মাধ্যমিক শিক্ষা পর্যন্ত সরকারিকরণের পরিকল্পনা আওয়ামী লীগের: খালিদ

:: দিনাজপুর প্রতিনিধি ::

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ইচ্ছা স্নাতক পর্যন্ত শিক্ষা বিনামূল্যে করে দিতে। এ ধারাবাহিকতায় আগামীতে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলে মাধ্যমিক শিক্ষা পর্যন্ত বিনামূল্যে করার বিষয়টি বিবেচনায় রয়েছে।

জেলার বোচাগঞ্জে মাহেরপুর কলেজের নতুন চারতলা একাডেমিক ভবনের উদ্বোধন শেষে এক সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

খালিদ বলেন, আওয়ামী লীগ আধুনিক ও বিজ্ঞানমনস্ক প্রজন্ম গড়ে তুলতে চায়। মানুষ শিক্ষিত হলে মানসিকতায় পরিবর্তন আসে, দেশপ্রেম আসে। যেকোনো কাজ তারা করতে পারে। এজন্য আওয়ামী লীগ পুরো শিক্ষা ব্যবস্থাকে বিনামূল্যে করে দেয়ার পক্ষে। একধাপে এটা করা অনেক কঠিন। তবে সরকারের ধারাবাহিকতা থাকলে, উন্নয়নেরও একটা ধারাবাহিকতা থাকে। পুরো শিক্ষা ব্যবস্থাও আমরা ধীরে ধীরে সরকারি করতে পারব।

শিক্ষিত নেতৃত্বের প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরে খালিদ বলেন, জাতির পিতার নির্দেশে বাংলাদেশের প্রথম কুদরত-ই-খুদা শিক্ষা কমিশন গঠিত হয়। এর অনেক দিন পর বঙ্গবন্ধু কন্যার নেতৃত্বে আমরা একটি যুগোপযোগী শিক্ষানীতি পেয়েছি। আজকের প্রজন্ম আধুনিক ও প্রযুক্তি বান্ধব প্রজন্ম। বাংলাদেশ আজকে পুরো ডিজিটাল। মহাকাশে আমাদের স্যাটেলাইট স্থাপিত হয়েছে। স্থল ও সমূদ্র সীমার মীমাংসা হয়েছে- এর মূলে হচ্ছে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার মেধাবী ও চৌকষ নেতৃত্ব। 

বিএনপির কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ১৯৯১ সালে বিএনপি ক্ষমতায়  থাকায় আমরা বিনা পয়সায় সাবমেরিন ক্যাবলে যুক্ত হতে পারিনি। এটা অশিক্ষিত নেতৃত্বের কুফল। অনেক পরে বঙ্গবন্ধু কন্যার হাত ধরে আমরা অবাধ তথ্য প্রবাহের বিশ্বায়নে প্রবেশ করেছি। বঙ্গবন্ধু জীবিত থাকলে আমরা আরো ৩০ বছর আগেই বিশ্বায়নে যুক্ত হতে পারতাম। আবার এ অশিক্ষিত নেতৃত্ব ক্ষমতায় আসলে বাংলাদেশ ৫০ বছর পিছিয়ে যাবে।

আধুনিক, প্রযুক্তিবান্ধব, বিজ্ঞানমনস্ক ও বিশ্বমানের প্রজন্ম গড়ে তুলতে আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে ভোট দিয়ে আবারো শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করার আহ্বান জানান খালিদ।

কলেজ গভার্নিং বডির সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবুর সভাপতিত্বে সুধী সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফখরুল হাসান, পৌর মেয়র আব্দুস সবুর, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু সৈয়দ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আফছার আলী প্রমুখ।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here