শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭

শিরোনাম: ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের সঙ্গে মুশতাকের মৃত্যুর সম্পর্ক নেই: আইনমন্ত্রী    কিউলেক্স মারতে নতুন কীটনাশক আসছে    সৌদি বাদশাহকে বাইডেনের ফোন, কী কথা হলো?    রোজার তারিখ ঘোষণা করলো ইন্দোনেশিয়া    সোমবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘেরাও    আগুনে পুড়ে স্কুলশিক্ষিকার মৃত্যু    ২৪ ঘণ্টার জন্য খুলনায় পরিবহন চলাচল বন্ধ   
জেনে নিন যেসব খাবার খেলে সহজেই 'আলসেমি' কেটে যায়
প্রকাশ: সোমবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০২১, ৬:৫৩ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

জেনে নিন যেসব খাবার খেলে সহজেই 'আলসেমি' কেটে যায়

জেনে নিন যেসব খাবার খেলে সহজেই 'আলসেমি' কেটে যায়

আমাদের জীবনে বিভিন্ন কারণে ভর করে অলসতা বা আলসেমি। শারীরিক দুর্বলতার কারণে অনেক সময় আলসেমি দেখা দিতে পারে কিন্তু আলসেমির মূল কারণ মানসিক। অনেকেই এই আলসেমি কাটানোর জন্য নানা পরিকল্পনা করলেও কোনওটাতেই কিছু কাজ হয় না। তবে কিছু প্রাকৃতিক পদ্ধতি প্রয়োগে আপনি আলসেমি কাটিয়ে উঠতে পারেন। দেখে নিন সেগুলি কী কী।

কফি: কফিতে থাকা ক্যাফেইন এনার্জি বাড়ায়। ১ টেবিল চামচ কফি পাউডার, এক কাপ পানি, পরিমাণমতো চিনি নিন। একটি পাত্রে কফি পাউডার এবং পানি মিশিয়ে ফুটিয়ে নিন। এরপর এতে অল্প চিনি মেশান। একটু ঠান্ডা হওয়ার পর এটি পান করুন। প্রতিদিন ১-২ কাপ কফি পান করতে পারেন।

গ্রিন টি: গ্রিন টিতে থাকা অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট পলিফেনলস আপনার মুড রিল্যাক্স করতে পারে এবং স্ট্রেস থেকে মুক্তি দিতে পারে। ১ টেবিল চামচ গ্রিন টি, এক কাপ পানি, মধু নিন। এক কাপ পানিতে গ্রিন টি মিশিয়ে ফুটিয়ে নিন। হালকা ঠান্ডা হলে এটি পান করুন। ভাল টেস্টের জন্য এতে মধু মেশাতে পারেন। প্রতিদিন দুইবার গ্রিন টি পান করতে পারেন।

লেবু: লেবুর রসের সাইট্রিক অ্যাসিড অক্সিডেটিভ স্ট্রেসের বিরুদ্ধে লড়াই করে ক্লান্তি নিরাময়ে সহায়তা করতে পারে। এছাড়াও, নিয়মিত ভিটামিন সি গ্রহণ আয়রন শোষণকে বাড়িয়ে তোলে, ফলে ক্লান্তি এবং স্ট্রেস দূর হয়। হাফ লেবু, এক গ্লাস গরম জল, পরিমাণমতো মধু নিন। এবার গরম পানিতে লেবুর রস ও মধু দিয়ে ভালোভাবে মেশান। তারপর এটি পান করুন। এটি রোজ সকালে খালিপেটে খেলে উপকার পাবেন।

মধু: মধুতে থাকা কার্বোহাইড্রেট আপনার এনার্জি বাড়াবে এবং আলসেমি ভাব কমাতে সাহায্য করবে। আপনার প্রিয় ডেজার্ট বা স্মুদি-তে কয়েক চামচ মধু মিশিয়ে খান। মধু প্রতিদিন গ্রহণ করতে পারেন।

পানি পান করুন: অলসতা বা আলসেমি চিকিৎসা করা এবং প্রতিরোধের এক দুর্দান্ত উপায় হল নিজেকে হাইড্রেট রাখা। ডিহাইড্রেশন আপনাকে ক্লান্ত বোধ করাতে পারে। সুতরাং, পানি এবং অন্যান্য স্বাস্থ্যকর তরল পর্যাপ্ত পরিমাণে গ্রহণ আপনাকে সুস্থ রাখতে পারে।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  

সারাদেশ

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: ড. কাজী এরতেজা হাসান
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক ভোরেরপাতা
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৯৩ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন:৮৮-০২-৮১৮৯১৪১, ৮১৮৯১৪২, বিজ্ঞাপন বিভাগ: ৮১৮৯১৪৪, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮১৮৯১৪৩, ইমেইল: [email protected] [email protected]