ডাকসু নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা ৫ প্যানেলের

  • ১২-মার্চ-২০১৯ ০১:০০ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনের ভোট প্রত্যাখ্যান করেছে চারটি প্যানেল। নির্বাচনে কারচুপিসহ নানা অভিযোগ তুলে ফের পুনঃভোটের দাবি জানিয়েছে তারা।

প্রহসনের ভোটের আয়োজন করায় বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশাসনের প্রতি ‘ঘৃণা’ জানিয়ে ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে তারা।

ভোট বর্জনের ঘোষণা দেয়া ৫টি জোট হচ্ছে- প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্য, স্বাধিকার স্বতন্ত্র জোট, স্বতন্ত্র জোট, ছাত্র ফেডারেশন ও কোটা আন্দোলনসহ বিভিন্ন পদের স্বতন্ত্র প্রার্থীরা।।

সোমবার (১১ মার্চ) দুপুর ১টায় মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলন করে এ ঘোষণা দেন প্যানেলটি থেকে সহ-সভাপতি (ভিপি) প্রার্থী লিটন নন্দী।  একইসঙ্গে তারা আগামীকাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস বর্জন ও ধর্মঘণ্টের ডাক দেয়া হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, প্রহসন-জালিয়াতির এই নির্বাচন বাতিল করে পুনঃতফসিল ঘোষণা করতে হবে। হলে নয়, নতুনভাবে ভোট হতে হবে একাডেমিক ভবনে। সেই নির্বাচনে ব্যালট বাক্স হতে হবে স্বচ্ছ।

এর আগে হাজী মুহম্মদ মুহসীন হলে ভোট কেন্দ্র পরিদর্শনে গেলে প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্যের প্রার্থী-কর্মীদের ধাওয়া দেওয়া হয় বলে অভিযোগ ওঠে। এ ঘটনায় ছাত্রলীগকে অভিযুক্ত করছেন ঐক্যের নেতারা।

এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে স্বতন্ত্র জোট অরণি-শাফী পরিষদ। এই প্যালেনের সাধারণ সম্পাদক (জিএস) পদপ্রার্থী শাফী আব্দুল্লাহ তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এক স্ট্যাটাসে এই ঘোষণা দেন।

তিনি লিখেছেন, ‘সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে, ছাত্রলীগ এবং প্রশাসনের সীমাহীন দুর্নীতির কারণে এবং অরণি সেমন্তি খান ও শ্রবণা শফিক দীপ্তিকে শারীরিকভাবে আক্রমণ করায় স্বতন্ত্র জোট ডাকসু নির্বাচন ২০১৯ বর্জন করছে।’

এদিকে ভোট শুরু আগেই বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হলে ছাত্রলীগ প্যানেলের প্রার্থীদের পক্ষে সিল মারা এক বস্তা ব্যালট পেপার উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভে মুখে হলের প্রাধ্যক্ষ শবনম জাহানকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে রোকেয়া হল ও সুফিয়া কামাল হলে ভোট শুরুর আগে ব্যালট বাক্স না দেখানোর অভিযোগে হল দুটিতে বিক্ষোভ করে ছাত্রীরা। তাদের বিক্ষোভের মুখে বর্তমানে এই দুই হলেই ভোটগ্রহণ বন্ধ রয়েছে।

এ ছাড়া মহসীন হলে ছাত্রলীগের নিয়ন্ত্রণে থাকায় সেখানে সাধারণ অনেক শিক্ষার্থী ভোট না দিয়ে ফিরে গেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।দীর্ঘ ২৮ বছর ১০ মাস পর আজ অনুষ্ঠিত হচ্ছে ডাকসু নির্বাচন। একই সঙ্গে অনুষ্ঠিত হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৮টি আবাসিক হল সংসদের নির্বাচন।

 

/কে 

 

 

Ads
Ads