমন্বয়ের কাজটি করেছেন লেখক-নির্মাতা লিসা গাজী। যদিও তিনি সমন্বয়ের বিষয়টি অস্বীকার করে জানিয়েছেন, ভয়েস দিতে আগ্রহী কয়েকজনকে তিনি একটি বিজ্ঞাপনী এজেন্সির সঙ্গে যোগাযোগ করিয়ে দিয়েছেন। ডকুমেন্টারিতে যারা ভয়েস দিয়েছেন তারা জানতেন, এটি আল জাজিরার একটি ডকুমেন্টারির জন্য দিচ্ছেন। তাদেরই একজন জিয়াউর রহমান সাকলাইন। যিনি সংবাদ উপস্থাপক হিসেবে কাজ করছেন লন্ডনের একটি বাংলাদেশি টিভি চ্যানেলে। ভয়েস দেয়ার সময়ের ছবি ও লোকেশন ট্যাগ করে ফেসবুকে তিনি গত ৮ জানুয়ারি একটি পোস্ট করেন, যদিও পরে ফেসবুক পোস্টটি সরিয়ে ফেলেন সাকলাইন।


ধারণা করা হচ্ছে, আল জাজিরার ডকুমেন্টারির বাংলা সংস্করণে তাসনিম খলিলের সাক্ষাৎকারের অংশটুকু বাংলায় কণ্ঠ দেন সাকলাইন। এ বিষয়ে একাধিকবার সাকলাইনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তিনি কোনো কথা বলতে রাজি হননি। বিষয়টি যখন আলোচনার তুঙ্গে এবং সন্দেহের আঙুল লিসা গাজীর দিকেই তখন হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপে আত্মপক্ষ সমর্থন করে টেক্সট লিখেন তিনি। সেখান থেকে জানা যায়, ডিসেম্বরের দিকে তিনি জানতে পারেন তথ্যচিত্রটি একটি বিতর্কিত ইস্যু নিয়ে নির্মিত এবং এটি বাংলাদেশে প্রচারিত হবে। তিনি সেই প্রোডাকশন হাউজকে তার ভয়েসের তিনটি স্যাম্পল ইমেইলের মাধ্যমে পাঠালেও তা নির্বাচিত হয়নি।
পুরো ঘটনাটি ব্রিটেনের বাংলাদেশি সাংস্কৃতিক অঙ্গনে কলঙ্ক লেপন করেছে বলে ধারণা অনেকের।

শুরু থেকে শেষ- পুরো বিষয়টি নিয়ে আলজাজিরা এবং যারা কণ্ঠ দিয়েছিলেন তারা বেশ গোপনীয়তা রক্ষা করেছিলেন।  আশ্চর্যের বিষয় হলো, এ তথ্যচিত্রে  যারা মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে কণ্ঠ দিয়েছিলেন তাদের প্রায় সবাই প্রগতিশীল ধারার।

ভোরের পাতা-এনই

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


আরও সংবাদ   বিষয়:  আল জাজিরা   অল দ্যা প্রাইম মিনিস্টারস মেন  







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  

সারাদেশ

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]