রোববার ১৮ এপ্রিল ২০২১ ৫ বৈশাখ ১৪২৮

শিরোনাম: চিত্রনায়ক ওয়াসিম আর নেই    মুজিবনগর সরকার দেশ ও জাতির সৃষ্টির সরকার    আ.লীগ সরকার ইলিয়াস আলীকে গুম করেনি : মির্জা আব্বাস    কাদের মির্জাকে প্রতিহতের ঘোষণা আ.লীগের    হেফাজতের ঢাকা মহানগর সভাপতি হাবীব গ্রেফতার    নিষিদ্ধ হতে পারেন ধোনি!    সৌদির ফ্লাইট রোববার থেকে শুরু   
পরকীয়া প্রেমিক মা-মেয়েকে ব্ল্যাকমেইল করায় ৫ টুকরো করে হত্যা
ভোরের পাতা ডেস্ক
প্রকাশ: শুক্রবার, ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৮:৪৩ পিএম আপডেট: ১২.০২.২০২১ ৯:১০ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

পরকীয়া প্রেমিক মা-মেয়েকে ব্ল্যাকমেইল করায় ৫ টুকরো করে হত্যা

পরকীয়া প্রেমিক মা-মেয়েকে ব্ল্যাকমেইল করায় ৫ টুকরো করে হত্যা

রাজধানীর ওয়ারী এলাকার বাসিন্দা শাহনাজ পারভীনের (৫০) দীর্ঘদিনের পরকীয়া সম্পর্ক। এক পর্যায়ে এ সম্পর্ককে পুঁজি করে টাকা চেয়ে প্রতারণা শুরু করেন প্রেমিক সজিব হাসান (৩২)। এ নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে সজিবকে হত্যার পর কেটে পাঁচ টুকরো করেন শাহনাজ।  

ওয়ারী থানার ওসি আজিজুর রহমান গণমাধ্যমকে এ খবর নিশ্চিত করে তিনি বলেন, শুক্রবার (১২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে শাহনাজ পারভীনকে আদালতে পাঠানো হলে তিনি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

স্বীকারোক্তিতে শাহনাজ পারভীন জানান, তিনি প্রায় দুই বছর ধরে কে এম দাস লেনের ১৭/১ নম্বর বাড়ির চার তলার বাসায় গিয়ে সজীবের সঙ্গে ড্রেসে পুঁথি বসানোর কাজ করতেন। তার ছেলেমেয়েরা বড় হয়েছে। বড় মেয়ে কলেজে পড়ে আর দুই ছেলে চাকরি করেন। স্বামী ব্যবসা করেন। সজীবের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয়।

‌‘এই সুবাদে পরকীয়া প্রেমিক সজীব তার বাসায় যাতায়াত করতেন। এর মধ্যে তার কলেজ পড়ুয়া মেয়ের সঙ্গে সজীবের প্রেমের সম্পর্ক হয়। বিষয়টি জানতে পেরে তিনি সজীবকে বেশ কয়েকবার সতর্কও করেন। এক পর্যায়ে সজীব  তাকে মোবাইল ফোনে তার মেয়ের সঙ্গে সম্পর্ক করার ভিডিও দেখায়। এটা দেখে তিনি লজ্জায় পড়ে সজীবকে খুনের পরিকল্পনা করেন।’

শাহনাজ আরও জানায়, পরে গত ৮ ফেব্রুয়ারি সকালে ব্যাগে কাপড় ভরে তিনি সজীবের বাসায় ওঠেন এবং মেয়ের ভিডিও ডিলিট করতে বলেন। তখন সজীব তাকে জানায় যে যদি তার মেয়েকে ওই বাসায় আনতে পারে তবেই ভিডিও ডিলিট করা হবে। এবং সেটা দেখিয়ে সজীব তার (শাহনাজের) স্বামীর কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা এনে দিতে বলে। এসব বিষয় নিয়ে আলাপ করার এক পর্যায়ে সজীব ঘুমিয়ে পড়ে। তখন তিনি রান্নাঘর থেকে বটি এনে ঘুমন্ত সজিবকে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে।

পুলিশ জানায়, সজিবের গ্রামের বাড়ি ঝিনাইদহে। বাড়িতে খবর পাঠানো হয়েছে, তারাও যোগাযোগ করেছেন। সজিবের মরদেহ মিটফোর্ড হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে যথাযথ প্রক্রিয়ায় পরিবারের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করা হবে।

শাহনাজ এখন পর্যন্ত একাই হত্যার কথা স্বীকার করেছেন। এরপরও হত্যার সঙ্গে আর কেউ জড়িত আছেন কিনা তা তদন্ত করে দেখবে পুলিশ। ওই নারীকে অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হবে।


ভোরের পাতা/কে 

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  

সারাদেশ

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]