সুপ্রভাত পরিবহনের সেই বাসের নিবন্ধন বাতিল

  • ২০-মার্চ-২০১৯ ০৮:৩৪ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

রাজধানীতে বাসচাপায় একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় সুপ্রভাত পরিবহনের ওই বাসটির নিবন্ধন বাতিল করেছে বিআরটিএ।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় (১৯ মার্চ) সংস্থাটি এক চিঠিতে এই তথ্য জানিয়েছে।   

এর আগে মঙ্গলবার সকালে বাসা থেকে ক্যাম্পাসে যাওয়ার পথে প্রগতি সরনি এলাকায় সুপ্রভাত পরিবহনের একটি বাসের চাপায় মারা যান বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) ছাত্র আবরার আহমেদ চৌধুরী। পরে তার সহপাঠীরা দিনভর সড়ক অবরোধ করে আন্দোলন চালায়। সন্ধ্যায় তারা আন্দোলনে বিরতি দিলেও আট দফা দাবিতে আগামীকাল আবার সড়কে নামার ঘোষণা দিয়েছে।

সন্ধ্যায় বিআরটিএ’র সহকারী পরিচালক (ইঞ্জিনিয়ার) মো. রফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে বলা হয়, দুর্ঘটনাজনিত কারণে মোটরযান অধ্যাদেশ, ১৯৮৩ এর ৪৩ ধারা মোতাবেক ঢাকা মেট্রো-ব-১১-৪১৩৫ নং বাসের রেজিস্ট্রেশন সাময়িকভাবে বাতিল করা হয়েছে। বিআরটিএর এই সিদ্ধান্তের ফলে সুপ্রভাত পরিবহনের বাসটি আর সড়কে চলতে পারবে না।

এর আগে দুপুরে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন থামাতে গিয়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম ঘোষণা দিয়েছেন, সুপ্রভাত পরিবহনের কোনো বাসই আর রাজধানীতে চলতে পারবে না। যদিও আজ সারা দিনই এই পরিবহনের বাস রাজধানীতে চলতে দেখা গেছে।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বলছে, তাদের এই আন্দোলন গত বছরের নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের ধাবাহিকতা। তাদের দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত এই আন্দোলন চলবে।

শিক্ষার্থীরা জানায়, বুধবার সকাল ৮টা থেকে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের ক্লাস বর্জন করার কর্মসূচি ঘোষণা দিয়েছে তারা। ক্লাস বর্জন করে স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে তারা অবস্থান নেবে।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আট দফার মধ্যে রয়েছে- পরিবহন সেক্টরকে রাজনৈতিক প্রভাবমুক্ত করা, প্রতিমাসে বাসচালকের লাইসেন্সসহ সকল প্রয়োজনীয় কাগজপত্র চেক; আটক  হওয়া চালক ও সম্পৃক্ত সবাইকে দ্রুততম সময়ে সর্বোচ্চ শাস্তির আওতায় আনা; ফিটনেসবিহীন বাস ও লাইসেন্সবিহীন চালককে দ্রুততম সময়ে অপসারণ; ঝুঁকিপূর্ণ ও প্রয়োজনীয় সব স্থানে আন্ডারপাস, স্পিড ব্রেকার ও ফুট ওভারব্রিজ নির্মাণ; চলমান আইনের পরিবর্তন করে সড়কে হত্যার সঙ্গে জড়িত সবাইকে সর্বোচ্চ শাস্তির আওতায় আনা; দায়িত্ব অবহেলাকারী প্রশাসন ও ট্রাফিক পুলিশকে স্থায়ীভাবে অপসারণ; প্রতিযোগিতামূলক গাড়ি চলাচল বন্ধ করে নির্দিষ্ট স্থানে বাসস্টপ এবং যাত্রী ছাউনি করা এবং ছাত্রদের হাফপাস অথবা আলাদা বাস সার্ভিস চালু করা।

Ads
Ads