আরডিডিএল স্বাধীনতা দিবস কুস্তিতে বিজিবি চ্যাম্পিয়ন, সেনাবাহিনী রানার্স আপ

  • ১-Apr-২০১৯ ০৮:৩১ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: ক্রীড়া প্রতিবেদক ::

আরডিডিএল (রূপান্তর ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট লি.)-এর পৃষ্ঠপোষকতায় দিনব্যাপী মহান স্বাধীনতা দিবস উন্মুক্ত কুস্তি প্রতিযোগিতায় এবারের চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ-বিজিবি।

রোববার রাজধানীর এম মনসুর আলী জাতীয় হ্যান্ডবল স্টেডিয়ামে ‘আরডিডিএল মহান স্বাধীনতা দিবস উন্মুক্ত কুস্তি প্রতিযোগিতা-২০১৯’ শেষে প্রধান অতিথি হিসেবে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি, সাবেক পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী ও বর্তমান সংসদ সদস্য আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে দৈনিক ভোরের পাতা ও দ্য ডেইলি পিপল’স টাইম-এর সম্পাদক ও প্রকাশক, এফবিসিসিআই পরিচালক, ইরান-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, রূপান্তর ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট লি. ও ভোরের পাতা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ এবং সাউথ ওয়েস্টার্ন মিডিয়া গ্রুপের চেয়ারপারসন ড. কাজী এরতেজা হাসান, সিআইপি উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন। 

এ সময় প্রধান অতিথি আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব আশা প্রকাশ করে বলেন, ‘আজ যারা এই কুস্তি প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছে তাদের হাত ধরেই এদেশে কুস্তি দিন দিন উন্নতির শিখরে পৌঁছে যাবে, আন্তর্জাতিক অঙ্গনে এদেশের নাম উজ্জ্বল করবে।’ বিশেষ অতিথি ড. কাজী এরতেজা হাসান বলেন, ‘এখন থেকে কুস্তির টাকার জন্য চিন্তা করতে হবে না। আমি ক্রীড়াপাগল লোক। আমি ২০১৬ সালে রংপুর রাইডার্সের মালিকপক্ষের একজন ছিলাম। খেলাকে ভালোবাসি বলেই বিপিএলে দল গড়ে এগিয়ে গিয়েছিলাম। ক্রিকেটের মতো এদেশের অন্য খেলাগুলোও উন্নয়ন ঘটাক, এটাই আমি চাই। কুস্তিকে এগিয়ে নিতে আমার পক্ষে যতটা সম্ভব আমি চেষ্টা করব।’ এর আগে কুস্তি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক তাবিউর রহমান পালোয়ান প্রধান অতিথি আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব ও বিশেষ অতিথি ড. কাজী এরতেজা হাসানের হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন।

রোববার রাজধানীর এম মনসুর আলী জাতীয় হ্যান্ডবল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয় ‘আরডিডিএল মহান স্বাধীনতা দিবস উন্মুক্ত কুস্তি প্রতিযোগিতা-২০১৯’। সকাল ১০টায় শুরু হয়ে প্রতিযোগিতা শেষ হয় বিকেল ৫টায়। ১০টি ক্যাটাগরিতে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি), বাংলাদেশ পুলিশ, বাংলাদেশ আনসারসহ বিভিন্ন বিভাগীয় ও জেলা দল এবং ক্লাবসমূহ। এর মধ্যে চ্যাম্পিয়ন হয় পুরুষ বিভাগে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ- বিজিবি। ৬টি স্বর্ণ, ১টি রৌপ্য, ৩টি ব্রোঞ্জ জিতে চ্যাম্পিয়ন হয় বিজিবির পুরুষ দল। পুরুষ বিভাগে ২টি স্বর্ণ, ৫টি রৌপ্য, ২টি ব্রোঞ্জ জিতে রানার্স আপ হয় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী।

মহিলা বিভাগে ৫টি স্বর্ণ, ১টি রৌপ্য, ৩টি ব্রোঞ্জ জিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি। মহিলা বিভাগে ৪টি স্বর্ণ জিতে রানার্স আপ হয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক তাবিউর রহমান পালোয়ান। বিকেল ৫টায় এই আসর শেষ হওয়ার পর কুস্তি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথির হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন। এরপর শুরু হয় বিজয়ী দলগুলোর মাঝে চ্যাম্পিয়ন ট্রফি ও ক্রেস্ট তুলে দেওয়ার পর্ব। ট্রফি ও ক্রেস্ট তুলে দেন প্রধান অতিথি আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব ও বিশেষ অতিথি ড. কাজী এরতেজা হাসান। 

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান শেষে প্রধান অতিথি আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব তার বক্তব্যে আরও বলেন, ‘আমি সকল খেলোয়াড়, কর্মকর্তাদের আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাই। আমি বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানাই, এই আয়োজনের পৃষ্ঠপোষক,  দৈনিক ভোরের পাতা ও দ্য ডেইলি পিপল’স টাইম-এর সম্পাদক ও প্রকাশক ড. কাজী এরতেজা হাসানকে। যিনি একজন উচ্চ মানসিকতার মানুষ। তার অনুরোধেই আমি আজকের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে আসতে সম্মতি দিয়েছি।’ 

এরপর বিশেষ অতিথি ড. কাজী এরতেজা হাসান তার বক্তব্যে আরও বলেন, ‘আজকের এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত প্রধান অতিথি ব্যস্ত একজন মানুষ। তারপরও আমার কথায় তিনি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়েছেন। আমি তাকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানাই। আমি সত্যি ভাবতে পারিনি এই ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক এত সুন্দর একটি আয়োজন করবেন।’ 

Ads
Ads