ভোটগ্রহণ শুরু কুয়েত মৈত্রী হলের

  • ১১-মার্চ-২০১৯ ১০:৫০ অপরাহ্ন
Ads

:: ভোরের পাতা ডেস্ক ::

দীর্ঘ ২৮ বছর ১০ মাস পর আজ অনুষ্ঠিত হচ্ছে ‘দেশের মিনি পার্লামেন্ট’ খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন। একইসঙ্গে অনুষ্ঠিত হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৮টি আবাসিক হল সংসদের নির্বাচন।

সকাল ৮টায় এই ভোটগ্রহণ শুরুর কথা থাকলেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কুয়েত মৈত্রী হলে ৩ ঘণ্টা পর ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। সোমবার (১১ মার্চ) বেলা ১১টা ১০ মিনিটে ভোটগ্রণ শুরু হয়। দেরিতে হওয়ায় এই হলে বিকেল ৫টা ১০ মিনিটে ভোটগ্রহণ শেষ হবে।

এর আগে ছাত্রলীগের প্যানেলের ব্যালট ভর্তি বাক্স পাওয়ায় ভোট বর্জন করে হলের শিক্ষার্থীরা। অভিযুক্ত প্রভোস্ট শবনম জাহানকে অব্যাহতি দিয়ে ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্টের অধ্যাপক মাহবুবা নাসরিনকে নতুন দায়িত্ব দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

শিক্ষার্থী ভোটারদের দাবি খালি ব্যালট বাক্স দেখানো না হলে ভোট শুরু হবে না। এরপরই শুরু হয় জটলা। পরে উদ্ধার করা হয় বস্তাভর্তি ব্যালট পেপার। 

এক পর্যায়ে শিক্ষার্থীরা ভোটগ্রহণ স্থগিত এবং প্রভোস্টকে বরখাস্তের দাবিতে প্রো-ভিসি অধ্যাপক ড. আব্দুস সামাদ ও প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানীকে অবরুদ্ধ করে রাখে। এসময় শিক্ষার্থীরা প্রো-ভিসির প্রাইভেটকারটি জাল ভোটের ব্যালট দিয়ে ঢেকে দেয়। অবশেষে তিন ঘণ্টা পর শুরু হয়েছে ভোটগ্রহণ। 

বিষয়টিকে অনাকাঙ্ক্ষিত উল্লেখ করে তদন্ত করে দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে শিক্ষার্থীদের আশ্বস্ত করেন প্রোভিসি ও প্রক্টর। একই সঙ্গে সাময়িকভাবে ভোটগ্রহণ স্থগিতেরও ঘোষণা দেন। গঠন করা হয়েছে তদন্ত কমিটি।

চীফ রিটার্নিং কর্মকর্তা এস এম মাহফুজ রহমান বলেন, ‘হল প্রভোস্ট শবনম জাহানের বিরুদ্ধে তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

তিনি সাধারণ ভোটারদের অনুরোধ করে বলেন, ‘তোমরা ভোটে অংশগ্রহণ করো। তোমাদের দাবির প্রেক্ষিতে নতুন প্রভোস্টকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।’

নির্বাচন ৩ ঘণ্টা দেরিতে শুরু হওয়ার কারনে তিনি বলেন, ‘ভোট দেয়ার সময় সীমা ৩ ঘন্টা বাড়িয়ে দিয়ে বিকেল ৫টা পর্যন্ত নেয়া হবে।’

 

/কে 

Ads
Ads